ঢাকা     রোববার   ১৪ জুলাই ২০২৪ ||  আষাঢ় ৩০ ১৪৩১

ঘূর্ণিঝড় রেমাল

খুলনায় ফায়ার সার্ভিসের বিভাগীয় মনিটরিং সেল গঠন

নিজস্ব প্রতিবেদক, খুলনা || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৬:২৪, ২৬ মে ২০২৪   আপডেট: ১৬:২৮, ২৬ মে ২০২৪
খুলনায় ফায়ার সার্ভিসের বিভাগীয় মনিটরিং সেল গঠন

ঘূর্ণিঝড় পূর্ব, ঘূর্ণিঝড় সময়কালীন এবং ঘূর্ণিঝড় পরবর্তী কর্মতৎপরতা সমন্বয় করতে গঠন করা হয়েছে খুলনা ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স’র বিভাগীয় মনিটরিং সেল।

খুলনা, সাতক্ষীরা ও বাগেরহাটে কাজ করছে ফায়ার সার্ভিসের ৩০টি দল। মাইকিং করে উপকূলীয় এলাকায় চালানো হচ্ছে সচেতনতামূলক প্রচারণা। খুলনা বিভাগীয় নিয়ন্ত্রণ কক্ষ এ বিষয়ে সার্বক্ষণিক নজরদারি করছে। প্রস্তুত রয়েছে বিশেষ দল।

সার্বিকভাবে যে কোনো পরিস্থিতি মোকাবিলায় প্রস্তুত রয়েছে ফায়ার সার্ভিস। দুর্যোগপ্রবণ এলাকার জনসাধারণকে সতর্ক ও সাবধান করছে দুর্যোগপ্রবণ এলাকার ফায়ার স্টেশনগুলো। উপকূলীয় এলাকাসমূহের সকল ফায়ার স্টেশনের সকল কর্মকর্তা-কর্মচারীর ছুটি বাতিল করে সবাইকে সতর্ক পাহারায় রাখা হয়েছে।

ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স খুলনার উপপরিচালক মামুন মাহমুদ বলেন, ঘূর্ণিঝড় রেমাল মোকাবিলায় খুলনা, সাতক্ষীরা ও বাগেরহাটের ৩০টি দল শনিবার সকাল ৬টা থেকে কাজ শুরু করেছে। এরমধ্যে খুলনায় ১৪টি ফায়ার স্টেশন রয়েছে। যারমধ্যে একটি রিভার ফায়ার স্টেশন আছে। এ ছাড়া বাগেরহাটে ১০টি এবং সাতক্ষীরায় ৬টি ফায়ার স্টেশনের দল কাজ করছে। দলের সদস্যরা মানুষকে সচেতন করার পাশাপাশি উদ্ধারকাজ, বিশুদ্ধ খাবার পানির ব্যবস্থা, নিরাপদে আশ্রয় কেন্দ্রে আনাসহ যাবতীয় কাজ করবে। জল ও স্থল উভয় পথে ফায়ার সার্ভিসের দল এবং যাবতীয় সরঞ্জাম প্রস্তুত রাখা হয়েছে। খুলনা সদর দপ্তরে প্রস্তুত রাখা হয়েছে ২০ সদস্যের বিশেষ দল। খোলা হয়েছে মনিটরিং সেল।

ফায়ার সার্ভিসের সূত্রে জানা গেছে, দুর্যোগপ্রবণ এলাকার জরুরি পরিস্থিতিতে প্রতিটি ফায়ার স্টেশনে ফায়ারফাইটিং টিম, সার্চ অ্যান্ড রেসকিউ টিম, প্রাথমিক চিকিৎসাকারী দল এবং ওয়াটার রেসকিউ টিম প্রস্তুত রাখা হয়েছে। ঘূর্ণিঝড়-পরবর্তী অনুসন্ধান ও উদ্ধারকাজসহ রাস্তাঘাট যান চলাচলে উপযোগী করার কাজে ফায়ার সার্ভিস নিয়োজিত থাকবে। তাদের সহযোগিতা করবেন ফায়ার সার্ভিসের প্রশিক্ষিত স্বেচ্ছাসেবকরা। এসব এলাকায় জীবন ও মালামাল সুরক্ষা সংক্রান্ত যে কোনো কাজে দিবা-রাত্রি ২৪ ঘণ্টা ফায়ার সার্ভিসের সেবা গ্রহণ করা যাবে। সব আশ্রয়কেন্দ্রের পাশাপাশি প্রয়োজনে উপকূলবর্তী ফায়ার স্টেশনগুলোতেও সাধারণ জনগণ আশ্রয় নিতে পারবেন।

এই সূত্র আরও জানিয়েছে, ফায়ার সার্ভিসের মনিটরিং সেল, বিভাগীয় নিয়ন্ত্রণ কক্ষ সার্বক্ষণিক তথ্য সংগ্রহে নিয়োজিত থাকবে। যে কোনো জরুরি প্রয়োজনে সেবা গ্রহণের জন্য নিকটবর্তী ফায়ার স্টেশন, বিভাগীয় নিয়ন্ত্রণ কক্ষ, কেন্দ্রীয় নিয়ন্ত্রণ কক্ষের হটলাইন নম্বর ১৬১৬৩ অথবা খুলনা বিভাগীয় মনিটরিং সেলের জরুরি মোবাইল নম্বর ০১৭৩৩০৬২২০৯-এ ফোন করার জন্য সবাইকে অনুরোধ জানানো হয়েছে। এ ছাড়া জরুরি প্রয়োজনে ১০২ এবং ৯৯৯ হটলাইনে কল করে তথ্য জানানো যাবে।

নুর/ফয়সাল

সম্পর্কিত বিষয়:

ঘটনাপ্রবাহ

আরো পড়ুন  



সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়