ঢাকা     বৃহস্পতিবার   ১৮ এপ্রিল ২০২৪ ||  বৈশাখ ৫ ১৪৩১

শুধু উচ্চশিক্ষা দিয়ে কর্মসংস্থান নিশ্চিত করা কঠিন: শিক্ষামন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৯:৩১, ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৪   আপডেট: ১৯:৪৬, ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৪
শুধু উচ্চশিক্ষা দিয়ে কর্মসংস্থান নিশ্চিত করা কঠিন: শিক্ষামন্ত্রী

শিক্ষামন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী বলেছেন, ‘শিক্ষার্থীদের দক্ষতা না থাকলে শুধু উচ্চশিক্ষা দিয়ে কর্মসংস্থান নিশ্চিত করা কঠিন হয়ে পড়বে। এজন্য শিক্ষার্থীদের উচ্চশিক্ষা অর্জনের পাশাপাশি বিভিন্ন ধরনের সফট স্কিল, মূল্যবোধ এবং ভাষা জ্ঞান অর্জন করতে হবে। এছাড়াও বৈশ্বিক নাগরিক হিসেবে নিজেদের প্রতিষ্ঠিত করতে দেশের সামাজিক পরিবর্তন, অর্থনৈতিক উন্নয়ন এবং আধুনিকায়নে নবীন গ্র্যাজুয়েটদের কাজ করতে হবে।

রোববার (২৫ ফেব্রুয়ারি) বেলা ১১টায় ইউনাইটেড ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির সপ্তম সমাবর্তনে সভাপতির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

গ্র্যাজুয়েটদের উদ্দেশ্যে বলেন, আপনাদের অর্জন ও সাফল্যের পেছনে আপনাদের অভিভাবক ও শিক্ষকদের যেমন অবদান রয়েছে তেমনি রয়েছে সমাজ, দেশ ও জাতির অপরিসীম ভূমিকা। এই অবদানের কথা ভুলে গেলে চলবে না। আপনারা অত্যন্ত ভাগ্যবান যে, বিশ্ববিদ্যালয়ের উচ্চতর ডিগ্রি অর্জনের সুযোগ পেয়েছেন। আমাদের দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন ও জাতির উন্নয়নের জন্যে আপনারা সততা, নিষ্ঠা ও আন্তরিকতার মাধ্যমে আপনাদের অর্জিত জ্ঞান ও প্রজ্ঞাকে কাজে লাগাবেন- এটিই আমাদের প্রত্যাশা। 

তিনি আরও বলেন, গ্র্যাজুয়েটদের কেউ কেউ হয়তো অধিকতর উচ্চশিক্ষা গ্রহণের পথে যাবেন। তবে অধিকাংশেরই কর্মজীবন এখান থেকেই শুরু হলো। আপনাদের অর্জিত জ্ঞান ও দক্ষতা এখন বাস্তব কর্মজীবনে প্রয়োগ করতে হবে। জ্ঞান ও মেধার প্রয়োগে সৃজনশীলতা ও উদ্যোগী মনোভাব বিশেষভাবে তাৎপর্যপূর্ণ। জ্ঞান, দক্ষতা ও অভিজ্ঞতা অর্জনের সীমা বা শেষ নেই। জীবনভর তা আয়ত্ব করে আরও সাফল্য অর্জনের ধারা অব্যাহত রাখতে হবে। 

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, বর্তমান সরকারের নির্বাচনী ইশতেহারের  'স্মার্ট বাংলাদেশ: উন্নয়ন দৃশ্যমান, বাড়বে এবার কর্মসংস্থান' এই ঘোষণা অনুযায়ী শিক্ষায় রূপান্তরের কার্যক্রম চলমান রয়েছে। সরকার কর্মসংস্থানের বিষয়ে সবচেয়ে বেশি জোর দিচ্ছে। স্মার্ট বাংলাদেশে, স্মার্ট প্রজন্মের জন্য কর্মসংস্থানের সুযোগ তৈরি করতে হবে। কর্মসংস্থান সংশ্লিষ্ট যত দক্ষতা আছে, সেগুলো আমাদের কারিকুলামে নিয়ে আসার চেষ্টা চলছে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের আচার্য ও রাষ্ট্রপতি মো. সাহাবুদ্দিনের পক্ষে শিক্ষামন্ত্রী সমাবর্তনে সভাপতিত্ব করেন। এতে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের চেয়ারম্যান (অতিরিক্ত দায়িত্বপ্রাপ্ত) অধ্যাপক ড. মুহাম্মদ আলমগীর। সমাবর্তন বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন পানি সম্পদ ও জলবায়ু পরিবর্তন বিশেষজ্ঞ এবং ব্র্যাক ইউনিভার্সিটির ইমেরিটাস অধ্যাপক ড. আইনুন নিশাত।

এসময় অন্যদের মাঝে বক্তব্য দেন ইউআইইউ’র বোর্ড অব ট্রাস্টির চেয়ারম্যান হাসান মাহমুদ রাজা এবং উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আবুল কাশেম মিয়া।

বিশেষ অতিথি অধ্যাপক ড. মুহাম্মদ আলমগীর নতুন গ্রাজুয়েটদের উদ্দেশ্য বলেন, আজকের এই অর্জিত জ্ঞান ও দক্ষতা শুধু ব্যক্তি সমৃদ্ধির কাজে নয়। বরং সমাজ বা জাতি উন্নয়নের জন্যও কাজ করতে হবে। 

সমাবর্তন বক্তা অধ্যাপক ড. আইনুন নিশাত ডিগ্রিপ্রাপ্ত শিক্ষার্থীদের অভিনন্দন জানান এবং তাদের কর্মক্ষেত্রে সফলতা কামনার পাশাপাশি দেশের কল্যাণে একনিষ্ঠভাবে কাজ করার পরামর্শ দেন।

সমাবর্তনে ৩ হাজার ৯৫৪ জন শিক্ষার্থীকে স্নাতক ও স্নাতকোত্তর ডিগ্রি এবং কৃতিত্বপূর্ণ ফলাফলের জন্য চারজন শিক্ষার্থীকে স্বর্ণপদক প্রদান করা হয়। 

অনুষ্ঠানে বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য, ইউআইইউ’র বোর্ড অব ট্রাস্টির সদস্যবৃন্দ, অনুষদগুলোর ডিন, বিভাগীয় প্রধানগণ, শিক্ষক-শিক্ষিকা, কর্মকর্তা-কর্মচারী, সাংবাদিক, শিক্ষাবিদ ও সমাজের বিভিন্ন স্তরের বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন। 
 

/মেহেদী/

আরো পড়ুন  



সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়