ঢাকা     বৃহস্পতিবার   ০২ ফেব্রুয়ারি ২০২৩ ||  মাঘ ১৯ ১৪২৯

পদ্মা সেতু কেন্দ্রিক দক্ষিণের জেলাগুলোতে শিল্পায়নের মহাপরিকল্পনা গ্রহণ

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৯:১১, ৬ ডিসেম্বর ২০২২   আপডেট: ১৯:১৬, ৬ ডিসেম্বর ২০২২
পদ্মা সেতু কেন্দ্রিক দক্ষিণের জেলাগুলোতে শিল্পায়নের মহাপরিকল্পনা গ্রহণ

বাংলাদেশ ক্ষুদ্র ও কুটির শিল্প করপোরেশন (বিসিক) পদ্মা সেতু কেন্দ্রিক দেশের দক্ষিণাঞ্চলের জেলাসমূহে পরিবেশবান্ধব শিল্পায়নের লক্ষে একটি টেকসই শিল্পায়নের উন্নয়ন মহাপরিকল্পনা প্রণয়নের কার্যক্রম গ্রহণ করেছে।

মঙ্গলবার (৬ ডিসেম্বর) বিসিকের এক কর্মশালায় এই তথ্য জানানো হয়।

অনুষ্ঠানে জানানো হয়, দেশের দক্ষিণাঞ্চলের ২১ জেলার জেলা প্রশাসকদের সংশ্লিষ্ট অঞ্চলভিত্তিক কর্মপরিকল্পনা প্রস্তুত করে বিসিক বরাবর পাঠানো হয়েছে।

এ উপলক্ষে মঙ্গলবার (৬ ডিসেম্বর) তেজগাঁওয়ের বিসিক ভবনে একটি কর্মশালা অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন শিল্প সচিব জাকিয়া সুলতানা। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বিসিক চেয়ারম্যান মুহ. মাহবুবর রহমান। কর্মশালায় শিল্প মন্ত্রণালয়ের প্রতিনিধিরা এবং এর আওতাধীন বিভিন্ন দপ্তর বা সংস্থার প্রতিনিধি, বিসিক আঞ্চলিক কার্যালয়, ঢাকা ও খুলনার আঞ্চলিক পরিচালক, বিসিক প্রধান কার্যালয়ের শাখা প্রধানরা এবং দক্ষিণবঙ্গের ২১টি জেলার বিসিক জেলা কার্যালয়ের প্রধানরা উপস্থিত ছিলেন।

কর্মশালায় বিসিকের মহাব্যবস্থাপক (বিপণন) অখিল রঞ্জন তরফদার ও উপ মহাব্যবস্থাপক (পরিকল্পনা) ড. মো. ফরহাদ আহম্মেদ মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে শিল্প সচিব বলেন, বিসিক জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের হাতে গড়া একটি প্রতিষ্ঠান। পদ্মা সেতু কেন্দ্রিক দেশের দক্ষিণাঞ্চলের জেলাসমূহে পরিবেশবান্ধব শিল্পায়নের লক্ষে বিসিকের এই কর্মশালা অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ। যেসব অঞ্চলে শিল্পের যে সমস্ত কাঁচামাল সহজলভ্য, আমি মনে করি সেসব অঞ্চলে সেই ধরনের শিল্পপ্রতিষ্ঠান গড়ে তুলতে পারলেই কেবল দেশের উন্নতি সম্ভব।

তিনি আরও বলেন, শিল্প উদ্যোক্তাদের সঠিক ঋণ সহায়তার মাধ্যমেও শিল্পপ্রতিষ্ঠান গড়ে তোলার ক্ষেত্রেও বিসিক সহযোগিতা প্রদান করতে পারে। লাইট ইঞ্জিনিয়ারিং সেক্টরের উন্নতিকল্পে বিসিককে আরও গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে হবে। প্রকল্প বাস্তবায়নের ক্ষেত্রে ফিজিবিলিটি স্টাডির বিষয়ে গুরুত্ব প্রদান করা প্রয়োজন। কৃষি জমির ক্ষতিসাধন করে শিল্প কারখানা নির্মাণের ক্ষেত্রেও সতর্ক থাকার পরামর্শ প্রদান করেন। বিসিকের ১৫টি দক্ষতা উন্নয়ন কেন্দ্রের পাশাপাশি সম্ভব হলে প্রতিটি জেলায় একটি করে দক্ষতা উন্নয়ন কেন্দ্র স্থাপনের উদ্যোগ গ্রহণ করা যেতে পারে।

তিনি বলেন, যেকোনও পরিকল্পনা গ্রহণের ক্ষেত্রে পরিকল্পনাটি দেশের জিডিপিতে কী পরিমাণ অবদান রাখতে পারবে; এ বিষয়টি মাথায় রাখতে হবে। যদি আমরা দেশ প্রেম এবং যার যার অবস্থান থেকে কাজ করি তাহলে প্রধানমন্ত্রী ঘোষিত ভিশন-২০৪১ সফল করা সম্ভব হবে।

সভাপতির বক্তব্যে বিসিক চেয়ারম্যান পদ্মা সেতু কেন্দ্রিক দেশের দক্ষিণাঞ্চলের জেলাসমূহে পরিবেশবান্ধব শিল্পায়নের লক্ষে যে মহাপরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছে তার একটি খসড়া প্রস্তাব কর্মশালা শেষে শিল্প সচিব নিকট উপস্থাপন করেন এবং সহযোগিতা কামনা করেন।

ঢাকা/হাসান/এনএইচ

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়