ঢাকা     মঙ্গলবার   ১৮ জুন ২০২৪ ||  আষাঢ় ৪ ১৪৩১

বিসিবি টিভির মূলধন ৫০ কোটি টাকা, ১০০ টাকা মূল্যের ৫০ লাখ শেয়ার বরাদ্দ

সাইফুল ইসলাম রিয়াদ || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ২২:২৮, ১ এপ্রিল ২০২৪   আপডেট: ১২:৪৭, ২ এপ্রিল ২০২৪
বিসিবি টিভির মূলধন ৫০ কোটি টাকা, ১০০ টাকা মূল্যের ৫০ লাখ শেয়ার বরাদ্দ

বেশ আগেই ‘বিসিবি টিভি’ নামে নিজস্ব চ্যানেল নিয়ে আসার ঘোষণা দিয়েছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। লক্ষ্য পূরণে জোরে-শোরে কাজ করে যাচ্ছে দেশের ক্রিকেটের ধনী সংস্থাটি। ইতিমধ্যে ‘বিসিবি টিভি লিমিটেড’ নামে প্রাইভেট লিমিটেড কোম্পানি হিসেবে নিবন্ধন সম্পন্ন করেছে।  

১৯৯৪ কোম্পানি আইন অনুযায়ী, বিসিবি টিভি লিমিটেড জয়েন্ট স্টক থেকে নিবন্ধিত হয়েছে। যার মূলধন বা অনুমোদিত মূলধন বা অথরাইজ ক্যাপিটাল ৫০ কোটি টাকা। কোম্পানিটির শেয়ার সংখ্যা ৫০ লাখ, যার প্রতিটি শেয়ারের মূল্য ধরা হয়েছে ১০০ টাকা করে। বিসিবি টিভির নথি পর্যালোচনা করে বিষয়গুলো নিশ্চিত হয়েছে রাইজিংবিডি।

৫০ কোটি টাকা মূলধনের মধ্যে ১০ কোটি টাকা পেইড আপ ক্যাপিটাল তথা পরিশোধিত মূলধন। যার বিপরীতে ১০ লাখ শেয়ার বরাদ্ধ হয়েছে। বিসিবি প্রেসিডেন্ট নাজমুল হাসান পাপনের নামে ১টি ও ক্রিকেট বোর্ডের পক্ষে প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা নিজাম উদ্দিন চৌধুরীর নামে ৯ লাখ ৯৯ হাজার ৯৯৯টি শেয়ার আছে। 

বাকি থাকা ৪০ লাখ শেয়ার প্রয়োজন অনুযায়ী বরাদ্ধ দেওয়া হবে বলে রাইজিংবিডিকে নিশ্চিত করেছেন মিডিয়া কমিটির চেয়ারম্যান তানভীর আহমেদ টিটু। মুঠোফোনে টিটু বলেন, ‘বিসিবি টিভির মূলধন ৫০ কোটি টাকা। পরিশোধিত মূলধন ১০ কোটি। তার বিপরীতে ১০ লাখ শেয়ার বরাদ্ধ হয়েছে। একটি প্রেসিডেন্টের নামে আর বাকিগুলো সিইওর নামে। বাকি শেয়ারগুলো সময়ানুযায়ী প্রয়োজন হলে বরাদ্ধ হবে।’

প্রাইভেট লিমিটেড কোম্পানি হওয়াতে শেয়ার বাজারে যেতে পারবে না বিসিবি টিভি। তবে বোর্ডের সঙ্গে সংশ্লিষ্টতা নেই, এমন কারো নামেও শেয়ার বরাদ্ধ দেওয়া যাবে না। এমন সিদ্ধান্ত ইতিমধ্যে চূড়ান্ত করেছে বিসিবি। 

‘আমাদের তো শেয়ার মার্কেটে যাওয়ার সুযোগ নেই। তবে বাইরের কারো নামে এই শেয়ার দেওয়া হবে না। বাকি যে শেয়ারগুলো আছে তা থাকবে বিসিবির নির্বাচিত পরিচালকদের মাঝে। পরবর্তীতে যদি পরিচালক পরিবর্তন হয় নতুন যারা আসবে তার নামে এটি হবে’-বলেছেন টিটু। 

কিছু দিনের মধ্যে বিসিবি টিভির পরিচালনা কমিটি গঠন করা হবে। তবে টিভির অর্থনৈতিক লেনদেনের জন্য দুই পরিচালক মাহবুব আনাম, ইসমাল হায়দার মল্লিক ও সিইও নিজাম উদ্দিন চৌধুরী সুজন, অর্থ বিভাগের ইনচার্জ আব্দুল মান্নান দায়িত্বপ্রাপ্ত হয়েছেন। 

বিসিবি টিভিকে লাভজনক চ্যানেল হিসেবে চালাতে চায় বোর্ড। ইতি মধ্যে চূড়ান্ত হয়েছে ব্যবসায়িক মডেলও। সরকারি সব ধরনের লাইসেন্স হাতে পাওয়ার পর অবকাঠামো জনবল নিয়োগসহ শুরু হবে দৃশ্যমান কাজ। তবে চ্যানেলটির প্রধান উদ্দেশ্য ঘরোয়াসহ দেশের সব ধরনের খেলা সম্প্রচার করা। গতকাল এজিএম শেষে এমনটাই জানিয়েছেন বিসিবি প্রেসিডেন্ট। 

পাপন বলেন, ‘বাংলাদেশে সাধারণত দুটি টিভি আমাদের খেলাগুলো দেখায়। এখন তারা যে সমস্ত খেলা দেখাবে না সেগুলো আমরা দেখাব নিজেদের টিভিতে।’

‘বর্তমানে টেস্টের পাশাপাশি মেয়েদের সিরিজ ও প্রিমিয়ার লিগ চলছে। এই দুটি খেলা দেখানো হচ্ছে না। এখন আমরা চেষ্টা করব, মূল দলের খেলার পাশাপাশি বাকি খেলাগুলো দেখানোর। আমরা চাই ঘরোয়া ক্রিকেট টিভিতে দেখাতে। এটা যদি টিভিতে দেখানো হয় তাহলে ঘরোয়া ক্রিকেটের মান বাড়বে। আম্পায়ারিং নিয়ে কোনো সমস্যা হলেও ধরা পড়বে। সব মিলিয়ে আমরা সম্ভাব্য সব খেলাই দেখাতে চাচ্ছি’-আরও যোগ করেন বিসিবি প্রেসিডেন্ট।

ঢাকা/রিয়াদ/বিজয়

সম্পর্কিত বিষয়:

আরো পড়ুন  



সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়