RisingBD Online Bangla News Portal

ঢাকা     বৃহস্পতিবার   ০৩ ডিসেম্বর ২০২০ ||  অগ্রাহায়ণ ১৯ ১৪২৭ ||  ১৬ রবিউস সানি ১৪৪২

শর্তসাপেক্ষে জামিন পেলেন টোকন ঠাকুর

নিজস্ব প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৫:৫০, ২৬ অক্টোবর ২০২০   আপডেট: ০০:০৭, ২৭ অক্টোবর ২০২০
শর্তসাপেক্ষে জামিন পেলেন টোকন ঠাকুর

কবি ও চলচ্চিত্র নির্মাতা টোকন ঠাকুরকে মঙ্গলবার (২৭ অক্টোবর) বিচারিক আদালতে হাজির হওয়ার শর্তে জামিন দেওয়া হয়েছে।

সোমবার (২৬ অক্টোবর) ঢাকা মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আবু সুফিয়ান মোহাম্মদ নোমানের আদালত শুনানি শেষে দুই হাজার টাকা মুচলেকায় এ জামিনের আদেশ দেন।

এদিন নিউ মার্কেট থানা পুলিশ টোকন ঠাকুরকে আদালতে হাজির করে কারাগারে আটক রাখার আবেদন করেন।

টোকন ঠাকুরের পক্ষে অ্যাডভোকেট প্রকাশ রঞ্জন বিশ্বাস ও পারভেজ হাশেম জামিনের আবেদন করেন। শুনানিতে তারা বলেন, সরকারি অনুদানে চলচ্চিত্র নির্মাণকে কেন্দ্র করে মামলাটি দায়ের করা হয়েছে। আমরা সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে বারবার দরখাস্ত দিয়ে জানিয়েছি কাজ কতটুকু হয়েছে। শুটিং শেষ হয়ে গেছে। এডিটিংয়ের কাজ চলছে। লকডাউনের কারণে এডিটিংয়ের কাজটা শেষ করা যায়নি। কমিউনিকেশন গ্যাপের কারণে মামলায় গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি হয়েছে।

এ মামলা সবগুলো ধারায় জামিনযোগ্য। আজ জামিন পেলে আসামি আগামীকালই বিচারিক আদালতে আত্মসমর্পণ করবেন। কাজেই তার জামিন মঞ্জুরের প্রার্থনা করছি।

রাষ্ট্রপক্ষে সহকারী পাবলিক প্রসিকিউটর হেমায়েত উদ্দিন খান (হিরণ) জামিনের বিরোধীতা করেন।

তিনি বলেন, সরকারি অনুদানের চলচ্চিত্র নির্মাণের সময় ৮ বছর চলে গেছে। দুই ঘণ্টার চলচ্চিত্র নির্মাণ করতে আর কত বছর দরকার। ৮ বছর তো পার হয়ে গেছে। চার বছর সময় নেওয়ার পরও তার চলচ্চিত্রটির নির্মাণ শেষ করতে পারেননি। টাকা নিয়েও নির্মাণ কাজ শেষ করতে পারেননি। পরে তাদের বিরুদ্ধে মামলাটি দায়ের করা হয়। তাকে জামিন দিলে অন্যরা এধরনের কাজে উৎসাহিত হবে। এ অবস্থায় আসামির জামিন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর প্রার্থনা করেন তিনি।

উভয়পক্ষের শুনানি শেষে আদালত মঙ্গলবার (২৭ অক্টোবর) আদালতে হাজির হওয়ার শর্তে দুই হাজার টাকা মুচলেকায় তার জামিনের আদেশ দেন।

এর আগে রোববার (২৫ অক্টোবর) রাতে রাজধানীর এলিফ্যান্ট রোডের বাসা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।
 
জানা যায়, অর্থ ঋণ আদালতের একটি মামলায় ৩ অক্টোবর টোকন ঠাকুরের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা ইস্যু হয়। সেই পরোয়ানা বলেই তাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

টোকন ঠাকুর ২০১৩ সালে শহীদুল জহিরের গল্প ‘কাঁটা’ অবলম্বনে চলচ্চিত্র নির্মাণের জন্য সরকারি অনুদান পান। অনুদানের ৩৫ লাখ টাকার মধ্যে ১৩ লাখ টাকা তথ্য মন্ত্রণালয় থেকে তুলে নিলেও ওই চলচ্চিত্রের কোনও কাজ করেননি তিনি। সরকারি অর্থ আত্মসাতের অভিযোগে তথ্য মন্ত্রণালয়ের পক্ষে টোকন ঠাকুরের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়। ওই মামলায় চলতি মাসের ৩ অক্টোবর ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিম আদালত থেকে টোকন ঠাকুরের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করা হয়।

মামুন/এসএম

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়