ঢাকা     বুধবার   ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ ||  ফাল্গুন ১৫ ১৪৩০

অদম্য তরুণ মাহমুদুল হাসান

মো. আশিকুর রহমান || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৭:৪৮, ৩ ডিসেম্বর ২০২৩  
অদম্য তরুণ মাহমুদুল হাসান

ঢাকা উদ্যান সরকারি কলেজের একাদশ শ্রেণীতে বিজ্ঞান বিভাগে লেখাপড়া করছেন মাহমুদুল হাসান। তিনি পড়াশোনার পাশাপাশি বিভিন্ন সাংগঠনিক ও সেবামূলক কাজ করে যাচ্ছেন। সর্বশেষ গ্রামের বাড়ি শরিয়তপুরের চরভয়রা উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এসএসসিতে জিপিএ-৫ পেয়ে কৃতিত্বের সঙ্গে পাশ করেন। বিভিন্ন প্রতিযোগিতামূলক আয়োজনে তার প্রাপ্তির পাল্লাও যথেষ্ট প্রশংসনীয়।

মাহমুদুলের মোবাইলের প্রতি প্রচুর ঝোঁক ছোটবেলা থেকেই। হার্ডওয়্যার ও সফটওয়্যার সংক্রান্ত প্রাথমিক সব ধারণাও ছিলো। যার সম্পূর্ণই তিনি শিখেছেন ইউটিউব থেকে। ক্লাস ফাইভে জিপিএ-৫ ও ট্যালেন্টপুলে বৃত্তি পাওয়ার পর বাবার কাছে আবদার করেন একটা মোবাইলের। বাবা খুশি হয়ে কিনেও দেয়। ওই সাড়ে চার হাজার টাকা দামের ফোন দিয়েই শুরু হয় তার শেখার জগৎ।

করোনাকালে ওয়েবসাইট, অ্যাপ, গেমস তৈরি থেকে শুরু করে গ্রাফিক্স ডিজাইন, ইউআই/ইউএক্স ডিজাইন, রোবটিক্স, প্রোগ্রামিংয়ের বিষয়ে সম্যক ধারণা অর্জন করেন। তবে সব প্রজেক্টের প্রোগ্রামিং মোবাইলে করা সম্ভব হচ্ছিলো না। বাবাকে এসএসসিতে জিপিএ-৫ পাওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়ে ল্যাপটপের আবদার করেন। এসএসসিতে জিপিএ-৫ পাওয়ার পরপরই বাবা নিজের সাধ্যের মধ্যে কিনে দেয় একটি ল্যাপটপ। এরপর শুরু হয় মাহমুদুলের নতুন অভিযাত্রা।

সময়টা ২০১৯ সাল। অষ্টম শ্রেণিতে থাকা অবস্থায় চাঁদা উঠিয়ে মানুষদের বিভিন্নভাবে সাহায্য সহযোগিতা শুরু করেন। শুরুতে নিজেদের এলাকার নামে 'ডি এম খালী ভলান্টিয়ারস' হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হলেও পরবর্তীতে 'এলিট ইয়ুথ ফাউন্ডেশন' নামে কার্যক্রম অব্যাহত রাখেন। যা সারা শরিয়তপুরে এসডিজি লক্ষ্যমাত্রা বাস্তবায়ন, সামাজিক ও তারুণ্যের উন্নয়নে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। সংগঠনটি ইতোমধ্যে ২০২১ ও ২০২২ সালে হিরো অ্যাওয়ার্ডের দেশসেরা ১০০ স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন হিসেবে মনোনীত হয়েছে। সংগঠনটিতে বর্তমানে শরিয়তপুরের পাঁচশোর বেশি তরুণ-তরুণী যুক্ত আছেন।

২০২০ এর দিকে তিনি রোবটিক্স ও ইলেকট্রনিকস নিয়ে শেখা শুরু করেন। জেলা থেকে একমাত্র শিক্ষার্থী হিসেবে বাংলাদেশ রোবট অলিম্পিয়াডের আঞ্চলিক বিজয়ী হয়ে জাতীয় পর্বে যায়। সারাদেশের তিন হাজারেরও বেশি শিক্ষার্থীদের পরাজিত করে ক্রিয়েটিভ জুনিয়র অ্যাওয়ার্ড ২০২১ লাভ করেন। ব্রাইট ক্যাম্প জুনিয়র কোডিং কনটেস্টের সেরা ১০ এ জায়গা করে নেন তিনি। এই সাফল্যগুলো যত আসছিলো, দেশের ও বিদেশের রোবটিক্স নিয়ে কাজ করা মানুষদের সঙ্গে তার পরিচিতি ততই বাড়ছিলো। ২০২১ সালে প্রতিষ্ঠা করা হয় শরিয়তপুর রোবোটিকস সোসাইটি। যার বর্তমান সদস্য সংখ্যা ৩০০ এর অধিক।

বিভিন্ন সময়ে এ পর্যন্ত পাঁচটিরও বেশি সংগঠন, আটটিরও বেশি ক্লাব এবং ৪০টির বেশি প্রজেক্টে কাজ করেছে তিনি। যার মধ্যে বেশিরভাগ প্রজেক্টই জাতীয় পর্যায়ে পুরস্কার প্রাপ্ত। জেলার প্রথম ও একমাত্র রোবটিক্স বিষয়ক ক্লাব শরিয়তপুর রোবোটিকস সোসাইটির প্রতিষ্ঠাতা তিনি। বর্তমানে এর প্রেসিডেন্ট হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। এছাড়া জেলার সবচেয়ে বড় লেখক-পাঠকদের নিয়ে প্রতিষ্ঠিত শরিয়তপুর বই পরিষদের প্রতিষ্ঠাতা ও প্রধান সমন্বয়ক হিসেবে দায়িত্বে রয়েছেন।

দেশের সবচেয়ে বড় পত্রিকা বিষয়ক অলিম্পিয়াড, নিউজপেপার অলিম্পিয়াডের শরিয়তপুর জেলা সমন্বয়কারী ও ক্লাইমেট জাস্টিস নিয়ে কাজ করা ইয়ুথ সংগঠন ইয়ুথনেট গ্লোবালের তরুণ জলবায়ু যোদ্ধা হিসেবে যুক্ত আছেন।

ইতোমধ্যে জাতীয় ও আন্তর্জাতিক বিভিন্ন প্রতিযোগিতায় সফলতার সাক্ষর রেখেছেন মাহমুদুল। তিনি শরীয়তপুর সাইন্স কার্নিভাল-২০১৯ এ জুনিয়র বিভাগে গণিত অলিম্পিয়াডের চ্যাম্পিয়ন, আইসিটি বিভাগ দ্বারা মোবাইল অ্যাপস এবং গেমস চ্যালেঞ্জ-২০২৩ এ চ্যাম্পিয়ন, রোবোটিক্স বিভাগে ক্রিয়েটিভ জুনিয়র অ্যাওয়ার্ড-২০২১, মাইক্রোসফটের এক্সেলিস্ট-২০২২ এ বিজয়ী হন।

এছাড়া তিনি বাংলাদেশ গণিত অলিম্পিয়াড-২০২০, অ্যাপরাইট হ্যাকাথন-২০২১, বাংলাদেশ জুনিয়র সায়েন্স অলিম্পিয়াড-২০২১, বাংলাদেশ রোবট অলিম্পিয়াড-২০২২, জাতীয় উচ্চ বিদ্যালয় প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতা-২০২৩, বাংলাদেশ অর্থনীতি অলিম্পিয়াড-২০২৩’তে আঞ্চলিক বিজয়ী হন।

সম্প্রতি ইউনিসেফ ও জেনারেশন আনলিমিটেডের আয়োজনে ইমাজেন ভেনচার ইয়ুথ চ্যালেঞ্জে চ্যাম্পিয়ন ও কানাডিয়ান ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশে সার্টআপ কার্নিভালে চ্যাম্পিয়ন হন তিনি।

পড়াশোনার পাশাপাশি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের পরিসর বাড়ানোর মাধ্যমে মানুষের সেবায় পৌঁছে যাওয়া ও  নিজের স্টার্টআপগুলোকে  এগিয়ে নিয়ে যাওয়াই তার লক্ষ্য। উদ্ভাবনের মাধ্যমে নিজের জেলাকে তারুণ্যের শক্তি দিয়ে সমৃদ্ধ করতে চায় মাহমুদুল।

লেখক: শিক্ষার্থী, স্নাতকোত্তর, লোকপ্রশাসন ও সরকার পরিচালনা বিদ্যা বিভাগ, জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়। 

/মেহেদী/

আরো পড়ুন  



সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়