ঢাকা     সোমবার   ২২ জুলাই ২০২৪ ||  শ্রাবণ ৭ ১৪৩১

চিকিৎসায় অবহেলা মেনে নেবো না: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৮:৫০, ২০ জুন ২০২৪   আপডেট: ১৯:০২, ২০ জুন ২০২৪
চিকিৎসায় অবহেলা মেনে নেবো না: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

হাসপাতাল পরিদর্শনকালে রোগীদের সঙ্গেও কথা বলেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী সামন্ত লাল সেন

স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী অধ্যাপক ডা. সামন্ত লাল সেন বলেছেন, স্বাস্থ্যমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব নেওয়ার পর ঠিক করেছি, সারা দেশের স্বাস্থ্যব্যবস্থা আমি নিজে সরজমিনে দেখব। সেটার অংশ হিসেবে ধানমন্ডি ল্যাবএইড হাসপাতালে এসেছি। আজ সকালেও আমি ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি বিভাগ পরিদর্শন করেছি। গতকালও আমি তিনটা হাসপাতাল পরিদর্শন করেছি।

তিনি বলেন, ল্যাবএইডে যারা চিকিৎসাসেবা দিচ্ছেন, তাদের সাথে কথা বলেছি। যারা চিকিৎসা নিচ্ছেন, তাদের সাথেও কথা বলেছি। এ ক্ষেত্রে আমার যেটা পর্যবেক্ষণ, সেটা হচ্ছে—আরো যত্নশীল হতে হবে। উনাদেরকে যেটা করতে হবে, তা হচ্ছে, রোগীর কোয়ান্টিটি না বাড়িয়ে সেবার কোয়ালিটির দিকে নজর দিতে হবে। অ্যান্ডোসকপি, আলট্রাসনোগ্রাফি এসব একসাথে ৭০টা না করে, সংখ্যায় কম হলেও যাতে মানসম্মতভাবে করে। গুণগত মান বজায় রাখতে হবে।

বৃহস্পতিবার (২০ জুন) দুপুরে রাজধানীর ধানমন্ডিতে ল্যাবএইড স্পেশালাইজড হাসপাতালে আকস্মিক পরিদর্শন শেষে স্বাস্থ্যমন্ত্রী ডা. সামন্ত লাল সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এসব কথা বলেন।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী ল্যাবএইড হাসপাতালের জরুরি বিভাগ, মেডিক্যাল চেকআপ রুম, অ্যান্ডোসকপি, কলোনস্কপি, সিসিইউসহ বিভিন্ন বিভাগ পরিদর্শন করেন। রেডিওলজিস্টসহ মেডিক্যাল কনসালট্যান্টদের সাথে চিকিৎসাসেবা পদ্ধতি নিয়ে বিস্তারিত কথা বলেন। হাসপাতালে আনা রোগীদের সঙ্গেও কথা বলেন মন্ত্রী।

পরিদর্শন শেষে স্বাস্থ্যমন্ত্রী আরো বলেন, আমি আরেকটি কথা বলতে চাই, যেটা গতকাল আমি এভারকেয়ার হাসপাতালেও বলেছি, প্রতিটি বড় হাসপাতালে যেন গরিব রোগীদের একটা পার্সেন্টেজ থাকে। যাতে গরিব রোগীদের জন্য চিকিৎসাসেবা নেওয়াটা সম্ভব হয়।

সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, চিকিৎসায় কোনো অবহেলা আমি মেনে নেবো না। মানুষের জীবন কিন্তু একটাই। চলে গেলে আর আসে না। 

এর পর স্বাস্থ্যমন্ত্রী ডা. সামন্ত লাল সেন রাজধানীর বাংলাদেশ স্পেশালাইজড হাসপাতাল পরিদর্শন করেন। পরিদর্শনকালে তিনি গ্যাস্ট্রোঅ্যান্টারোলজিসহ বিভিন্ন বিভাগ পরিদর্শন করে রোগী এবং চিকিৎসকদের সঙ্গে বিস্তারিত কথা বলেন এবং ডকুমেন্টশন পদ্ধতি ঠিকমতো মানা হচ্ছে কি না, তা দেখতে প্রয়োজনীয় কাগজপত্র যাচাই করেন।

বাংলাদেশ স্পেশালাইজড হাসপাতাল পরিদর্শন শেষে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, ঠিকমতো রোগীর ডকুমেন্টশন নিশ্চিত করা গেলে ভবিষ্যতে কোনো সমস্যা দেখা দিলে সেটার সমাধান করা সহজ হয়। এখানকার কর্তৃপক্ষের প্রতি আমার মেসেজ—রোগীর প্রতি আরো যত্নশীল হবেন। পাশাপাশি বিলটাও যাতে সহনীয় পর্যায়ে থাকে, সেদিকেও খেয়াল রাখতে হবে। কোয়ান্টিটির পাশাপাশি কোয়ালিটি চিকিৎসার ব্যাপারেও বলেছি তাদেরকে।

সকালে স্বাস্থ্যমন্ত্রী ডা. সামন্ত লাল সেন ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি বিভাগ পরিদর্শন করেন। পরিদর্শনকালে স্বাস্থ্যমন্ত্রী ডাক্তার ও রোগীদের সাথে কথা বলার পাশাপাশি শিক্ষার্থীদের ক্লাসরুম পরিদর্শন করেন এবং চিকিৎসাসেবার বিভিন্ন দিক নিয়ে শিক্ষার্থীদের সঙ্গে মতবিনিময় করেন। 

পরিদর্শনকালে স্বাস্থ্যমন্ত্রীর সঙ্গে ছিলেন, স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের স্বাস্থ্যসেবা বিভাগের অতিরিক্ত সচিব (হাসপাতাল অনুবিভাগ) মুহাম্মদ ওয়াহিদুজ্জামান, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের পরিচালক (হাসপাতাল) ডা. আবু হোসেন মো. মঈনুল আহসান।

এমএ/রফিক

আরো পড়ুন  



সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়