ঢাকা     মঙ্গলবার   ১৬ এপ্রিল ২০২৪ ||  বৈশাখ ৩ ১৪৩১

ইন্দো-বাংলাদেশ স্কাউটস ফ্রেন্ডশিপ ক্যাম্পে গেছেন কুবি ছাত্রী

কুবি সংবাদদাতা || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৯:৫২, ৩ মার্চ ২০২৪   আপডেট: ১৯:৫৩, ৩ মার্চ ২০২৪
ইন্দো-বাংলাদেশ স্কাউটস ফ্রেন্ডশিপ ক্যাম্পে গেছেন কুবি ছাত্রী

দ্বিতীয় ইন্দো-বাংলাদেশ স্কাউটস ফ্রেন্ডশিপ ক্যাম্প-২০২৪ এ অংশগ্রহণ করতে ভারতে গেছেন কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় গার্ল-ইন রোভারমেট মাহবুবা মাহা। তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের লোক প্রশাসন বিভাগের ২০১৭-১৮ সেশনের ১২তম ব্যাচের শিক্ষার্থী।

রোববার (৩ মার্চ) সন্ধ্যায় বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় রোভার স্কাউটস্ গ্রুপের সিনিয়র রোভারমেট মো. তোফাজ্জল হোসেন।

জানা গেছে, এই আসরে বাংলাদেশের বিভিন্ন স্কুল, কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয়ের মোট ৩১০ জন স্কাউটস সদস্য অংশগ্রহণ করেন। গত সোমবার (২৬ ফেব্রুয়ারি) দিবাগত রাতে কুবি শিক্ষার্থী মাহাসহ তারা ঢাকা ক্যান্টনমেন্ট রেলওয়ে ষ্টেশন থেকে ট্রেনযোগে ভারতের দার্জিলিংয়ের উদ্দেশ্যে যাত্রা শুরু করেন। তারা দার্জিলিংয়ের কার্সিয়ং স্কাউটস প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে যুক্ত হন। সেখানেই মাহাসহ দেশের ৩১০ জন স্কাউটস সদস্য এ ক্যাম্পের কার্যক্রম সম্পন্ন করবেন।

কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় গার্ল-ইন রোভার স্কাউটস লিডার সহযোগী অধ্যাপক ড. জান্নাতুল ফেরদৌস জানান, 'আজ কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় রোভাররা শুধু দেশেই নয়, আন্তর্জাতিক অঙ্গণে নিজেদের প্রতিনিধিত্ব করছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথম শিক্ষার্থী হিসেবে মাহা দ্বিতীয় ইন্দো-বাংলাদেশ স্কাউটস ফ্রেন্ডশিপ ক্যাম্পে ভারতের দার্জিলিং-এ অবস্থান করেছে। সে বিশ্ববিদ্যালয়ের রোভারদের জন্য এক অনুপ্রেরণা। আমাদের কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের রোভাররা পৃথিবীর সব জায়গায় আছে, সব জায়গায় থাকবে। আমরা রোভার স্কাউটস সংগঠনে জন্য যা যা করা দরকার, সব সহযোগিতা করে যাচ্ছি। তাদের সাফল্যে আমরা আনন্দিত।'

অনুভূতি ব্যক্ত করে রোভারমেট মাহবুবা মাহা জানান, 'আমিই প্রথম কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় রোভার স্কাউটস গ্রুপের রোভারদের মধ্যে প্রথম কোনো আন্তর্জাতিক ক্যাম্পিংয়ে যুক্ত হওয়ার সুবর্ণ সুযোগ পেয়েছি। যা অত্যন্ত আনন্দের এবং গর্বের। আশা করি, এ ভ্রমণ আমার অভিজ্ঞতা ও জ্ঞানের জগৎ আরও বেশি প্রসারিত করতে সহায়তা করবে। এই বিশেষ সুযোগ করে দেওয়ার জন্য কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় গার্ল-ইন রোভার স্কাউটস গ্রুপ কর্তৃপক্ষসহ সংশ্লিষ্ট সবার কাছে চিরকৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি। এই সুযোগ বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতিটি রোভাররে মধ্যে আসুক এমনটাই প্রত্যাশা।’

/এমদাদুল/মেহেদী/

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়