ঢাকা     রোববার   ০৪ ডিসেম্বর ২০২২ ||  অগ্রহায়ণ ২০ ১৪২৯ ||  ০৯ জমাদিউল আউয়াল ১৪১৪

ধামরাইয়ে ২১ এসএসসি পরীক্ষার্থীকে বহিষ্কার

সাভার (ঢাকা) প্রতিনিধি  || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৩:৪১, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২২  
ধামরাইয়ে ২১ এসএসসি পরীক্ষার্থীকে বহিষ্কার

যাদবপুর বিএম উচ্চ বিদ্যলয় কেন্দ্র

ঢাকার ধামরাইয়ে এসএসসি পরীক্ষাকেন্দ্রে নকলের অভিযোগে দুটি কেন্দ্রের ২১ শিক্ষার্থীকে বহিষ্কার করা হয়েছে। এ ঘটনায় হতাশা ও ক্ষোভ জানিয়ে সুষ্ঠু তদন্ত দাবি করেছেন শিক্ষকরা।

সোমবার (১৯ সেপ্টেম্বর) রাতে ধামরাই উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট হোসাইন মোহাম্মদ জকী বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

এর আগে সোমবার সকালে ইংরেজি প্রথমপত্রের পরীক্ষায় উপজেলার কুশুরিয়া ইউনিয়নের নবযুগ কলেজ কেন্দ্রে ২ জন ও যাদবপুর ইউনিয়নের যাদবপুর বিএম উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রের ১৯ জন শিক্ষার্থীকে বহিষ্কার করা হয়।

নির্বাহী অফিসার হোসাইন মোহাম্মদ জকী বলেন, একে অপরের খাতা দেখা ও নকল করাসহ পরীক্ষায় অসুদপায় অবলম্বনের অভিযোগে ২১ শিক্ষার্থীকে বহিষ্কার করা হয়েছে। এদের মধ্যে ১৯ জন যাদবপুর বিএম উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রের  ও ২ জন নবযুগ কলেজ কেন্দ্রের পরীক্ষার্থী।

এদিকে ২১ শিক্ষার্থীকে বহিষ্কারের ঘটনায় ক্ষোভ জানিয়ে এর সুষ্ঠু তদন্ত দাবী করেছেন শিক্ষকরা।

সাভারের আশুলিয়ার আলহেরা রেসিডেন্সিয়াল স্কুলের প্রধান শিক্ষক খোরশেদ আলম বলেন, আমাদের স্কুলের ৩৪ জন পরীক্ষার্থী যাদবপুর বিএম উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে এ বছর পরীক্ষায় অংশ নিচ্ছে। ইংরেজি প্রথমপত্র পরীক্ষা শুরুর পরপর স্কুলের দুই শিক্ষার্থীর খাতা দেখে অন্য দুই শিক্ষার্থী লেখার অপরাধে তাদের চারজনকেই এক্সপেল (বহিষ্কার) করে। একই কেন্দ্রে মোট ১৮-১৯ শিক্ষার্থীকে এক্সপেল করেন ইউএনও। পরে জানতে পারি, কুশুরাতেও দুই শিক্ষার্থীকে বহিষ্কার করা হয়েছে।

হতাশা ও ক্ষোভ জানিয়ে তিনি আরও বলেন, প্রত্যেকটা বাচ্চার একি সমস্যা। কেন্দ্রেতো দেখা গেছে বাচ্চারা একটু দেখাদেখি করে। এই অপরাধে এক্সপেল করা কোন ভাবেই সম্ভব না। এখন তার ক্ষমতা আছে সে প্রয়োগ করছে। আমাদের আসলে কিছু বলার নাই। একটা বাচ্চারও কোন অ্যাভিডেন্স পায় নাই যে তারা নকল করছে। এখন এক বাচ্চার সাথে যদি আরেক বাচ্চার খাতা মিলায়। তাহলেতো সব বাচ্চাই বহিষ্কার হওয়ার কথা।

এটার একটা সুষ্ঠু তদন্ত হওয়া দরকার সে যেই হোক। একজন ম্যাজিস্ট্রেটের কাছে তো এই ধরণের ব্যবহার আশা করা যায় না। তার পাওয়ার বা পদের সাথে বিহ্যাভিয়ারেরও একটা মিল থাকতে হবে। বাচ্চারা যদি একজন আরেকজনের সাথে দেখাদেখি করে এটার জন্য ২০-২৫ মিনিট তাদের খাতা রেখে দিতো। কিন্তু এক্সপেল করাটা কোন ভাবেই কাম্য না।

সাব্বির/টিপু

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়