ঢাকা     সোমবার   ০৪ মার্চ ২০২৪ ||  ফাল্গুন ২০ ১৪৩০

নিমগাছ থেকে বের হচ্ছে ফেনাসহ মিষ্টি রস

চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রতিনিধি || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ০৯:৪৮, ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৪   আপডেট: ০৯:৫৬, ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৪
নিমগাছ থেকে বের হচ্ছে ফেনাসহ মিষ্টি রস

চাঁপাইনবাবগঞ্জের একটি নিমগাছ থেকে অনরবত বের হচ্ছে ফেনাসহ মিষ্টি রস। গাছটির মালিক নাসির আলী। তিনি চাঁপাইনবাবগঞ্জের সদর উপজেলার চরবাগডাঙ্গা ইউনিয়নের গড়াইপাড়া গ্রামের অধিবাসী। নাসির আলী তার বাড়ির উঠোনে প্রায় দুই দশক আগে এই গাছের চারা রোপণ করেছিলেন বলে জানা গেছে। 

স্থানীয়দের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, গত দুই সপ্তাহ ধরেই এই নিমগাছ থেকে মিষ্টি রস বের হচ্ছে।

ষাটোর্ধ্ব মোবারক আলী বলেন, ৬৫ বছরের জীবনে কখনও এমন অদ্ভুত ঘটনা দেখিনি। আমিও খেয়েছি, এর স্বাদ খেজুরের রসের মতোই।

চরবাগডাঙ্গা ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য আশরাফুল ইসলাম বলেন, প্রায় দুই সপ্তাহ আগে হঠাৎ করেই নিমগাছটি দিয়েই ফেনাসহ মিষ্টি রস বের হতে শুরু করে। 

কলেজছাত্র ওসমান আলী বলেন, নিমগাছটি থেকে বের হওয়া রসের গন্ধও খেজুরের রসের মতো। এ রস খেলে রোগবালাই মুক্তি পাওয়া যাবে বলে অনেকই সংগ্রহ করেছেন। 

আরেক গ্রামের বাসিন্দা আকতারা বেগম গড়াইপাড়ায় এসেছেন শুধুমাত্র নিমগাছের রস নেয়ার জন্যই। বিভিন্ন রোগ থেকে মুক্তি পেতে রস সংগ্রহ করতে এসেছেন তিনি।আকতারা বেগম জানান, ডায়াবেটিসসহ দীর্ঘদিন ধরে কোমর ও পায়ের ব্যথায় ভুগছেন তিনি। লোকমুখে শুনেছেন নিমগাছের রস খেলে বিভিন্ন রোগবালাই ভালো হয়ে হচ্ছে। 

নিমগাছটির মালিক নাসির আলী বলেন, এবারই প্রথম নয়, এর আগেও এমন মিষ্টি রস বের হয়েছিল। তবে রস সংগ্রহ করার হিড়িক পড়েছে এই প্রথমবার। 

মাটির গুণাগুণ-আশেপাশের বিভিন্ন পরিবেশের প্রভাবে নিমগাছের রসের স্বাদে পরিবর্তন আসতে পারে বলে মনে করেন উদ্ভিদবিদ্যা বিভাগের শিক্ষকেরা। 

এবিষয়ে বগুড়া সরকারি আজিজুল হক কলেজের উদ্ভিদবিদ্যা বিভাগের অধ্যাপক একেএম শফিকুর রহমান বলেন, এমন ঘটনা খুব কম দেখা গেলেও একেবারেই অস্বাভাবিক নয়। মাটির নিচের গুণাগুণসহ বিভিন্ন পারিপার্শ্বিক কারনে এমনটি হতে পারে। তবে এটি হয়ত কয়েকদিনের মধ্যেই আবার স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরে যাবে। 

নিমগাছের এই মিষ্টি রস পান করার বিশেষ উপকারিতা নেই বলেও জানান তিনি।

/মেহেদী/লিপি

আরো পড়ুন  



সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়