Risingbd Online Bangla News Portal

ঢাকা     সোমবার   ১৪ জুন ২০২১ ||  জ্যৈষ্ঠ ৩১ ১৪২৮ ||  ০১ জিলক্বদ ১৪৪২

সুন্দরবনের আগুন জ্বলছে ‘ধিকিধিকি’

বাগেরহাট প্রতিনিধি || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ০৯:০৫, ৬ মে ২০২১   আপডেট: ০৯:১২, ৬ মে ২০২১
সুন্দরবনের আগুন জ্বলছে ‘ধিকিধিকি’

‘মনের আগুন জ্বলছে ধিকিধিকি’ গানের চরণের মতোই সুন্দরবনের আগুনও জ্বলছে ধিকিধিকি। আগুন নেভার একদিন পার হতে না হতেই আবারও পুড়ছে সুন্দরবনের বনভূমি।

বুধবার (৫ মে) সকালে পূর্বের আগুনের দক্ষিণ পাশে আবারও অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটে। শেষ বিকেলে আলো না থাকায় বুধবারের অভিযান সমাপ্ত করা হয়। পূর্ব সুন্দরবন বিভাগের শরণখোলা রেঞ্জের দাসে ভারানি এলাকায় তখনও আগুন জ্বলছিলো। পর্যাপ্ত আলো না থাকায়  বিকেল পাঁচটায় আগুন নির্বাপন অভিযান শেষ করেছে ফায়ার সার্ভিস। বৃষ্টি বা প্রাকৃতিক কারণে রাতের মধ্যে আগুন না নিভলে বৃহস্পতিবার (৬ মে) ভোরে আবারও আগুন নির্বাপন অভিযান শুরু করবে ফায়ার সার্ভিস।

বুধবার বিকেলে সুন্দরবন পূর্ব বন বিভাগের শরণখোলা রেঞ্জের সহকারি বন সংরক্ষক জয়নাল আবেদীন জানিয়েছেন, বন বিভাগের কিছু সংখ্যক কর্মকর্তা-কর্মচারীরা রাতেও ওই এলাকায় অবস্থান করবেন।

জয়নাল আবেদীন বলেন, সোমবার (৩ মে) দুপুরে যে আগুন লেগেছিল সকলের চেষ্টায় মঙ্গলবার (৪ মে) বিকেলে আমরা আগুন নেভাতে সক্ষম হই। কিন্তু বুধবার (৫ মে) সকালে আবারও অগ্নিকাণ্ডের স্থানের দক্ষিণ পাশের কিছু কিছু জায়গা থেকে ধোয়া বের হতে দেখা যায়। পরবর্তীতে বিভিন্ন জায়গায় আগুন জ্বলে ওঠে। এখনও অনেক জায়গায় আগুন জ্বলছে। বিকেল ৫টায় ফায়ার সার্ভিস আগুন নির্বাপন কাজ সমাপ্ত করেছে। তবে পর্যবেক্ষণের জন্য আমাদের লোকজন বনের মধ্যেই থাকবে।  

ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স, বাগেরহাটের সহকারি পরিচালক মো. গোলাম সরোয়ার বলেন, সকাল থেকে আমাদের তিনটি ইউনিট আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ করেছে। প্রথমে ২৫টি ডেলিভারি পাইপ লাগিয়ে ভোলা নদী থেকে আগুন লাগার স্থান পর্যন্ত পানি দেওয়া হয়েছে। পরবর্তীতে আরও ১০টি পাইপ লাগিয়ে অন্যান্য স্থানে পানি দেওয়া হয়েছে। বন বিভাগ ও আমাদের কর্মীরা আগুনের চারপাশে ফায়ার লাইন তৈরি করেছে। আগুন আর ছড়ানোর সম্ভাবনা নেই। এখনও আগুন জ্বলছে। পর্যাপ্ত আলো না থাকায় আমরা অভিযান সমাপ্ত করেছি। আমাদের মেশিনসহ সকল যন্ত্রপাতি বনের মধ্যে থাকছে। যদি রাতের মধ্যে আগুন নিয়ন্ত্রণে না আসে তাহলে বৃহস্পতিবার সকালে আবারও অভিযান শুরু হবে।

তিনি বলেন, সোমবারের অগ্নিকান্ডের থেকে বুধবারের আগুনের তীব্রতা ও ব্যপ্তি অনেক বেশি। আমরা ধারণা করছি অন্তত ১০ একর বন জুড়ে বিভিন্ন স্থানে বিক্ষিপ্তভাবে আগুন জ্বলছে। যে স্থানে আগুন লেগেছে ওখানে শুকনো পাতার পুরু স্তর রয়েছে। যার ফলে পানি দেওয়ার সঙ্গে সঙ্গে সম্পূর্ণ আগুন নিভে যাচ্ছে না। সাধারণ আগুনের থেকে অতিরিক্ত পানি ব্যবহার করতে হয় সুন্দরবনের আগুন নেভাতে।

উল্লেখ্য, সোমবার (৩ মে) দুপুর ১২টার দিকে শরণখোলা রেঞ্জের দাসের ভারানি এলাকায় আগুন লাগে। ফায়ার সার্ভিস, বন বিভাগ ও স্থানীয়দের প্রায় ৩০ ঘন্টার চেষ্টায় মঙ্গলবার (৪ মে) বিকেল ৫টায় আগুন নিভে যায়। পরবর্তীতে বুধবার (৫ মে) সকালে পূর্বের আগুনের দক্ষিণ পাশে আবারও অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। এই নিয়ে গেল ২০ বছরে সুন্দরবনে ২৬ বার অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটলো।

টুটুল/টিপু

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়