ঢাকা     বুধবার   ২৯ মে ২০২৪ ||  জ্যৈষ্ঠ ১৫ ১৪৩১

ঝালকাঠিতে সড়ক দুর্ঘটনা 

হানিমুনে যাওয়া হলো না ইমরান-নিপা দম্পতির

ঝালকাঠি প্রতিনিধি || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ২০:৩৪, ১৭ এপ্রিল ২০২৪  
হানিমুনে যাওয়া হলো না ইমরান-নিপা দম্পতির

ঝালকাঠির রাজাপুর উপজেলার সাংগর গ্রামের একই পরিবার থেকে ছয়জন প্রাইভেটকারে বরিশাল যাচ্ছিলেন। ঝালকাঠির গাবখান সেতুর টোলপ্লাজায় দাঁড়িয়ে টোল দিচ্ছিলেন গাড়িটির চালক। এসময় নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে সিমেন্ট বোঝাই ট্রাক প্রইভেটকারটিকে চাপা দেয়। গাড়িতে থাকা একই পরিবারের হাসিবুর রহমান (৩২), তার স্ত্রী নাহিদা আক্তার (২৭), মেয়ে তাকিয়া (সাড়ে চার বছর), তাহমিদ (৮মাস) এবং সদ্য বিবাহিত ইমরান (২৬) ও তার স্ত্রী নিপা (২২) মারা যান। 

সদর হাসপাতালে লাশের পাশে বসে এভাবেই বিলাপ করে কথাগুলো বলছিলেন নিহত নাহিদার বোন তরিকা আক্তার। তিনি সাংগর গ্রামের আব্দুল বারেকের মেয়ে।

তরিকা আক্তার বলেন,  ছোট বোন নিপার একমাস আগে বিয়ে হয়েছে। ওদের হাতের মেহেদিও এখন পর্যন্ত মুছে যায়নি। নববিবাহিত দম্পতির ইচ্ছা ছিলো বরিশাল থেকে কুয়াকাটা গিয়ে হানিমুন করবে। কিন্তু, সেই ইচ্ছা আর পূরণ হলো না তাদের। এখন হানিমুনের পরিবর্তে অন্তিম শয়নে শায়িত হবে তাদের।

আহাজারি করে তিনি বলেন, আজ দুপুর দেড়টার দিকে সবাইকে নিয়ে খাবার খান হাসিবুর। পরে নিজের পরিবার এবং আমার ছোট বোন ও তার জামাইকে নিয়ে প্রাইভেটকারে বরিশালের দিকে রওনা হন হাসিবুর। পথিমধ্যে দুর্ঘটনায় তারা মারা যান। 

তরিকা বিলাপ করে বলেন, ‌‘ওরে নাহিদা, ওরে নিপা তোদের ছাড়া আমি কেমনে থাকবো? তোদের ছোট ছোট সন্তানদেরও আদর করে দিলাম। এটাই যদি শেষ আদর হবে জানতাম, তাহলে আরো বেশি করে আদর দিতাম।’

প্রসঙ্গত, বুধবার দুপুর ২টার দিকে সদর উপজেলার গাবখান সেতু এলাকায় খুলনা থেকে ছেড়ে আসা সেভেন রিংস সিমেন্ট বোঝাই একটি ট্রাক নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে প্রাইভেটকারকে ধাক্কা দেয়। প্রাইভেটকারটি পাশে থাকা তিনটি অটোরিকশার ওপর গিয়ে পড়ে। ঘটনাস্থলেই সাত জন নিহত হন। ঝালকাঠি সদর হাসপাতালে নেওয়ার পর ৫ জন মারা যান। গুরুতর আহতদের শের-ই-বাংলা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আরও দুই জন মারা যান।  

প্রত্যক্ষদর্শী ও পুলিশ জানায়, টোল প্লাজায় টাকা দেওয়ার অপেক্ষায় ছিল ইজিবাইক, প্রাইভেটকার মোটরসাইকেলসহ কয়েকটি গাড়ি। এ সময় সিমেন্টবাহী ট্রাকটি সামনে থাকা সব গাড়িকে ধাক্কা দিয়ে টোল প্লাজার প্রতিবন্ধক ভেঙে রাস্তার পাশে চলে যায়। এসময় নিহত ও আহতের ঘটনা ঘটে। দুর্ঘটনা তদন্তে ঝালকাঠির অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মো. রুহুল আমিনকে প্রধান করে ৪ সদস্য বিশিষ্ট তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। পুলিশ ঘাতক ট্রাকটির চালককে আটক করেছে।

অলোক/মাসুদ

সম্পর্কিত বিষয়:

আরো পড়ুন  



সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়