ঢাকা     বৃহস্পতিবার   ২৫ এপ্রিল ২০২৪ ||  বৈশাখ ১২ ১৪৩১

ডিজিটাল এজিএম-ইজিএমে সেবা দেওয়া প্রতিষ্ঠানগুলো জবাবদিহিতায় আসছে

নুরুজ্জামান তানিম || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ২২:৩০, ১৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৪  
ডিজিটাল এজিএম-ইজিএমে সেবা দেওয়া প্রতিষ্ঠানগুলো জবাবদিহিতায় আসছে

পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত কোম্পানিগুলোর বার্ষিক সাধারণ সভা (এজিএম) ও বিশেষ সাধারণ সভা (ইজিএম) হাইব্রিড এবং ডিজিটাল প্লাটফর্মে আয়োজন করার ক্ষেত্রে সেবা প্রদান করা প্রতিষ্ঠানগুলোকে নিয়ে প্যানেল করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি)। সেক্ষেত্রে ডিজিটাল প্লাটফর্মে এজিএম ও ইজিএম করার ক্ষেত্রে সেবা প্রদান করা প্রতিষ্ঠানগুলোর কর্মকাণ্ড স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতার আওতায় আসছে।

তালিকাভুক্ত কোম্পানিগুলোর ডিজিটাল প্লাটফর্মে আয়োজন করা সভাগুলোকে আরও বিনিয়োগকারী বান্ধব করার জন্য এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে পুঁজিবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা।

এখন থেকে তালিকাভুক্ত কোম্পানিগুলোর এজিএম ও ইজিএম করার ক্ষেত্রে বিএসইসির তালিকাভুক্ত সেবা প্রদান করা প্রতিষ্ঠানগুলোকে দায়িত্ব দিতে হবে। বিশেষ করে ডিজিটাল প্ল্যাটফর্ম বা অনলাইন প্ল্যাটফর্ম ব্যবহার করে অনুষ্ঠিত সভায় শেয়ারহোল্ডারদের উপস্থিতি, ভোটদান এবং অন্যান্য অধিকার নিশ্চিত করার পাশাপাশি অন্যান্য বিষয়াদি পরিপালনের নিয়ন্ত্রক কাঠামো নিশ্চিত করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

সম্প্রতি এ বিষয়ে একটি নির্দেশনা জারি করে হয়েছে বলে বিএসইসি সূত্রে জানা গেছে। নির্দেশনাটি দি ইনস্টিটিউট অব চার্টার্ড অ্যাকাউন্ট্যান্টস অব বাংলাদেশ (আইসিএবি), দি ইনস্টিটিউট অব কস্ট এন্ড ম্যানেজমেন্ট অ্যাকাউন্ট্যান্টস অব বাংলাদেশ (আইসিএমএবি) এবং ইনস্টিটিউট অফ চার্টার্ড সেক্রেটারিজ অফ বাংলাদেশ (আইসিএসবি) এর কাছে পাঠানো হয়েছে।

বিএসইসির জারি করা নির্দেশনা অনুসারে, ইন্টারনেট পরিষেবা প্রদানকারী (আইএসপি) বা বিএসইসির আইএসপি প্যানেল থেকে তালিকাভুক্ত কোম্পানি যে কোনও প্রতিষ্ঠানকে সাধারণ সভা (এজিএম/ইজিএম) এবং অনলাইন ই ভোটিং প্ল্যাটফর্ম বা সিস্টেম পরিচালনার জন্য দায়িত্ব দিতে পারবে। সেক্ষেত্রে সময়ে সময়ে জারি করা কমিশনের নির্দেশ ও আদেশ পালন করতে হবে তালিকাভুক্ত কোম্পানিগুলোকে।

নির্দেশনায় আরও বলা হয়েছে, ইস্যুকারী কোম্পানিগুলো দ্বারা নিযুক্ত স্বতন্ত্র স্ক্রুটিনাইজার এজিএম বা ইজিএম সভার নির্বাচনের যথাযথ প্রক্রিয়া পালন করবে। তালিকাভুক্ত কোম্পানিগুলোর সভার ভোটের ফলাফলের বিস্তারিত তথ্য নিশ্চিত করতে হবে। পরে সভা সমাপ্তির ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে কমিশনের কাছে প্রমাণীকৃত প্রতিবেদন জমা দেবে ইন্টারনেট প্রতিষ্ঠানগুলো।

বিনিয়োগকারীদের স্বার্থ রক্ষা এবং অধিকার নিশ্চিত করার জন্য বিএসইসি আইএসপি এবং স্বতন্ত্র স্ক্রুটিনাইজারদের তালিকাভুক্ত করার উদ্যোগ নিয়েছে বলে নির্দেশনায় জানানো হয়। এই পরিস্থিতিতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে এবং উপরে উল্লিখিত দুটি নির্দেশনা সমস্ত সিএ, সিএমএ, ইএস ফার্ম এবং ইনস্টিটিউটের সদস্যদের মধ্যে বিতরণ করার জন্য সংগঠনগুলোকে নির্দেশ দিয়েছে বিএসইসি।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, এর ফলে এজিএম গুলোতে স্বচ্ছতা বাড়বে আর বিনিয়োগকারীদের ভোটের অধিকার নিশ্চিত করা যাবে।

উল্লেখ্য, ২০২১ সালে করোনা পরিস্থিতিতে সরকারের নির্দেশনার সঙ্গে সঙ্গতি রেখে পুঁজিবাজারের কার্যক্রম পরিচালনার ক্ষেত্রে স্বাস্থ্য সুরক্ষার বিষয়টি গুরুত্ব দিয়ে তালিকাভুক্ত কোম্পানিগুলোর বিভিন্ন ধরনের সভা-সেমিনার হাইব্রিড পদ্ধতির পরিবর্তে ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মে করা সিদ্ধান্ত নেয় বিএসইসি। এরই ধারাবাহিকতায় উভয় স্টক এক্সচেঞ্জে তালিকাভুক্ত কোম্পানিগুলোর বার্ষিক সাধারণ সভা, বিশেষ সাধারণ সভা ও পরিচালনা পর্ষদ সভা ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মে আয়োজন করার নির্দেশ দেওয়া হয়। করোনা পরবর্তীতে পুনরায় হাইব্রিড ও ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মে সভা করার নির্দেশনা দেওয়া হয়। সেই নির্দেশনা অনুসরণ করে কোম্পানিগুলো বর্তমানে বিভিন্ন সভার আয়োজন করছে‌।

ঢাকা/এনএইচ

আরো পড়ুন  



সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়