ঢাকা     বুধবার   ৩০ নভেম্বর ২০২২ ||  অগ্রহায়ণ ১৬ ১৪২৯ ||  ০৫ জমাদিউল আউয়াল ১৪১৪

মৌলিক সাক্ষরতা প্রকল্পের শিক্ষকদের টাকা আত্মসাতের অভিযোগ

পিরোজপুর সংবাদদাতা || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১০:৫৮, ১৩ সেপ্টেম্বর ২০২২   আপডেট: ১১:২০, ১৩ সেপ্টেম্বর ২০২২
মৌলিক সাক্ষরতা প্রকল্পের শিক্ষকদের টাকা আত্মসাতের অভিযোগ

পিরোজপুরের নাজিরপুরে মৌলিক সাক্ষরতা প্রকল্পের শিক্ষকদের টাকা আত্মসাতের অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় ভুক্তভোগী শিক্ষকরা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে একটি লিখিত অভিযোগ জমা দিয়েছেন। 

লিখিত অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, ‘উপানুষ্ঠানিক শিক্ষা ব্যুরো’ এর আওতায় ‘মৌলিক সাক্ষরতা প্রকল্প’ এর উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নে গত বছরের ডিসেম্বর মাস থেকে বয়স্কদের শিক্ষা দান কার্যক্রম চলছে। ওই কার্যক্রমের আওতায় উপজেলার মালিখালী ইউনিয়নের ৪০টি কেন্দ্রে ৮০ জন শিক্ষক পাঠ দানের কাজ করছেন। কিন্তু ওই ইউনিয়নের দায়িত্বে থাকা সুপারভাইজার প্রনব রায় ও অজয় হালদার গত ৬ মাসে সব শিক্ষকদের বেতনের টাকা আত্মসাৎ করেছেন। 

ইউনিয়নের সাচীয়া গ্রামের লিটন হাজরার বাড়িতে স্থাপিত স্কুলের শিক্ষক দীলিপ হালদার বলেন,  ‘ইউনিয়নে সুপারভাইজারের দায়িত্বে থাকা  প্রনব রায় ও অজয়  হালদার আমাদের প্রত্যেক শিক্ষকের পারিশ্রমিক হিসাবে দেওয়া ১৪ হাজার টাকার একটি বেতন সিটে স্বাক্ষর নিয়ে ২ হাজার টাকা প্রদান করেন।’ একই অভিযোগ করেন মধ্যলড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রের শিক্ষিকা সুপ্তি হালদারও। 

এ বিষয়ে জানতে অভিযুক্ত সুপারভাইজার প্রনব রায়ের মুঠোফোনে একাধিকবার চেষ্টা করা হলেও তার ফোন বন্ধ পাওয়া যায়। এমন কি তাকে ক্ষুদে বার্তা দিয়েও কোনো উত্তর পাওয়া যায়নি। আর অজয় হালদার গত কয়েকদিন ধরে আত্মগোপনে রয়েছেন বলে জানা গেছে। 

এ ব্যাপারে প্রকল্পটির উপজেলা কো-অর্ডিনেটর মো. জিয়া হাওলাদার বলেন, ‘এমন একটি অভিযোগ পেয়ে ওই দুই সুপারভাইজারকে  ভুক্তভোগী শিক্ষকদের বেতনের টাকা দিয়ে দিতে বলা হয়েছে।’ 

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শেখ আব্দুল্লাহ আল সাদীদ বলেন,  ‘এ ব্যাপারে মালিখালী ইউনিয়নের ৮০ জন শিক্ষক একটি লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন। বিষয়টি খোঁজ নিয়ে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’ 

তাওহিদুল/ মাসুদ

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়