ঢাকা     মঙ্গলবার   ১৬ এপ্রিল ২০২৪ ||  বৈশাখ ৩ ১৪৩১

ঢাকায় কোরআনবিষয়ক কর্মশালা ও প্রদর্শনী উদ্বোধন

কূটনৈতিক প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ২২:৪৭, ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৪  
ঢাকায় কোরআনবিষয়ক কর্মশালা ও প্রদর্শনী উদ্বোধন

বাংলাদেশ জাতীয় জাদুঘরের কবি সুফিয়া কামাল মিলনায়তনে ‘কোরআনের দিনগুলো’ শীর্ষক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। আলোচনার পর চার দিনব্যাপী কোরআনবিষয়ক কর্মশালা ও প্রদর্শনী উদ্বোধন করা হয়েছে। 

শনিবার (২৪ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে ঢাকাস্থ ইরান সাংস্কৃতিক কেন্দ্রের উদ্যোগে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ ইসলামিক ফাউন্ডেশনের মহাপরিচালক ড. বশিরুল আলম।  

অনুষ্ঠানে সম্মানিত অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশে ইরানি দূতাবাসের ইকনোমিক অ্যাফেয়ার্স বিভাগের কাউন্সেলর মাহমুদ খোসরাভী এবং বাংলাদেশের আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন ক্বারী শায়খ আহমাদ বিন ইউসুফ আল আযহারী। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন ঢাকাস্থ ইরান সাংস্কৃতিক কেন্দ্রের কালচারাল কাউন্সেলর সাইয়্যেদ রেজা মীর মোহাম্মদী।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে বাংলাদেশ ইসলামিক ফাউন্ডেশনের মহাপরিচালক ড. বশিরুল আলম বলেন, ইরান প্রাচীন সভ্যতার দেশ। ইতিহাস, ঐতিহ্য ও সংস্কৃতিতে দেশটি অত্যন্ত সমৃদ্ধ। সারা বিশ্বে ইসলামের প্রচার-প্রসারে দেশটির গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা আছে। সম্প্রতি ইরানে অনুষ্ঠিত আন্তর্জাতিক কোরআন প্রতিযোগিতায় দুজন বাংলাদেশি প্রথম ও তৃতীয় স্থান অধিকার করেছে৷ তাদের জন্য আমরা গর্ব বোধ করি৷ 

তিনি বলেন, ইরানের সাথে বাংলাদেশের সম্পর্ক অত্যন্ত চমৎকার। আমরা আশা করি, ভ্রাতৃপ্রতিম দেশ হিসেবে আগামীতে ইরানের সাথে বাংলাদেশের ধর্মীয় ও অর্থনৈতিক সম্পর্ক আরো জোরদার হবে।

অনুষ্ঠানে ঢাকাস্থ ইরান সাংস্কৃতিক কেন্দ্রের কালচারাল কাউন্সেলর সাইয়্যেদ রেজা মীর মোহাম্মদী বলেন, পবিত্র কোরআন এসেছে মানুষকে হেদায়েতের জন্য। আল্লাহর বান্দা হিসাবে আমাদের দায়িত্ব হল দুনিয়ায় পবিত্র কোরআন চর্চা করা। আমরা মুসলমান হিসেবে এবং আল্লাহর বান্দা হিসেবে আমাদের প্রত্যেকের ওপর দায়িত্ব হচ্ছে কোরআনের সাথে পরিচিত হওয়া। পবিত্র কোরআনেই বলা হয়েছে, যে এই আসমানি কিতাব হলো মানুষের জন্য পথনির্দেশিকা। এটি মানুষকে উত্তম পথের দিকে ধাবিত করে। যা কিছু সুন্দর-উত্তম সেদিকেই মানুষকে পথ দেখায়। এক কথায় বলতে গেলে কোরআন এসেছে মানুষকে সঠিক পথে পরিচালিত করার জন্য। তাই, উত্তম জীবনযাপনের জন্য আমাদের পবিত্র কোরআনকে অনুসরণ করতে হবে।

অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন—ইরানি দূতাবাসের ইকনোমিক অ্যাফেয়ার্স বিভাগের কাউন্সেলর মাহমুদ খোসরাভী এবং বাংলাদেশের আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন ক্বারী শায়খ আহমাদ বিন ইউসুফ আল আযহারী।

আলোচনা সভা শেষে চার দিনব্যাপী কোরআনবিষয়ক কর্মশালা ও প্রদর্শনীর উদ্বোধন করেন বাংলাদেশ ইসলামিক ফাউন্ডেশনের মহাপরিচালক ড. বশিরুল আলম। এই কর্মশালা ও প্রদর্শনী চলবে ২৮ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত। পবিত্র শবে বরাত উপলক্ষে ২৬ ফেব্রুয়ারি ওয়ার্কশপ ও প্রদর্শনী বন্ধ থাকবে। ইরানের বিখ্যাত ক্বারী ও কোরআনের শিল্পীরা এ প্রদর্শনী ও কর্মশালা পরিচালনা করবেন।

হাসান/রফিক

আরো পড়ুন  



সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়