ঢাকা     মঙ্গলবার   ১৮ জুন ২০২৪ ||  আষাঢ় ৪ ১৪৩১

মোংলা ইপিজেডের আগুন নিয়ন্ত্রণে, ক্ষতি ১৫০ কোটি টাকা 

বাগেরহাট প্রতিনিধি || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৭:০১, ১ ফেব্রুয়ারি ২০২৩  
মোংলা ইপিজেডের আগুন নিয়ন্ত্রণে, ক্ষতি ১৫০ কোটি টাকা 

মোংলা ইপিজেডে ভিআইপি-১ নম্বর ব্যাগ কারখানায় লাগা আগুন নেভানো হয়েছে। ফায়ার সার্ভিসের ১২টি ইউনিটের চেষ্টায় আগুন লাগার ২৪ ঘণ্টা পর ফায়ার আউট ঘোষণা করা হয়েছে।

বুধবার (১ ফেব্রুয়ারি) বিকেল ৩টা ৪৫ মিনিটের দিকে ফায়ার আউট ঘোষণা করে ফায়ার সার্ভিস। তবে পর্যবেক্ষন করার জন্য ফায়ার সার্ভিসকর্মীরা ঘটনাস্থলে অবস্থান করছেন। 

এর আগে মঙ্গলবার (৩১ জানুয়ারি) বিকেল সাড়ে ৩টায় মোংলা ইপিজেডে থাকা ভিআইপি ইন্ডাষ্ট্রিজ বাংলাদেশ প্রাইভেট লিমিটেড নামের ভিআইপি-১ ব্যাগ কারখানায় আগুন লাগে। খবর পেয়ে খুলনা, বাগেরহাট ও মোংলা ফায়ার সার্ভিসের ১২টি ইউনিট আগুন নেভানোর কাজে অংশ নেয়। তবে ফ্যাক্টরির ভেতরে পলেস্টার টাইপের ফেব্রিক্স, ফোম ও ক্যামিকেল থাকায় আগুন নেভাতে সমস্যায় পড়েন ফায়ার ফাইটাররা।

খুলনা ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের উপ-পরিচালক মামুন মাহমুদ বলেন, অগ্নিকাণ্ডের খবর পাওয়ার পরপরই বিভিন্ন স্টেশন থেকে ফায়ার সার্ভিসের কয়েকটি ইউনিট আগুন নেভানোর কাজে অংশ নেয়। কিন্তু ফ্যাক্টরির মধ্যে ফেব্রিক্স, ফোম, ট্রলি ও ক্যামিকেল থাকায় আগুন নেভাতে সমস্যা হয়েছে। সর্বোচ্চ চেষ্টায় আমরা আগুন নেভাতে সক্ষম হয়েছি। এরপরেও  যদি কোথাও থেকে সুপ্ত আগুন আবার জ্বলে ওঠে তা নির্বাপন করা হবে। এজন্য পাম্প ও ফায়ার ফাইটাররা ঘটনাস্থলে রয়েছেন। তারা ফ্যাক্টরি পর্যবেক্ষন করছেন।

এদিকে আগুনের ঘটনায় ১৫০ কোটি টাকার ক্ষতি হয়েছে দাবি করে মঙ্গলবার (৩১ জানুয়ারি) রাতে মোংলা থানায় সাধারণ ডায়েরী করেছেন ফ্যাক্টরির সহকারী ব্যবস্থাপক আশীস কুমার কর্মকার।

সাধারণ ডায়েরিতে তিনি উল্লেখ করেছেন, প্রাথমিক ভাবে ধারণা করা হচ্ছে বৈদ্যুতিক শর্ট সার্কিটের মাধ্যমে আগুনের সূত্রপাত হয়েছে। আগুনে ফাক্টরির কাঁচামাল ও মেশিনারিজ পুড়ে ১৫০ কোটি টাকার ক্ষতি হয়েছে। তবে ওই ঘটনায় কোনো শ্রমিক, কর্মচারী ও কর্মকর্তা আহত হননি।

আগুন দৃশ্যমান হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে শ্রমিক ও কর্মকর্তারা নিরাপদ স্থানে চলে যান।

এদিকে, ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ ও আগুন লাগার কারণ জানতে মোংলা ইপিজেড কর্তৃপক্ষ পাঁচ সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করেছে। মোংলা ইপিজেডের অতিরিক্ত নির্বাহী পরিচালক আবুল হাসান মুন্সির নেতৃত্বে গঠিত তদন্ত কমিটি ৩ কার্যদিবসের মধ্যে আগুন লাগার কারণ ও ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ জানাবে। 

মোংলা ইপিজেডের নির্বাহী পরিচালক মো. মাহাবুব আহম্মেদ সিদ্দিক বলেন, ইপিজেডের সব কার্যক্রম স্বাভাবিক রয়েছে। ভিআইপি-১ ফ্যাক্টরির আগুন নির্বাপন করা হয়েছে। আগুনের কারণ ও ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ জানতে তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। এই কমিটি তিন কার্যদিবসের মধ্যে প্রতিবেদন প্রকাশ করবে। তদন্ত প্রতিবেদন পেলে বোঝা যাবে কি কারণে আগুন লেগেছে।

টুটুল/ মাসুদ

সম্পর্কিত বিষয়:

আরো পড়ুন  



সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়