ঢাকা     বৃহস্পতিবার   ২৫ এপ্রিল ২০২৪ ||  বৈশাখ ১২ ১৪৩১

‘দক্ষিণ সিটিতে ২২১টি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে নতুন ভবন নির্মাণ হবে’

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ২২:১৮, ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৪  
‘দক্ষিণ সিটিতে ২২১টি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে নতুন ভবন নির্মাণ হবে’

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অঙ্গীকার রক্ষায় দেশে স্মার্ট প্রাথমিক শিক্ষা ব্যবস্থা বিনির্মাণের কাজ চলছে। এরই ধারাবাহিকতায় ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন এলাকায় ২২১টি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে নতুন ভবন নির্মাণ করা হবে বলে জানিয়েছেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) মেয়র ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস।

বুধবার (২৮ ফেব্রুয়ারি) ধানমন্ডি ১ নম্বর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৬ তলা নতুন ভবন নির্মাণের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন অনুষ্ঠানে দেওয়া বক্তব্যে ডিএসসিসি মেয়র এ তথ্য জানান।

শেখ তাপস বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কথা দিয়েছেন, বাংলাদেশের প্রাথমিক শিক্ষাকে তিনি স্মার্ট পর্যায়ে নিয়ে যাবেন। দেশে স্মার্ট বিদ্যালয়, স্মার্ট শিক্ষার্থী এবং স্মার্ট নাগরিক তৈরি হবে। তারই ধারাবাহিকতায় ডিএসসিসি কলাবাগান, মতিঝিলের দিলকুশা, নবাব কাটরা ও শ্যামপুরে চারটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে নতুন ভবন নির্মাণের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপনের মাধ্যমে কাজ শুরু করেছে।

তিনি আরও বলেন, আগামী ২-৩ বছরের মধ্যে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন এলাকার প্রত্যেকটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে নতুন ভবন তৈরি হবে। অগ্রাধিকার ভিত্তিতে ২২১টি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ৪-৫ তলা বিশিষ্ট নতুন ভবন নির্মাণ করবে ডিএসসিসি।
 
এ সময় ঢাকা-১০ আসনের সংসদ সদস্য ফেরদৌস আহমেদ বলেন, প্রাথমিক বিদ্যালয়গুলোতে এই পদক্ষেপ গ্রহণের মাধ্যমে স্মার্ট শিক্ষার্থী গড়ে তোলা হবে। শিক্ষা, সংস্কৃতি, শিল্প সবকিছুকে একত্রিত করে সামনের দিকে এগিয়ে যাবে বাংলাদেশ। পাশাপাশি ঢাকা ১০ আসনের সব বিদ্যালয় নতুন ভবন পেলে এই আসন হয়ে উঠবে ১০ এ ১০।
 
অনুষ্ঠানে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সচিব ফরিদ আহাম্মদ বলেন, এরইমধ্যে ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশনে প্রায় ৩০টির মতো বিদ্যালয়ে নতুন ভবনের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করা হয়েছে। আদর্শ বিদ্যালয়ের সব সুযোগ-সুবিধার পাশাপাশি দৃষ্টিনন্দন পরিবেশে শিক্ষা কার্যক্রম পরিচালনার উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে। প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতরের নতুন এসব ভবন নির্মাণে স্থানীয় সরকার প্রকৌশল বিভাগ সহায়তা করছে। জুন মাসের মধ্যে ১০টি বিদ্যালয়ের নির্মানাধীন কাজ সম্পন্ন হবে বলেও জানান তিনি।
 
এছাড়া এসডিজি বাস্তবায়নে ২০৩০ সালের মধ্যে শিক্ষক এবং শিক্ষার্থীর অনুপাত ১ : ৩০ করার যে লক্ষ্যমাত্রা রয়েছে তা ২০২৪ সালের মধ্যে অর্জন করার আশাবাদ প্রকাশ করেন প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সচিব। পাশাপাশি জুন মাসের মধ্যে আরও ১০ হাজার শিক্ষক নিয়োগের কথাও উল্লেখ করেন তিনি।
 
এ সময় অন্যদের মধ্যে ঢাকা-৮ আসনের সংসদ সদস্য ও বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দীন নাসিম, ঢাকা-৭ আসনের সংসদ সদস্য মোহাম্মদ সোলায়মান সেলিম, করপোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মো. মিজানুর রহমান, সচিব আকরামুজ্জামান প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।
 

আসাদ/এনএইচ

আরো পড়ুন  



সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়