RisingBD Online Bangla News Portal

ঢাকা     বুধবার   ০২ ডিসেম্বর ২০২০ ||  অগ্রাহায়ণ ১৮ ১৪২৭ ||  ১৪ রবিউস সানি ১৪৪২

বৃদ্ধার ভিক্ষার টাকায় চলে সংসার

মাকসুদুর রহমান || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৭:৩৭, ২২ মে ২০২০   আপডেট: ১০:৩৯, ২৫ আগস্ট ২০২০
বৃদ্ধার ভিক্ষার টাকায় চলে সংসার

‘স্বামী অসুস্থ। ৪ মেয়ে। ছেলে থাকলেও সে প্রতিবন্ধী। তাই আমার অনেক বয়স হলেও বসে থাকার সুযোগ নাই, বাঁচতে তো হবে।’

সম্প্রতি রাজধানীর দিলকুশায় সাধারণ বীমা অফিসের সামনে এ প্রতিবেদকের কাছে এভাবেই ভিক্ষার করার কারণ বর্ণনা করেন বৃদ্ধা আসাতুল নেছা।

কথা বলার সময় ওই বৃদ্ধা ঠিকমতো দাঁড়িয়ে থাকতেও পারছিলেন না। শরীর কাঁপছিল তার। তবু পেটের তাগিদে ভিক্ষা করতে বের হয়েছিলেন তিনি।

আসাতুল নেছা বলেন, ‘মানিকনগর পুকুর পাড় এলাকায় বস্তিতে ভাড়া থাকি। গ্রামের বাড়ি কুমিল্লায়। এত দিন স্বামীই দিনমজুরি করে কিংবা রিকশা চালিয়ে পরিবারকে টানছিলেন। কিন্তু করোনা আসার পরপরই তিনি অসুস্থ হয়ে পড়েন। এক ছেলে থাকলেও সে প্রতিবন্ধী। কোন কাজ করতে পারে না। মতিঝিলসহ আশপাশে প্রতিদিন ভিক্ষা করি। যে টাকা পাই তা দিয়ে সংসার চালাই। বাসাভাড়ার জন্য কিছু টাকা জমা রাখতে হয়। ৩ মাসে ৬ হাজার টাকা বাড়িভাড়া বাকি পড়েছে। ভাড়া না দেওয়ায় প্রতিদিনই বাড়িওয়ালা এসে গালমন্দ করছে। কয়েকদিন ত্রাণ পেয়েছিলাম। এখন আর মানুষ তাও দিচ্ছে না। এ কারণে ভিক্ষা করতে নেমেছি।’

চোখের পানি মুছতে মুছতে তিনি বলেন, ‘কে জানত এ বয়সে আমাকে এভাবে রাস্তায় নামতে হবে। নিজের শরীরও চলে না। ৪ মেয়ে আছে। যাদের বিয়েও হয়নি। দুজন গার্মেন্টসে চাকরি করত। করোনার কারণে কারখানা বন্ধ। খাওন তো দিতে হবে। ’

সাধারণ বীমা অফিসের সামনের ফল বিক্রেতারা জানান, ওই বৃদ্ধা প্রায়ই ওই এলাকায় ভিক্ষা করেন। বয়সের ভারে চলতে না পারলেও সারা দিন রাস্তায় ঘুরে ঘুরে ভিক্ষা করেন তিনি। 

 

ঢাকা/মাকসুদ/রফিক

রাইজিংবিডি.কম

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়