ঢাকা     সোমবার   ২২ এপ্রিল ২০২৪ ||  বৈশাখ ৯ ১৪৩১

এক বছরে ৫৪ দিন ক্লাস নেওয়া সেই শিক্ষককে কারণ দর্শানোর নোটিশ

টাঙ্গাইল প্রতিনিধি || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৭:৩৯, ৯ ফেব্রুয়ারি ২০২৪   আপডেট: ১৭:৫৫, ৯ ফেব্রুয়ারি ২০২৪
এক বছরে ৫৪ দিন ক্লাস নেওয়া সেই শিক্ষককে কারণ দর্শানোর নোটিশ

জেবুন নাহার শিলা

টানা ছয় মাস অনুপস্থিত স্কুল শিক্ষক জেবুন নাহার শিলাকে কারণ দর্শানোর নোটিশ দিয়েছেন জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা সুব্রত কুমার বণিক। বৃহস্পতিবার (৮ ফেব্রুয়ারি) দেওয়া ওই নোটিশে আগামী সাত দিনের মধ্যে সংশ্লিষ্ট কার্যালয়ে কারণ দর্শাতে বলা হয়েছে শীলাকে।

নোটিশে বলা হয়েছে, জেবুন নাহার শিলা গত বছরের ১০ জুলাই থেকে ৯ অক্টোবর পর্যন্ত তিন মাসের চিকিৎসা ছুটিতে ছিলেন। একই বছরের ১০ অক্টোবর থেকে চলতি বছরের ৯ জানুয়ারি পর্যন্ত পুনরায় তিন মাসের চিকিৎসা ছুটির আবেদন করেন তিনি। নিয়ম অনুযায়ী, স্বাস্থ্যগত কারণে তিন মাসের অধিক ছুটির ক্ষেত্রে মেডিকেল বোর্ডের সনদ প্রয়োজন। মেডিকেল বোর্ডের সনদের জন্য ওই শিক্ষকের আবেদনপত্র টাঙ্গাইল সিভিল সার্জন কার্যালয়ে পাঠানো হয়। এর প্রেক্ষিতে ওই শিক্ষককে বিগত সময়ের চিকিৎসকের ব্যবস্থাপত্র ও কাগজপত্র মেডিকেল বোর্ডে পাঠাতে চিঠি দেয় সিভিল সার্জন কার্যালয়। কিন্তু, প্রয়োজনীয় কাগজপত্র জমা না দিয়ে বোর্ডে অনুপস্থিত রয়েছেন শিক্ষক জেবুন নাহার শিলা। 

আরও পড়ুন: এক বছরে তিনি ক্লাস নিয়েছেন মাত্র ৫৪ দিন

এর আগে, সংবাদ প্রকাশের জন্য বক্তব্য নিতে গেলে ইউএনও মোহাম্মদ হোসেন পাটওয়ারীর নির্দেশে গত ১৬ ও ২৯ জানুয়ারি উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা মোহাম্মদ রাফিউল ইসলাম অভিযুক্ত শিক্ষক শিলাকে কারণ দর্শানোর নোটিশ দেন।

টাঙ্গাইল জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা সুব্রত কুমার বণিক বলেন, ওই শিক্ষকের চিকিৎসা ছুটির আবেদন জেলা সিভিল সার্জন কার্যালয়ে পাঠানো হয়। কিন্তু, মেডিকেল বোর্ড প্রয়োজনীয় কাগজপত্র চাইলে জমা দেননি তিনি। ফলে ওই শিক্ষক চিকিৎসা ছুটি পাননি। এ কারণে সিভিল সার্জন কার্যালয় কাগজপত্র ফেরত পাঠিয়েছে। বৃহস্পতিবার তাকে কারণ দর্শানোর নোটিশ পাঠানো হয়েছে। তার বিরুদ্ধে বিভাগীয় মামলার প্রক্রিয়া শুরু হচ্ছে। আমরা অ্যাকশনে যাচ্ছি। আমরা দুষ্টের দমন করব।

প্রসঙ্গত, জেবুন নাহার শিলা গত বছরের ২৪ জানুয়ারি সখীপুর উপজেলার পশ্চিম কালিদাস পানাউল্লা পাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সহকারী শিক্ষক পদে যোগদান করেন। এরপর ৯ জুলাই পর্যন্ত ৫৪ দিন ক্লাস করিয়েছেন শিক্ষার্থীদের। গেল বছরের ১০ জুলাইয়ের পর আর বিদ্যালয়ে ফেরেননি শিক্ষক শিলা। ৯ জুলাই পর্যন্ত ৮২ কার্যদিবসের মধ্যে ওই শিক্ষক আরও ১৫ দিন চিকিৎসা ছুটি ও ১৩ দিন নৈমিত্তিক ছুটি কাটিয়েছেন। শিলা কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের নির্বাহী সংসদের সদস্য। 

কাওছার/মাসুদ

সম্পর্কিত বিষয়:

আরো পড়ুন  



সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়