ঢাকা     মঙ্গলবার   ১৬ এপ্রিল ২০২৪ ||  বৈশাখ ৩ ১৪৩১

ফুড ফেয়ারে শিক্ষার্থীরা শিখলেন কোন খাবারে কী ভিটামিন

পাবনা প্রতিনিধি || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ২২:১৮, ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৪  
ফুড ফেয়ারে শিক্ষার্থীরা শিখলেন কোন খাবারে কী ভিটামিন

পাবনা আইডিয়াল নার্সিং কলেজে অনুষ্ঠিত হয়েছে ফুড ফেয়ার। দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থীদের জন্য এ আয়োজন করে কলেজ কর্তৃপক্ষ। যেখানে তারা হাতে-কলমে শিখলেন কোন খাদ্যে কী ভিটামিন, রোগী কোন খাবার খেলে কী উপকার পাবেন। 

শুধু তাই নয়, তারা নিজ হাতে সেইসব খাবার তৈরি করে শিক্ষকদের সামনে উপস্থাপন করেছেন। পাঠ্যবই এর পাশাপাশি তাদের এই হাতে-কলমে জ্ঞানার্জন ভবিষ্যত কর্মজীবনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে বলে মনে করেন চিকিৎসকরা।

মঙ্গলবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে পাবনা আইডিয়াল নার্সিং কলেজের ফুড ফেয়ারে গিয়ে দেখা যায়, উৎসবমুখর কলেজ প্রাঙ্গণ। নানা রঙে সেজেছে বিভিন্ন স্টল। প্রোটিন, ভিটামিন, মিনারেলসসহ আলাদা নামও রয়েছে একেকটি স্টলের। যেখানে শিক্ষার্থীরা পসরা সাজিয়েছেন নানারকম খাবারের। যে খাবারগুলো এসব প্রোটিন ও বিভিন্ন ভিটামিন সমৃদ্ধ।

২০২১-২২ সালের বিএসসি (নার্সিং) দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থীদের জন্য আয়োজন করা হয় এ ফুড ফেয়ার। দ্বিতীয়বর্ষের শিক্ষার্থীদের একটি বিষয় রয়েছে নিউট্রিশন ও ডায়াটেটিক্স। যেখানে নানারকম ভিটামিন সম্পর্কে পাঠ্যবই পড়ার পাশাপাশি হাতে-কলমে শিখতে হয় তাদের।
 
সেই লক্ষ্যে প্রতিবছরের ন্যায় এবারও শিক্ষার্থীদের নিউট্রিশন ও ডায়াটেটিক্স সম্পর্কে জ্ঞান অর্জনে ফুড ফেয়ারের আয়োজন করা হয়। যেখানে কার্বোহাইড্রেট, প্রোটিন, ফ্যাট, ভিটামিন ও মিনারেলস নামে পাঁচটি স্টল করেন শিক্ষার্থীরা। নিজ হাতে তৈরি করেন এসব ভিটামিন সমৃদ্ধ খাবার। উপস্থাপন করেন শিক্ষক ও অতিথি চিকিৎসকদের সামনে।

প্রতিষ্ঠানের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী হুজাইফা ইসলাম, শিশির ইসলাম, সাইমুর হামিম, আফসানা মিমি, জেরিন সুলতানা বলেন, ‘ফুড ফেয়ারের মাধ্যমে কোন ভিটামিন কী কাজে লাগে, কোন খাবারে কী ভিটামিন, প্রোটিন, ফ্যাট আছে সেগুলো জানতে পারছি। আর ফুড ফেয়ারে ক্যাটাগরি ভাগ করা থাকে। এগুলো আলাদা করার কারণ হলো, হাসপাতালে রোগীদের সেবা দেয়ার ক্ষেত্রে আলাদা ডায়েট প্ল্যান দিতে হয়। এখান থেকে যে জ্ঞান অর্জন করছি, সেটা হাসপাতালে রোগীদের সেবার দেয়ার ক্ষেত্রে ভূমিকা রাখবে।’

এর আগে কেক কেটে ফুড ফেয়ারের উদ্বোধন করেন পাবনা জেনারেল হাসপাতালের সহকারী পরিচালক ডা. রফিকুল হাসানসহ অতিথিরা। পরে বিভিন্ন স্টল ঘুরে দেখেন এবং শিক্ষার্থীদের হাতে তৈরি খাবারের স্বাদ গ্রহণ করেন শিক্ষক ও চিকিৎসকরা।

এ সময় অন্যান্যের মধ্যে কুষ্টিয়া মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের সাবেক অধ্যক্ষ ডা. ইফতেখার মাহমুদ, পাবনা জেনারেল হাসপাতালের অর্থোপেডিক্স চিকিৎসক ডা. আকসাদ আল মাসুর আনন, হৃদরোগ চিকিৎসক ডা. শাহরিয়ার কবির, প্রতিষ্ঠানে অধ্যক্ষ ডা. উমা রায়, পরিচালক আবু দাউদসহ অনেকে উপস্থিত ছিলেন।

এ বিষয়ে পাবনা জেনারেল হাসপাতালের সহকারী পরিচালক ডা. রফিকুল হাসান বলেন, ‘শিক্ষার্থীদের জন্য এমন আয়োজন নিঃসন্দেহে প্রশংসনীয়। আমি অভিভূত। এত ছোট ছোট ছেলে-মেয়ে যে এত সুন্দর রান্না করতে পারে ভাবতে পারিনি। তাদের খাবার সাজানো ও উপস্থাপনাটাও অসাধারণ। এর মাধ্যমে সুশিক্ষিত ও মান সম্পন্ন নার্স তৈরি হবে।’

প্রতিষ্ঠানের পরিচালক মো. আবু দাউদ বলেন, ‘আমরা পাবনা আইডিয়াল নার্সিং কলেজ থেকে আন্তর্জাতিক মান সম্পন্ন নার্স তৈরি করার জন্য সবসময় চেষ্টা করে যাচ্ছি। এজন্য প্রতিবছর দ্বিতীয়বর্ষের শিক্ষার্থীদের যে বিষয় রয়েছে নিউট্রিশন ও ডায়াটেটিক্স, তারই আলোকে এই ফুড ফেয়ারের আয়োজন। যাতে শিক্ষার্থীরা হাতে কলমে জ্ঞান অর্জন করতে পারেন।’

প্রতিষ্ঠানের অধ্যক্ষ ডা. উমা রায় বলেন, ‘আমরা অনেক মা ও শিশুর নিউট্রিশন মেইনটেন করি। কাকে কতটুকু ফুড ভ্যালু দেয়া দরকার সেই বিষয়টি সবার জানা দরকার। শিক্ষার্থীদের আজকের খাবারের তালিকা ও প্রেজেন্টেশনটা খুব চমৎকার হয়েছে। তাদের পড়াশোনা যেমন দরকার, পাশাপাশি এই অতিরিক্ত কারিকুলামটাও দরকার। এমন আয়োজন ভবিষ্যতে ভালো নার্স তৈরি হতে সহায়তা করবে।’

২০১৫ সালের ১ নভেম্বর ৩০ জন শিক্ষার্থী ও ৮ জন শিক্ষক নিয়ে যাত্রা শুরু করে পাবনা আইডিয়াল নার্সিং কলেজ। বর্তমানে তিন শিক্ষাবর্ষে শিক্ষার্থী রয়েছে ৪৫০ জন। আর শিক্ষক আছেন ৩০ জন।
 

শাহীন/বকুল

আরো পড়ুন  



সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়