ঢাকা     শনিবার   ২২ জুন ২০২৪ ||  আষাঢ় ৮ ১৪৩১

রেকর্ড গড়া জয়ে হোয়াইটওয়াশ এড়াল বাংলাদেশ

ক্রীড়া প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ২০:৩৮, ২৫ মে ২০২৪   আপডেট: ০০:১৩, ২৬ মে ২০২৪
রেকর্ড গড়া জয়ে হোয়াইটওয়াশ এড়াল বাংলাদেশ

স্কোর: বাংলাদেশ ১০৮/০ (১১.৪ ওভার) , যুক্তরাষ্ট্র ১০৪/৯ (২০ ওভার)

টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে বাংলাদেশের ৯ উইকেটে জয় ছিল দুইটি। জিম্বাবুয়ে ও আফগানিস্তানের বিপক্ষে একটি করে। 

শনিবার যুক্তরাষ্ট্রকে ১০ উইকেটে হারিয়ে প্রথমবার সবকটি উইকেট হাতে রেখে জয়ের আনন্দ পেল বাংলাদেশ। সঙ্গে হোয়াইটওয়াশও এড়াল। তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজের প্রথম দুই ম্যাচ হেরে বাংলাদেশ ২-০ ব্যবধানে পিছিয়ে ছিল। বাংলাদেশের জন্য আজকের লড়াইটা ছিল আত্মসম্মান বাঁচানোর।

সেই লড়াইয়ে যুক্তরাষ্ট্রকে নিজেদের সামর্থ্য ভালোভাবেই দেখাল বাংলাদেশ। মোস্তাফিজুর রহমানের ৬ উইকেটে যুক্তরাষ্ট্রকে ১০৪ রানে আটকে রাখে বাংলাদেশ। জবাবে তানজিদ হাসানের ঝড়ো ফিফটিতে জয় চলে আসে সহজে। অপরপ্রান্তে সৌম্য সরকার অবদান রাখায় বাংলাদেশ পেয়ে যায় ১০ উইকেটের রেকর্ডগড়া জয়। ৪২ বলে ৫৮ রান করেন তানজিদ। ৫ চারের সঙ্গে ৩টি ছক্কা মারেন তিনি। সৌম্য ২৮ বলে ৪৩ রান করেন ৪ চার ও ২ ছক্কায়। 

লক্ষ্যের পথে ছুটছে বাংলাদেশ

দুই ওপেনার তানজিদ হাসান ও সৌম্য সরকারের জমাট ব্যাটিংয়ে লক্ষ্যের পথে ছুটছে বাংলাদেশ। ১০৫ রানের সহজ লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে অনায়েসে ব্যাটিং করছেন দুই বাঁহাতি ব্যাটসম্যান। নিয়মিত বাউন্ডারি আদায় করে নিচ্ছেন। পাওয়ার প্লে’র ৬ ওভারে বাংলাদেশের রান ছিল ৪৮। অনেক দিন ধরেই ছন্দে ছিল না টপ অর্ডারের ব্যাটিং। আজ তাদের ব্যাট হাসায় কিছুটা স্বস্তি ফিরেছে শিবিরে। 

লক্ষ্য তাড়ায় ভালো শুরু বাংলাদেশের

সহজ লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে উড়ন্ত সূচনা পেয়েছে বাংলাদেশ। দুই বাঁহাতি তানজিদ হাসান ও সৌম্য সরকার দারুণ কয়েকটি শট খেলেছেন। বাউন্ডারিও আদায় করে নিয়েছেন সহজে। তাদের ব্যাটে আত্মবিশ্বাসের ঝলকানি দেখা যাচ্ছে। দেখা যাক কতদূর যেতে পারে তাদের ব্যাট। 

যেখানে সবার চেয়ে এগিয়ে মোস্তাফিজ

৪-১-১০-৬। মোস্তাফিজের এটি ক্যারিয়ারের সেরা বোলিং। ৬ উইকেটও প্রথমবারের মতো পেলেন তিনি। ২০১৬ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে ইডেনে নিউ জিল্যান্ডের বিপক্ষে ২২ রানে ৫ উইকেট পেয়েছিলেন। ৮ বছর পর ছাড়িয়ে গেলেন নিজের পুরোনো রেকর্ড। 

বাংলাদেশের বোলারদের মধ্যে মোস্তাফিজ প্রথমবার পেলেন ৬ উইকেট। এর আগে ইলিয়াস সানী (একবার), সাকিব আল হাসান (দুইবার), মোসাদ্দেক হোসেন (একবার) ও মোস্তাফিজ ফাইফারের স্বাদ পেয়েছিলেন। সবাইকে ছাড়িয়ে মোস্তাফিজ উঠে গেলেন শীর্ষে। বাংলাদেশের সেরা টি-টোয়েন্টি বোলিংয়ের রেকর্ড এখন তার দখলে। 

মোস্তাফিজের ৬ উইকেটে যুক্তরাষ্ট্রকে ১০৪ রানে আটকে রাখল বাংলাদেশ

বল হাতে ৬ উইকেট নিয়ে মোস্তাফিজুর রহমান দারুণভাবে ফিরে আসলেন। প্রথম ৩ ওভারে ৪ উইকেট নিয়েছিলেন মোস্তাফিজ। ইনিংস এবং নিজের শেষ ওভার করতে এসে জেসি সিংকে ইয়র্কারে বোল্ড করেন বাঁহাতি পেসার। তুলে নেন ফাইফার। এরপর ওভারের শেষ বলে তার শিকার নসতুশ কেনজিগে। মাত্র ১০ রানে ৬ উইকেট নিয়ে বাংলাদেশের সেরা বোলার মোস্তাফিজ। তার দুর্দান্ত বোলিংয়ে যুক্তরাষ্ট্রকে ১০৪ রানে আটকে রেখেছে বাংলাদেশ। হোয়াইটওয়াশ এড়াতে বাংলাদেশকে করতে হবে ১০৫ রান।  

দুর্দান্ত মোস্তাফিজের চতুর্থ উইকেট

বল হাতে দারুণ করছেন মোস্তাফিজুর রহমান। কিপটে বোলিংয়ের পাশাপাশি নিয়মিত উইকেটও তুলে নিচ্ছেন। বাঁহাতি পেসার প্রথম ২ ওভারে ১ মেডেনে ২ রানে ২ উইকেট পেয়েছিলেন।

তৃতীয় ওভারে তার সাফল্যের ঝুলিতে যোগ হলো জোড়া উইকেট। রাউন্ড দ্য উইকেট থেকে বল ভেতরে ঢুকিয়ে  মোস্তাফিজ বোল্ড করেছেন দুই বাঁহাতি ব্যাটসম্যান শ্যাডলি ক্লদ ভ্যান শাল্কউইক ও কোরি অ্যান্ডারসনকে। ৩ ওভার শেষে মোস্তাফিজের বোলিং ফিগারটা এরকম, ৩-১-৬-৪।

রিশাদের প্রথম উইকেট, চাপে যুক্তরাষ্ট্র

ভালো বোলিং করে প্রথম দুই ওভারে কোনো উইকেট পাননি রিশাদ। তৃতীয় ওভারে লেগ স্পিনার উইকেটের খাতা খুলেছেন। তার শর্ট বল উড়াতে গিয়ে মিড উইকেটে ক্যাচ দেন মিলিন্দ কুমার। সীমানায় সহজ ক্যাচ দেন তানজিদ হাসান। রিশাদের প্রথম উইকেটে যুক্তরাষ্ট্র হারাল পঞ্চম ব্যাটসম্যান। ১৩ ওভার শেষে ৫ উইকেটে তাদের সংগ্রহ কেবল ৬২ রান। 

বোলিংয়ে ফিরে তানজিমের উইকেট মেডেন

নিজের দ্বিতীয় ওভারে ১৭ রান দিয়েছিলেন তানজিম হাসান। তবে তৃতীয় ওভারে ফিরে দেখালেন কারিশমা। উইকেট মেডেন নিয়ে দারুণ প্রত্যাবর্তন করেছেন ডানহাতি পেসার। ওভারের তৃতীয় বলে তানজিম আউট করেন অ্যারন জোন্সকে। পরের তিন বলে নতুন ব্যাটসম্যান কোরি অ্যান্ডারসন নিতে পারেননি কোনো রান। এটা ইনিংসের দ্বিতীয মেডেন ওভার। এর আগে লেগ স্পিনার রিশাদ হোসেন নবম ওভারে কোনো রান দেননি।  

মোস্তাফিজের আরেকটি উইকেট

দ্বিতীয় উইকেট পেলেন মোস্তাফিজুর রহমান। বাংলাদেশ পেল তৃতীয় উইকেট। জায়গায় দাঁড়িয়ে মোস্তাফিজের লেন্থ বল ড্রাইভ করতে গিয়ে উইকেটের পেছনে ক্যাচ দেন নিতিশ কুমার। ৯ বলে মাত্র ৩ রান করে লিটনের গ্লাভসবন্দী হন তিনি। ১০ ওভার শেষে যুক্তরাষ্ট্রের সংগ্রহ ৩ উইকেটে ৫৬। টস জিতে বোলিংয়ের সিদ্ধান্ত নিয়ে বাংলাদেশ এখন পর্যন্ত ম্যাচ নিজেদের নিয়ন্ত্রণে রেখেছে। 

রিশাদের মেডেন ওভার

নবম ওভারে নিজের দ্বিতীয় ওভার বোলিং করতে এসে কোনো রান দেননি রিশাদ হোসেন। প্রথম ওভারেও তার বোলিং ছিল নিয়ন্ত্রিত। রান দিয়েছিলেন কেবল ২। দ্বিতীয় ওভারে তার বল খেলেন মিলিন্দ কুমার। ডানহাতি ব্যাটসম্যান লেগ স্পিনারের বোলিংয়ে রান নেওয়ার কোনো সুযোগ পাননি। 

প্রতিরোধ ভেঙে সাকিবের ‘৭০০’ উইকেট

নিজের দ্বিতীয় ওভার করতে এসেও সাকিব হজম করেন বিশাল এক ছক্কা। তবে ওই ওভারের শেষ বলে যুক্তরাষ্ট্রের উদ্বোধনী জুটি ভাঙেন বাঁহাতি স্পিনার। তার হাওয়ায় ভাসানো বলে বড় শট খেলতে গিয়ে লং অনে ক্যাচ দেন গিউস। সৌম্য ক্যাচ নিয়ে সাকিবকে দেন উইকেটের স্বাদ।

এই উইকেট নিয়ে সাকিব আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ৭০০ উইকেটের মাইলফলক ছুঁলেন। প্রথম দুই ম্যাচে সাকিব কোনো উইকেট পাননি। টেস্টে সাকিবের উইকেট ২৩৭টি। সাদা বলের ক্রিকেটে ওয়ানডেতে তার উইকেট ৩১৭টি। টি-টোয়েন্টিতে ১৪৬টি। 

পাওয়ার প্লে’র শেষ ওভারে বোলিংয়ে আসেন মোস্তাফিজুর রহমান। বাঁহাতি পেসারকে উইকেটের জন্য বেশিক্ষণ অপেক্ষা করতে হয়নি। ওভারের পঞ্চম বলে মিড উইকেটে ক্যাচ দেন ওপেনার জাহাঙ্গির। ২০ বলে ১৮ রান করে ড্রেসিংরুমে ফেরেন একাদশে আসা এই ব্যাটসম্যান।  

যুক্তরাষ্ট্রের ভালো শুরু

টস হেরে ব্যাটিং করতে নেমে ভালো শুরু করেছে যুক্তরাষ্ট্র। কোনো উইকেট না হারিয়ে ৪ ওভারে ৩৫ রান তুলেছে তারা। প্রথম দুই ওভার দুই পেসার তানজিম হাসান ও হাসান মাহমুদ করলেও, তৃতীয় ওভারে শান্ত বোলিংয়ে আনেন সাকিব আল হাসান।

প্রথম বলে ছক্কা হজম করেন বাঁহাতি স্পিনার। পরে আরো ২ রান দেন। পেসার তানজিম নিজের প্রথম ওভারে ২ রান খরচ করলেও চতুর্থ ওভারে ১৭ রান বিলিয়ে আসেন। চারটি বাউন্ডারি হজম করেন। চারটি চারই হাঁকান অ্যান্ড্রিস গিউস।

হোয়াইটওয়াশ এড়ানোর মিশনে বোলিংয়ে বাংলাদেশ, একাদশে ফিরলেন লিটন

যুক্তরাষ্ট্রের বিপক্ষে তৃতীয় টি-টোয়েন্টিতে টস জিতে আগে বোলিংয়ের সিদ্ধান্ত নিয়েছে বাংলাদেশ। দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টিতেও টস জিতে আগে বোলিং করেছিল বাংলাদেশ। শনিবার টেক্সাসের প্রেইরি ভিউ ক্রিকেট কমপ্লেক্সে বাংলাদেশ সময় রাত ৯টায় ম্যাচটি শুরু হয়েছে।

শেষ টি-টোয়েন্টিতে একাদশে ফিরেছেন লিটন দাশ। উইকেট রক্ষক জাকের আলীর জায়গায় লিটনকে ফেরানো হয়েছে। এছাড়া আরো একটি পরিবর্তন আছে একাদশে। শরিফুল ইসলামের পরিবর্তে সুযোগ পেয়েছেন হাসান মাহমুদ।  

বাংলাদেশ একাদশ: নাজমুল হোসেন শান্ত, লিটন দাশ, সৌম্য সরকার, তানজিদ হাসান, সাকিব আল হাসান, তাওহীদ হৃদয়, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, রিশাদ হোসেন, মোস্তাফিজুর রহমান, তানজিম হাসান সাকিব ও হাসান মাহমুদ। 

যুক্তরাষ্ট্র একাদশে চারটি পরিবর্তন আনা হয়েছে। অধিনায়ক মোনাক পাটেল আজ খেলছেন না। তার জায়গায় নেতৃত্ব দিচ্ছেন অ্যারন জোন্স। 

যুক্তরাষ্ট্র একাদশ: অ্যারন জোন্স (অধিনায়ক), অ্যান্ড্রিস গিউস, কোরি অ্যান্ডারসন, জাসদ্বীপ সিং, নিতিশ কুমার, মিলিন্দ কুমার, নিসার্গ পাটেল, নসতুশ কেনজিগে, সৌরভ নেটরাভালকার, শেডলে নেত্রভালকার ও শায়ান জাহাঙ্গির। 

০-২ ব্যবধানে পিছিয়ে থেকে তৃতীয় টি-টোয়েন্টিতে মাঠে নামছে বাংলাদেশ। আইসিসির পূর্ণ সদস্য দল বাংলাদেশের জন্য আজকের লড়াইটা হোয়াইটওয়াশ এড়ানোর। তিন ম্যাচ সিরিজের প্রথম দুই ম্যাচ জিতে পুঁচকে যুক্তরাষ্ট্র এরই মধ্যে জিতে নিয়েছে সিরিজ। আইসিসির পূর্ণ সদস্য দলের বিপক্ষে তাদের এই অর্জন ইতিহাসের অক্ষয় কালিতে লিখা হয়ে গেছে। আজ তৃতীয় ম্যাচ জিতলে তাদের আনন্দ আরো বেড়ে যাবে।

চলতি সিরিজ দিয়েই যুক্তরাষ্ট্রের বিপক্ষে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে প্রথমবার মুখোমুখি হয়েছে বাংলাদেশ। যার আড়ালে মূল লক্ষ্যই ছিল টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের আগে সেখানকার কন্ডিশনের সঙ্গে খাপ খাইয়ে নেওয়া। কিন্তু দুই ম্যাচে বিবর্ণ পারফরম্যান্সে সিরিজ হাতছাড়া তো হয়েছেই সঙ্গে আত্মবিশ্বাসে লেগেছে বড় ধাক্কা। আজ শেষ ম্যাচে জিততে পারলে কেবল হোয়াইটওয়াশ এড়ানোই হবে না, বিশ্বকাপের আগে হারানো আত্মবিশ্বাস কিছুটা হলেও ফিরিয়া আনা সম্ভব হবে।

ঢাকা/ইয়াসিন

আরো পড়ুন  



সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়