ঢাকা     মঙ্গলবার   ২৫ জুন ২০২৪ ||  আষাঢ় ১১ ১৪৩১

বঙ্গবন্ধুর ঐতিহাসিক নিদর্শন নিয়ে চাঁদপুরে ভ্রাম্যমাণ রেল জাদুঘর

চাঁদপুর প্রতিনিধি  || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১০:২৪, ২৫ মার্চ ২০২৩   আপডেট: ১০:৪৪, ২৫ মার্চ ২০২৩
বঙ্গবন্ধুর ঐতিহাসিক নিদর্শন নিয়ে চাঁদপুরে ভ্রাম্যমাণ রেল জাদুঘর

চাঁদপুরে ভ্রাম্যমাণ রেল জাদুঘরে বঙ্গবন্ধুর ব্যবহৃত চশমা, মুজিব কোট, টুঙ্গিপাড়ার সমাধিস্থলসহ ১৩টি ঐতিহাসিক নিদর্শনের রেপ্লিকা উন্মুক্তভাবে উপভোগ করছেন দর্শনার্থীরা।

২০ থেকে ২৫ মার্চ প্রদর্শিত এই জাদুঘরে দর্শনার্থীদের ভিড় উপচেপড়া। বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকীতে রেল নেটওয়ার্কের এলাকায় বঙ্গবন্ধুর জীবনাদর্শ সব অঞ্চলে তুলে ধরতেই এ উদ্যোগ বলছেন সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা।

জাদুঘরে দায়িত্বর চট্টগ্রামের এসএসটিএল মোহাম্মদ রবিউল হাসান এবং চাঁদপুর ক্যারেজ কর্মচারী সুজন চন্দ্র দাস বলেন, একটি এক বগির রেল কোচ সম্পূর্ণ শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত। যেখানে ১৯২০ থেকে ১৯৭৫ সাল পর্যন্ত ১৩টি রেপ্লিকার মাধ্যমে বঙ্গবন্ধু মুক্তিযুদ্ধ ও বাংলাদেশের ইতিহাস তুলে ধরা হয়েছে। এটির নাম দেওয়া হয়েছে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব ভ্রাম্যমাণ রেল জাদুঘর। যেখানে বঙ্গবন্ধুর ব্যবহৃত চশমা, দলীয় প্রতীক নৌকা, মুজিব কোট, মুজিব শতবর্ষের লোগো, বঙ্গবন্ধুর তামাক পাইপ, বঙ্গবন্ধুর লেখা বই, মুজিবনগর স্মৃতিস্তম্ভ, কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার, পাকিস্তানিদের আত্মসমর্পণ, জাতীয় স্মৃতিসৌধ, বঙ্গবন্ধু সমাধি সৌধের রেপ্লিকাসহ প্রদর্শনী চলছে।

চাঁদপুর প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি ইকবাল হোসেন পাটওয়ারীসহ নানা বয়সী দর্শনার্থীরা বলছেন, এই জাদুঘরটিতে জয় বাংলা স্লোগানের আদলে তৈরি করা হয়েছে সৃজনশীল একটি বুকশেলফ। সেখানে শোভা পেয়েছে বঙ্গবন্ধুর অসমাপ্ত আত্মজীবনী, আমার দেখা নয়াচীন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার লেখা বই ‘শেখ মুজিব আমার পিতা’ সহ গুরুত্বপূর্ণ বই। আর রেলকর্তৃপক্ষের এমন উদ্যোগকে তাই আমরা সাধুবাদ জানাচ্ছি।

এ বিষয়ে চাঁদপুর রেলওয়ের ভারপ্রাপ্ত স্টেশন মাষ্টার সোয়াইবুল সিকদার বলেন, শিক্ষার্থী ও তরুণ প্রজন্মের জন্য এই জাদুঘর ভূমিকা রাখছে। কেননা জাদুঘরটি দর্শনার্থীরা কীভাবে গ্রহণ করবে সেটা নিয়ে সংশয় ছিলো রেল কর্তৃপক্ষের। তবে এখন সেই সংশয় কাটিয়ে এটি ব্যাপক জনপ্রিয়তা পাচ্ছে বলে মনে করছি।

জয়/টিপু

আরো পড়ুন  



সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়