ঢাকা     শুক্রবার   ০৯ ডিসেম্বর ২০২২ ||  অগ্রহায়ণ ২৪ ১৪২৯

৩৪ বছর পলাতক ছিলেন মাজহারুল

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৪:৩৭, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২  
৩৪ বছর পলাতক ছিলেন মাজহারুল

গ্রেপ্তার মাজহারুল আলম

রাজধানীর কাফরুল থেকে ১৩ বছরের সাজাপ্রাপ্ত আসামি মো. মাজহারুল আলমকে (নাজির) গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব-৪। তার বিরুদ্ধে দুর্নীতি দমন আইনের মামলায় সাজা থাকায় ৩৪ বছর পালিয়ে ছিলেন তিনি।

শুক্রবার (৩০ সেপ্টেম্বর) দুপুরে র‌্যাব-৪ থেকে জানানো হয়, বৃহস্পতিবার (২৯ সেপ্টেম্বর) বিকেলে র‌্যাব-৪ এর একটি দল কাফরুল থানা এলাকা থেকে মাজহারুলেক গ্রেপ্তার করে।

মাজহারুল ১৯৮১ সালে নিজের সনদপত্র জালিয়াতি করে হরিরামপুর উপজেলা মুন্সেফি আদালত, মানিকগঞ্জে নাজির হিসেবে চাকরিতে যোগদান করেন। কর্মরত থাকাকালীন আদালতের উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সিল ও স্বাক্ষর জাল করে দুর্নীতিসহ জাল সিল ও স্বাক্ষর দিয়ে বিভিন্ন লোকের কাছ থেকে প্রতারণার মাধ্যমে টাকা গ্রহণ করতেন। এ অপরাধে তার বিরুদ্ধে মামলা করা হয়।

র‌্যাব জানায়, মাজহারুলকে পুলিশ গ্রেপ্তার করে আদালতে সোর্পদ করে। মাজহারুল দীর্ঘ ৪ মাস কারাভোগ করে আদালত থেকে জামিনে বের হয়ে আত্মগোপনে চলে যান। মামলার তদন্ত শেষে তদন্তকারী কর্মকর্তা মাজহারুলের বিরুদ্ধে আদালতে চার্জশিট দেন। পরবর্তীতে চার্জশিটের ভিত্তিতে দায়রা জজ আদালত, মানিকগঞ্জ মামলার বিচারকার্য পরিচালনা করেন এবং পর্যাপ্ত স্বাক্ষ্য প্রমাণ ও উভয়পক্ষের যুক্তিতর্ক শেষে প্রতারণার মাধ্যমে জাল সনদপত্র দিয়ে নিজে চাকরিতে যোগদান ও সরকারি টাকা আত্মাসাতের সাথে সরাসরি সম্পৃক্ত থাকার অপরাধে ১৯৮৮ সালে মাজহারুলকে ১৩ বছরের সাজা  দেন।

মাজহারুল ১৯৫২ সালে মানিকগঞ্জ জেলার মানিকগঞ্জ সদর থানার নালড়া এলাকায় জন্মগ্রহণ করে। স্থানীয় একটি কলেজ থেকে এইচএসসি পাস করেন। ব্যক্তিগত জীবনে বিবাহিত এবং বর্তমানে তার পরিবারের দুই ছেলে সন্তান রয়েছে। ঘটনার পর থেকে গ্রেপ্তার এড়াতে আত্মগোপন করেন। পরিচিত লোকজন থেকে নিজেকে আড়াল করে রাখার জন্য ঘটনার পরপরই ঢাকায় চলে যান এবং প্রথমদিকে সে ঢাকায় মুদি দোকানি ও পরে ওষুধের দোকান দিয়ে জীবিকা নির্বাহ করতেন। পরবর্তীতে সে ঢাকার বিভিন্ন এলাকায় ছোটখাটো ঠিকাদারি করতেন।

/মাকসুদ/সাইফ/

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়