ঢাকা     সোমবার   ১৫ এপ্রিল ২০২৪ ||  বৈশাখ ২ ১৪৩১

অপহরণের ১২ দিনেও খোঁজ মেলেনি মাদরাসা ছাত্রীর

মাগুরা প্রতিনিধি || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ২১:৩৪, ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২৪  
অপহরণের ১২ দিনেও খোঁজ মেলেনি মাদরাসা ছাত্রীর

মাগুরার শ্রীপুরে অপহরণের ১২ দিন অতিবাহিত হলেও উদ্ধার হয়নি এক মাদরাসা ছাত্রী। এ ঘটনায় ওই ছাত্রীর পরিবারের পক্ষ থেকে থানায় মামলা করা হয়েছে।  ছাত্রীকে উদ্ধারে তৎপরতা চালানো হচ্ছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

মামলার বিবরণে জানা যায়, অপহৃত মোছা. লাবনী খাতুন (১৫) শ্রীপুর উপজেলার সদর ইউনিয়নের কচুয়া গ্রামের মো. জলিল মোল্যার মেয়ে। সে তখলপুর হাতেম আলী দাখিল মাদরাসার ৯ম শ্রেণির ছাত্রী। গত ১৪ ফেব্রুয়ারি সকালে বাড়ি থেকে মাদরাসার জন্য বের হয়ে সে। এরপর থেকেই সে নিখোঁজ। পরিবারের লোকজন বিভিন্ন স্থানে ও আত্মীয়-স্বজনের বাড়িতে খোঁজাখুঁজি করেও তার সন্ধান পায়নি। ঘটনার দুইদিন পর জলিল মোল্যা জানতে পারেন, তার মেয়ে ফুলতলা মোড়ে পৌঁছানোর আগে শিবলু মোল্যা (২৮) নামে এক যুবক দলবল নিয়ে তাকে অপহরণ করেছে। গত ১৬ ফেব্রুয়ারি তিনি বাদী হয় চার জনের নাম উল্লেখ করে শ্রীপুর থানায় অপহরণ মামলা করেন। এতে শ্রীপুর উপজেলার তখলপুর গ্রামের বিষে মোল্যার ছেলে শিবলু মোল্যা (২৮), মেয়ে সোহাগী আক্তার মীম (২৫), মো. পিয়ারুল ইসলাম (২৮) ও মোহাম্মদ আলী জোয়ার্দারকে (২৮) আসামি করা হয়। 

জলিল মোল্যা বলেন, আমার মেয়েকে ফিরে পেতে পুলিশ, স্থানীয় জনপ্রতিনিধিসহ বিভিন্ন স্থানে যোগাযোগ করেছি। কিন্তু, কেউ তার সন্ধান পাইনি। আমি আমার মেয়েকে ফেরত চাই।

অভিযুক্ত শিবলু মোল্যার মা আকলিমা বেগম বলেন, আমার ছেলে রাজমিস্ত্রির কাজ করতো। আমার ছেলে ৩টা বিয়ে করেছে। সে ঘসিয়াল শ্বশুর বাড়িতে থাকতো। মাঝে মধ্যে বাড়িতে আসতো। এখন কোথায় আছে জানি না।

তখলপুর হাতেম আলী দাখিল মাদরাসার সহকারী সুপার জহুরুল ইসলাম বলেন, লাবনী খাতুন আমাদের মাদরাসার ৯ম শ্রেণির ছাত্রী। সর্বশেষ সে ১১ ফেব্রুয়ারি মাদরাসায় আসে। দুই-তিন দিন না আসলে আমরা প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে খোঁজখবর নিয়ে থাকি। তার খোঁজ নিয়ে জানতে পারি তাকে পাওয়া যাচ্ছে না।

শ্রীপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শেখ তাসমীম আলম বলেন, ওই ছাত্রীকে উদ্ধারে পুলিশ তৎপর রয়েছে। একজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। অন্য আসামিদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

শাহীন/মাসুদ

সম্পর্কিত বিষয়:

আরো পড়ুন  



সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়