ঢাকা     বৃহস্পতিবার   ২৫ এপ্রিল ২০২৪ ||  বৈশাখ ১২ ১৪৩১

‘ফেরি ভেড়ার আগেই ইজিবাইক নিয়ে পন্টুনে যাই’

শফিকুল ইসলাম শামীম, রাজবাড়ী  || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৬:৫২, ৩১ জানুয়ারি ২০২৩   আপডেট: ১৭:০০, ৩১ জানুয়ারি ২০২৩
‘ফেরি ভেড়ার আগেই ইজিবাইক নিয়ে পন্টুনে যাই’

নিয়ম-নীতির তোয়াক্কা না করেই ফেরি ঘাটের পন্টুনে ঝুঁকি নিয়ে অবস্থান করে বিভিন্ন প্রকার যানবাহন। এতে ঘাটে এসে পন্টুনে ভেড়ানো ফেরি থেকে যানবাহন নামাতে দুর্ভোগ পোহাতে হয় চালকদের। শুধু তাই নয় ইজিবাইক চালকদের বাধা দিলে অপমান ও লঞ্চিত হতে হয় পন্টুনের দায়িত্বে থাকা কর্মচারী ও পরিবহন চালকদের।  

দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া ফেরি ঘাটের দৌলতদিয়া অংশ ঘুরে দেখা গেছে, ফেরি ঘাটে এসে ভেড়ানোর পূর্বে ট্রাক-বাস ও প্রাইভেটকার-মাক্রোবাস পন্টুনে নেমে আসে। ফেরিতে আসা যাত্রীদের নিতে পন্টুনে নেমে আসতে দেখা যায় ব্যাটারি চালিত ইজিবাইকও। ফলে ফেরিতে থাকা যানবাহন নামাতে ভোগান্তির শিকার হন চালকরা। অতিরিক্ত সময় ব্যয় করে ফেরি গুলো লোড-আনলোড হয়ে থাকে। এর ফলে মাঝে মধ্যে ঘটে ছোট-বড় দুর্ঘটনা। 

একাধিক ইজিবাইক চালকদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, বর্তমানে ফেরিতে যাত্রী কম আসে। যে কারণে পন্টুনে না গেলে যাত্রী পাওয়া যায় না। তাদের দাবি, তারা পন্টুনে না গেলে অন্যরা যাবেন। সুতরাং যাত্রী পাওয়ার আসায় ফেরি পন্টুনের ভেড়ানোর আগেই আমরা পন্টুনের গাড়ি নিয়ে যাই।  

যাত্রীবাহী বাস চালকরা জানান, পন্টুনে উপর যানবাহন থাকলে ফেরি থেকে গাড়ি নামাতে অনেক দুর্ভোগ পোহাতে হয়। দুর্ঘটনা ঘটে যাওয়ার সম্ভবনা থাকে বেশি। কিন্ত আমরা কিছু বললে স্থানীয়দের হাতে লাঞ্চিত হতে হয়।

ট্রাক চালক লাল চাঁদ মিয়া বলেন, ‘লোড গাড়ি ফেরি থেকে নামাতে অনেক বেগ পেতে হয়। এর মধ্যে পন্টুন এবং সংযোগ সড়কে থাকে একাধিক যানবাহন। যে কারণে সংযোগ সড়কে লোড ট্রাকগুলো আটকে যায়। বাধ্য হয়ে সরকারি রেকার দিয়ে অতিরিক্ত টাকা ব্যয় করে গাড়ি মূল সড়কে উঠানো হয়। তবে আমরা কিছু বললে অপমানিত হতে হয়।

পন্টুনের দায়িত্বরত আলাউদ্দিন নামের এক ব্যক্তি বলেন, বেশি সমস্যা করে ছোট গাড়ি। বিশেষ করে প্রাইভেটকার-মাক্রোবাস এবং স্থানীয় ইজিবাইকগুলো। এদের কিছু বলা যায় না। কারণ ইজিবাইকগুলো স্থানীয়দের আর প্রাইভেটকার-মাক্রোবাসে প্রভাবশালীরা থাকেন। কিছু বললে উল্টো অপমানিত হতে হয়।

দৌলতদিয়া নৌ পুলিশের ইনচার্জ পরিদর্শক (ওসি) সিরাজুল কবির বলেন, নৌ পুলিশের সদস্যরা ঘাটে এমন পরিস্থিতি দেখলে তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা নিয়ে থাকে। মাঝেমধ্যে পুলিশ ঘাট থেকে সরে গেলে বেপরোয়া অটোরিকশার চালকরা আবারো পন্টুনে গিয়ে অবস্থান নেন। 

বাংলাদেশ অভ্যান্তরীন নৌপরিবহন করপোরেশন (বিআইডব্লিউটিসি) আরিচা বন্দরের উপমহাব্যবস্থাপক শাহ মো. খালেদ নেওয়াজ বলেন, ফেরি ঘাটে ভেড়ানোর আগে যানবাহন পন্টুনে রাখার কোনো নিয়ম নেই। কারণ এতে দুর্ঘটনা ঘটতে পারে। তবে মাঝে মধ্যে দেখা যায়, স্থানীয় ইজিবাইক ফেরি ঘাটে ভেড়ানোর পূর্বে চলে আসে।

মাসুদ

আরো পড়ুন  



সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়