ঢাকা     মঙ্গলবার   ২১ মে ২০২৪ ||  জ্যৈষ্ঠ ৭ ১৪৩১

জিম্বাবুয়ে সিরিজ কোনো পরীক্ষা-নিরীক্ষা চান না মাহমুদ

ক্রীড়া প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৭:৩৩, ১৪ এপ্রিল ২০২৪   আপডেট: ১৭:৪৬, ১৪ এপ্রিল ২০২৪
জিম্বাবুয়ে সিরিজ কোনো পরীক্ষা-নিরীক্ষা চান না মাহমুদ

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের আগে বাংলাদেশ দুটি দ্বিপক্ষীয় সিরিজ খেলবে। যুক্তরাষ্ট্রের মাটিতে স্বাগতিকদের বিপক্ষে খেলার আগে ঘরের মাঠে জিম্বাবুয়েকে আতিথেয়তা দেবে পাঁচ টি-টোয়েন্টিতে। 

জিম্বাবুয়ে ২৮ এপ্রিল বাংলাদেশে এসে পৌঁছবে। দুই দলের প্রথম ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে ৩ মে। এরপর ৫, ৭, ১০ ও ১২ মে চারটি ম্যাচ খেলবে দুই দল। 

আইসিসির বেধে দেওয়া সূচি অনুযায়ী, পহেলা মে’র মধ্যে বিশ্বকাপের ১৫ জনের স্কোয়াড ঘোষণা করতে হবে। এরপর ২৫ মে’র মধ্যে স্কোয়াডে পরিবর্তন করা যাবে কোন কারণে ছাড়াই। ফলে জিম্বাবুয়ে সিরিজ শুরুর আগে বিশ্বকাপের স্কোয়াড ঘোষণা করতে হবে বিসিবিকে। নির্বাচকদের চাপটা তাই একটু বেশি। 

বিশ্বকাপের সময় বেশি বাকি নেই, জিম্বাবুয়ে সিরিজে তাই কোনো পরীক্ষা-নিরীক্ষা চান না খালেদ মাহমুদ। নিয়মিত যারা খেলছে, কোচ, টিম ম্যানেজমেন্ট ও অধিনায়কের পরিকল্পনায় যারা আছেন তাদেরকেই নিয়মিত সুযোগ দিয়ে পারফরম্যান্সের ধারাবাহিকতা রাখতে চান মাহমুদ। 

ঈদের ছুটি কাটিয়ে ক্রিকেটাররা আজ মাঠে ফিরেছেন। সোমবার ঢাকা প্রিমিয়ার লিগের দশম রাউন্ডের খেলা শুরু হবে। মিরপুরে আজ অনুশীলন করেছে আবাহনী লিমিটেড, মোহামেডান স্পোর্টস ক্লাব ও প্রাইম ব্যাংক ক্রিকেট ক্লাব। 

অনুশীলন শেষে গণমাধ্যমে কথা বলতে গিয়ে বিশ্বকাপ স্কোয়াডের প্রসঙ্গ আসে। খালেদ মাহমুদ খোলাখুলি কথাও বলেছেন, ‘যাদের ওপর আমার বিশ্বাস থাকবে, যারা বিশ্বকাপে খেলবে, যাদেরকে কোচ, অধিনায়ক ও ম্যানেজমেন্ট বিশ্বাস করবে তাদেরকেই আসলে জিম্বাবুয়ে সিরিজে খেলানো উচিৎ। কারণ হাতে বেশি সময় নেই।’ 

‘এ রকম না যে, দুইটা ইনিংস এ খেলল, দুইটা ইনিংস ও খেলল। দুজনই ফেল করলো। তারপর পাঁচ নম্বর ইনিংসে আপনি কাকে খেলাবেন? আপনি আত্মবিশ্বাস নষ্ট করছেন দুজন ছেলের। এগুলো না করে একটা ছেলেকেই চারটা ম্যাচ খেলান। ও যদি দুই ম্যাচে ফেলও করে, ওর সুযোগ থাকবে তৃতীয় ও চতুর্থ ম্যাচে রান করে আত্মবিশ্বাস বাড়িয়ে নেওয়ার।’ – যোগ করেন তিনি। 

সবশেষ ওয়ানডে বিশ্বকাপে বাংলাদেশের চমক ছিল ওপেনার তানজিদ হাসান তামিম। এবারের বিশ্বকাপে বাঁহাতি ব্যাটসম্যান খেলবেন কিনা তা সময় বলে দেবে। তবে তার ওপর যথেষ্ট আস্থা রয়েছে খালেদ মাহমুদের, 

‘আমি তামিমের (তানজিদ) বিগ ফ্যান। দুই-তিন বছর আগে যখন বেক্সিমকো ঢাকা দলের প্রথম ডাকে ওকে নিয়েছিলাম সবাই অবাক হয়েছিল, ওর মতো একজন তরুণকেই কেন প্রথমে নিলাম। আমি জানি ওর মধ্যে সামর্থ্য আছে, কোয়ালিটি আছে। আমি মনে করি তামিম এখনও তার ৫০ ভাগ দিয়ে খেলতে পারেনি। আমার যতটুকু প্রত্যাশা তামিমের কাছে যতটুকু থাকে সব সময় সেটা পূরণ করতে পারেনি। তবে ও যেদিন খেলবে একাই ম্যাচ জিতিয়ে আনতে পারবে। এই সামর্থ্য ওর আছে। আমি এখনও বিশ্বাস করি যে, তামিম আমাদের পাইপলাইনের সবচেয়ে স্ট্রং খেলোয়াড়।’
 

ঢাকা/ইয়াসিন 

সম্পর্কিত বিষয়:

আরো পড়ুন  



সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়