ঢাকা     শুক্রবার   ১২ এপ্রিল ২০২৪ ||  চৈত্র ৩০ ১৪৩০

ইভ্যালির রাসেল-শামীমার বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা

নিজস্ব প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১২:১৯, ৪ মার্চ ২০২৪   আপডেট: ১২:৩৪, ৪ মার্চ ২০২৪
ইভ্যালির রাসেল-শামীমার বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা

ইভ্যালির ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) মোহাম্মদ রাসেল ও চেয়ারম্যান শামীমা নাসরিনের বিরুদ্ধে প্রতারণার পৃথক তিন মামলায় গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেছেন আদালত।

সোমবার (৪ মার্চ) ঢাকার মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট বেগম ফারাহ দিবা ছন্দার আদালত এ পরোয়ানা জারি করেন।

বাদীপক্ষের আইনজীবী সাকিবুল ইসলাম সাংবাদিকদের বিষয়টি জানান।

সাকিবুল ইসলাম বলেন, পৃথক তিন মামলায় ইভ্যালির ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) মোহাম্মদ রাসেল ও চেয়ারম্যান শামীমা নাসরিনের আদালতে হাজির হওয়ার দিন ধার্য ছিলো। কিন্তু এদিন তারা আদালতে হাজির হননি। এজন্য আমরা আদালতে তাদের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারির আবেদন করি। আদালত আবেদন মঞ্জুর করেন।

এক মামলার অভিযোগে বলা হয়, ২০২১ সালের ৩০ জানুয়ারি আসামিদের প্রতিষ্ঠান থেকে মামলার বাদী তানভীর আহমেদ একটি মোটরসাইকেল কেনার জন্য ২ লাখ ৯৬ হাজার ৩৪৮ টাকা পরিশোধ করেন। পরবর্তীতে মোটরসাইকেল না দিয়ে আসামিরা বাদীকে সমপরিমাণ টাকার চেক দেন। সেই চেকের টাকা না পেয়ে গত ৪ ফেব্রুয়ারি আদালতে বাদী মামলাটি করেন।

আরেক মামলার অভিযোগে বলা হয়, ২০২১ সালের ২৬ মার্চ আসামিদের প্রতিষ্ঠান থেকে মামলার বাদী মো. মাইন উদ্দীন একটি মোটরসাইকেল কেনার জন্য ২ লাখ ৯৯ হাজার ৭৪০ টাকা পরিশোধ করেন। পরবর্তীতে মোটরসাইকেল না দিয়ে আসামিরা সমপরিমাণ টাকার চেক দেন। সেই চেকের টাকা না পেয়ে গত ৪ ফেব্রুয়ারি আদালতে মামলাটি করেন।

অন্য মামলার অভিযোগে বলা হয়, ২০২১ সালের ২০ মার্চ আসামিদের প্রতিষ্ঠান থেকে মামলার বাদী তৌফিক মাহমুদ তিনটা মোটরসাইকেল কেনার জন্য ৮ লাখ ৩৫ হাজার টাকা পরিশোধ করেন।পরবর্তীতে মোটরসাইকেল না দিয়ে আসামিরা সমপরিমাণ টাকার চেক দেন। চেকের টাকা না পেয়ে গত ৪ ফেব্রুয়ারি মামলার বাদী আদালতে মামলাটি করেন।

জানা গেছে, এ তিন মামলায় তাদের আদালতে হাজির হতে সমন জারি করা হয়েছিল। কিন্তু তারা হাজির হননি। এজন্য আদালত তাদের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেন।

/মামুন/সাইফ/

সম্পর্কিত বিষয়:

আরো পড়ুন  



সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়