ঢাকা     বুধবার   ২৫ মে ২০২২ ||  জ্যৈষ্ঠ ১১ ১৪২৯ ||  ২৩ শাওয়াল ১৪৪৩

স্ত্রী-সন্তানকে হত্যার অভিযোগে স্বামী আটক

নাটোর প্রতিনিধি || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৭:২৯, ২৩ জানুয়ারি ২০২২  
স্ত্রী-সন্তানকে হত্যার অভিযোগে স্বামী আটক

নাটোরে পারিবারিক কলহের জেরে স্ত্রী ও সন্তানকে শ্বাসরোধ করে হত্যার অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় নাটোর থানা পুলিশ অভিযুক্ত স্বামী আব্দুস সাত্তারকে আটক করেছে। পালাতক আছেন নিহতের শ্বশুর, শাশুড়ি ও ননদ।

রোববার (২৩ জানুয়ারি) দুপুরে শহরের চৌকিরপাড় এলাকার একটি বাসা থেকে লাশ দুটি উদ্ধার করে পুলিশ।

নিহতরা হলেন সদর উপজেলার গোয়ালডাঙ্গা এলাকার নেছের প্রামানিকের মেয়ে মাছুরা বেগম (২০) এবং মাছুরার তিন বছরের শিশু মেয়ে মাহমুদা খাতুন।

নাটোর সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মুনছুর রহমান স্থানীয় বাসিন্দাদের উদ্ধৃতি দিয়ে জানান, শনিবার রাতে ১২টার দিকে পারিবারিক কলহের জেরে আব্দুস সাত্তার তার স্ত্রী মাছুরা বেগম এবং তিন বছরের মেয়ে মাহমুদা খাতুনকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করেন। হত্যাকে আত্মহত্যা বলে চালিয়ে দেওয়ার জন্য আব্দুস সত্তার তাদের লাশ দুটি দড়ি দিয়ে ফ্যানের সঙ্গে ঝুলিয়ে রাখার চেষ্টা করেন। পরে আব্দুস সাত্তারের বোন গিয়ে মা ও মেয়ের লাশ নিজের ঘরে এনে রাখেন। 

স্থানীয় বাসিন্দারা জানান, ঘটনা জানাজানি হলে আজ (রোববার) দুপুরে লোকজন আব্দুস সত্তারের বাড়িতে যায়। এ সময় তারা মা মেয়ের লাশ দেখতে পান। তারা পুলিশকে বিষয়টি জানালে আব্দুস সত্তারের মা, বোন ও বাবা সেখান থেকে পালিয়ে যান। এ সময় স্থানীয় লোকজন আব্দুস সত্তারকে আটকে রাখে। পরে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে মা ও মেয়ের লাশ উদ্ধার করে নাটোর সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠায়। একই সঙ্গে আব্দুস সাত্তারকে আটক করে তারা। 

নিহত মাছুরার পিতা নেছের প্রামানিক বলেন, ‘কয়েক মাস আগে এনজিও থেকে ৫০ হাজার টাকার কিস্তি তুলেছিল মাছুরা। কিস্তির দিন আসলেই স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে ঝগড়া হতো। এই নিয়েই বিরোধ চলছিল দুই জনের মধ্যে।’

নাটোরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার তারেক যুবায়ের বলেন, ‘আমরা একজনকে আটক করেছি। লাশ দুটি ময়নাতদন্তের জন্য হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। প্রতিবেদন না পাওয়া পর্যন্ত এ বিষয়ে বিস্তারিত কিছু জানানো যাচ্ছেনা।’

আরিফুল/ মাসুদ

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়