ঢাকা     শনিবার   ২২ জুন ২০২৪ ||  আষাঢ় ৮ ১৪৩১

পাবনায় ইভিএম নিয়ে প্রশ্ন তুললেন পরাজিত চেয়ারম্যান প্রার্থী  

পাবনা প্রতিনিধি   || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ২০:৪২, ২২ মে ২০২৪   আপডেট: ২০:৪৩, ২২ মে ২০২৪
পাবনায় ইভিএম নিয়ে প্রশ্ন তুললেন পরাজিত চেয়ারম্যান প্রার্থী  

পরাজিত চেয়ারম্যান প্রার্থী বীর মুক্তিযোদ্ধা মেছবাহুর রহমান

ষষ্ঠ উপজেলা নির্বাচনের দ্বিতীয় ধাপের ভোটে হেরে গিয়ে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন (ইভিএম) নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন পরাজিত চেয়ারম্যান প্রার্থী বীর মুক্তিযোদ্ধা মেছবাহুর রহমান। তিনি পাবনা জেলা কৃষকলীগের সহ-সভাপতি। পাবনার ভাঙ্গুড়া উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ঘোড়া প্রতীক নিয়ে চেয়ারম্যান প্রার্থী হিসেবে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। 

মঙ্গলবার (২১ মে) সারা দিন ভোটগ্রহণ শেষে রাতে ফলাফল ঘোষণার ঘণ্টাখানেক পর রাত পৌনে ৯টার দিকে 'রোজ মেছবাহুর রহমান' নামে নিজের ফেসবুক আইডিতে স্ট্যাটাস দেন চেয়ারম্যান প্রার্থী মেছবাহুর রহমান। সেখানে তিনি লেখেন, ‘৬ষ্ঠ উপজেলা নির্বাচনে দ্বিতীয় ধাপে পরাজিতের অভিজ্ঞতা থেকে আগামী তৃতীয় ও চতুর্থ ধাপের প্রার্থীদের প্রতি অনুরোধ, ইভিএম (ভুয়া) সংশ্লিষ্ট সরকারি কর্মকর্তা, পদ্ধতি ও ক্ষমতাশালীদের প্রতি সজাগ দৃষ্টি রাখতে অনুরোধ করছি।’ 

এ বিষয়ে জানতে চাইলে মেছবাহুর রহমান বলেন, 'ভোট চলাকালে চারটি কেন্দ্রে গিয়ে দেখেছি, নির্বাচনের সঙ্গে যুক্তরা সরাসরি ভোটারদের গোপনকক্ষে নিয়ে গিয়ে ভোট নিয়ে নিচ্ছেন। ইভিএম পদ্ধতিটা ভুয়া বলেই মনে হয়েছে। তাই পরবর্তী নির্বাচনগুলোতে প্রার্থীদের সতর্ক হতেই পোস্ট দিয়েছি।’ 

সরকারি দলের একজন পদধারী নেতা হয়ে সরকারের নেওয়া আধুনিক ও যুগোপযোগী কার্যক্রমের বিরুদ্ধে অবস্থান নেওয়ার বিষয়ে তিনি বলেন, ‘দীর্ঘদিন বিদেশে থেকেছি। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শে অনুপ্রাণিত। আওয়ামী লীগ চুরি করবে, অন্যায় করবে এটা মেনে নিতে পারব না।’

কোথায়ও অভিযোগ করেছেন কি-না এমন প্রশ্নের জবাবে মেছবাহুর রহমান বলেন, ‘জানি অভিযোগ করে প্রতিকার পাব না। তাই কোথায়ও অভিযোগ করিনি। নির্বাচনের আগেও নানারকম সমস্যা হয়েছে৷ কমিশন ব্যবস্থা নেয়নি।’  

এ বিষয়ে ভাঙ্গুড়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে বিজয়ী চেয়ারম্যান প্রার্থী গোলাম হাসনাইন রাসেল বলেন, 'ইভিএম পদ্ধতিটা স্বচ্ছ প্রক্রিয়া। এখানে কারচুপি, অনিয়ম করার সুযোগ নেই। ভোটাররাও খুশি। দলের গুরুত্বপূর্ণ পদে থেকে জনবিচ্ছিন্ন মানুষ হয়ে প্রতিটা নির্বাচনে প্রার্থী হওয়াটা তার (মেছবাহুর রহমান) নেশায় পরিণত হয়েছে। ক্ষমতাসীন দলের দলীয় নেতা হয়ে সরকার তথা দলের বিরুদ্ধে অবস্থান নেয়া বা কটূক্তি করা দুঃখজনক।’ 

নির্বাচনের রিটার্নিং অফিসার ও অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) শরিফ আহমেদ বলেন, ‘আমরা অভিযোগ পাইনি। কেউ অভিযোগ দিলে খতিয়ে দেখে কমিশনের বিধি মোতাবেক ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’ 

ভাঙ্গুড়া উপজেলা নির্বাচনের ফলাফলে উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক গোলাম হাসনাইন রাসেল (মোটর সাইকেল) ৩১ হাজার ৫৫৯ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী এম মেছবাহুর রহমান (ঘোড়া) পেয়েছেন ২ হাজার ৬৭৯ ভোট। অপর প্রার্থী মো. বাকিবিল্লাহ (আনারস) পেয়েছেন ৫৪১ ভোট। এ উপজেলায় ভোট পড়েছে ৩৩ দশমিক ৭৯ শতাংশ।

শাহীন/বকুল 

সম্পর্কিত বিষয়:

আরো পড়ুন  



সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়