ঢাকা     মঙ্গলবার   ১৬ এপ্রিল ২০২৪ ||  বৈশাখ ৩ ১৪৩১

শিশুদের আত্মহত্যার প্রবণতার সঙ্গে সম্পর্ক রয়েছে সর্দির ওষুধের

আন্তর্জাতিক ডেস্ক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ২০:১৩, ৩ মার্চ ২০২৪   আপডেট: ২৩:০২, ৩ মার্চ ২০২৪

বাজারে সর্দির জন্য সবচেয়ে বেশি বিক্রিত ওষুধ মন্টিলুকাস্টের পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ার শিকার হচ্ছে শিশুরা। রোববার ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম দ্য গার্ডিয়ান এ তথ্য জানিয়েছে।

যুক্তরাজ্যের ওষুধ নিয়ন্ত্রক সংস্থা জানিয়েছে তারা বিষয়টি পর্যালোচনা করছে।

পরিবারগুলো জানিয়েছে, শিশুসহ হাঁপানি রোগীদের সাধারণত নির্ধারিত ওষুধ মন্টিলুকাস্টের ঝুঁকি সম্পর্কে তাদেরকে সঠিকভাবে সতর্ক করা হয় না।

এই ওষুধটিকে রাতের আতঙ্ক, বিষণ্নতা এবং বিরল ক্ষেত্রে হ্যালুসিনেশন বা আত্মহত্যা প্রবণতার সাথে যুক্ত করা হয়েছে।

মেডিসিনস অ্যান্ড হেলথ কেয়ার প্রোডাক্ট রেগুলেটরি এজেন্সি চলতি সপ্তাহান্তে নিশ্চিত করেছে, ‘আরো উদ্বেগ’ সনাক্ত করার পরে তারা ওষুধের ঝুঁকি পর্যালোচনা করছে।

মন্টেলুকাস্ট ইউকে অ্যাকশন গ্রুপের কর্মকর্তা তানিয়া হিন্ডার বলেছেন, ‘আক্রান্তরা অনিয়ন্ত্রিত আগ্রাসী হয়ে ওঠে, শিশুরা পরিবারের সদস্যদের আক্রমণ করে এবং অনেক বেশি এলোমেলো চিন্তায় ভুগছে বলে জানিয়েছে। দুঃখজনকভাবে, প্রতিবেদনে আত্মহত্যার চেষ্টা এবং আত্মহত্যার তথ্য উল্লেখ করা হয়েছে।

গ্রাহাম ও অ্যালিসন মিলার দম্পতির ছেলে হ্যারি হাঁপানিতে আক্রান্ত ছিল। ২০১৮ সালে ১৪ বছর বয়সে হ্যারি আত্মহত্যা করে। সন্তানের মৃত্যুর দুই বছর পর মন্টিলুকাস্টের সম্ভাব্য পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ার বিষয়টি জানতে পেরেছিলেন গ্রাহাম ও অ্যালিসন। তারা এখন সন্তানের মৃত্যুর কারণ জানতে পুনরায় তদন্তের আবেদন করেছেন।

নার্সারি স্কুলের সহকারী শিক্ষক ৩৩ বছর বয়সী জেনি লেভেলিন জানান, তার মেয়ে লটি যখন মাত্র তিন বছর বয়সী তখন তাকে ওষুধটি দেওয়া হয়েছিল। তার আচরণে আকস্মিক পরিবর্তনের সঙ্গে ওষুধটির সম্পর্ক ছিল বলে মনে হয়েছিল।

মেয়ের আচরণে পরিবর্তন বিষয়ে জেনি বলেন, ‘সবকিছুই ছিল বিষণ্ণ। সে কাঁদতে কাঁদতে বিছানায় যেতো এবং কাঁদতে কাঁদতে জেগে উঠতো।’

১৯৯৮ সালে ফার্মাসিউটিক্যাল জায়ান্ট মার্ক হাঁপানি ও অ্যালার্জির যুগান্তকারী এই ওষুধটি বাজারে এনেছিল। এটি শ্বাসনালীকে সংকীর্ণ হওয়া থেকে বিরত রাখে এবং হাঁপানির আক্রমণ প্রতিরোধে সহায়তা করে। আচরণ এবং মেজাজ পরিবর্তনসহ ওষুধের পার্শ্বপ্রতিক্রিয়াগুলো রোগীর তথ্য শিটে তালিকাভুক্ত করা হয়েছে। তবে প্রচারকারীরা বলছেন, সতর্কতাগুলি প্যাকেটে ছাপানো উচিত এবং স্বাস্থ্য পেশাদারদের বিষয়টি প্রকাশ করা উচিত ছিল।

ইংল্যান্ডে ২০২২/২৩ সালে ৪৩ লাখ প্রেসিক্রিপশনে মন্টিলুকাস্ট লেখা হয়েছিল। এই পরিমাণ ওষুধের মূল্য ৬০ লাখ ৬৯ হাজার পাউন্ড।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে ২০২০ সাল থেকে ওষুধটির ব্যাপারে ব্ল্যাক বক্স সতর্কতা রয়েছে। দেশটির খাদ্য ও ওষুধ নিয়ন্ত্রণ সংস্থা এফডিএ প্রাণিদের ওপর পরিচালিত গবেষণার উল্লেখ করে জানিয়েছে, ওষুধটি রক্ত-মস্তিষ্কের বাধা (ব্লাড-ব্রেইন বেরিয়ার-বিবিবি) অতিক্রম করতে পারে। অথচ এই বিবিবি হচ্ছে এমন একটি ঝিল্লি যা ফিল্টার হিসাবে কাজ করে এবং ক্ষতিকারক পদার্থ এবং সংক্রামক জীবাণুকে দূরে রাখে।

গত ২১ ফেব্রুয়ারি নিউ ইয়র্কের অ্যাটর্নি জেনারেল লেটিটিয়া জেমস মন্টিলুকাস্ট গ্রুপের ওষুধের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে এফডিএ এর কাছে চিঠি লিখেন। যুক্তরাষ্ট্রে সিঙ্গুলেয়ার ব্র্যান্ড নামে বিক্রি হওয়া ওষুধের বিরুদ্ধে ‘অবিলম্বে পদক্ষেপ নেওয়ার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, শিশুদের ‘দুঃখজনক প্রতিকূল মানসিক ঘটনার’ সঙ্গে ওষুধটির সম্পর্কের বিষয়ে প্রতিবেদন পাওয়া অব্যাহত রয়েছে।

ঢাকা/শাহেদ

আরো পড়ুন  



সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়