ঢাকা     মঙ্গলবার   ০৫ জুলাই ২০২২ ||  আষাঢ় ২১ ১৪২৯ ||  ০৫ জিলহজ ১৪৪৩

খাবার স্যালাইন ডাস্টবিনে, কুড়িয়ে নিলেন আমজনতা

পটুয়াখালী (উপকূল) প্রতিনিধি || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১০:৩৯, ২৪ মে ২০২২   আপডেট: ১০:৪১, ২৪ মে ২০২২
খাবার স্যালাইন ডাস্টবিনে, কুড়িয়ে নিলেন আমজনতা

পটুয়াখালীর দুমকি ৩১ শয্যাবিশিষ্ট হাসপাতালের শত শত খাবার স্যালাইন ডাস্টবিনে ফেলে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। সোমবার (২৩ মে) দুপুরে ফেলে দেওয়া এসব স্যালাইন কুড়িয়ে নেন সাধারণ মানুষ। স্থানীয়দের অভিযোগ, নার্সিং ইনচার্জ আয়শা মারজান স্যালাইনগুলো বিক্রি করতে নিয়ে যাওয়ার সময় স্থানীয়রা দেখে ফেললে তিনি ডাস্টবিনে ফেলে দেন। এদিকে ২০২৫ সাল পর্যন্ত স্যালাইনগুলোর মেয়াদ রয়েছে।

হাসপাতালের একজন রোগীর স্বজন ছকিনা বেগম বলেন, ‘আমি গতকাল দুপুরে হাসপাতালের সামনে দাঁড়িয়ে ছিলাম। হঠাৎ নার্সিং ইনচার্জ আয়শা মারজানকে একটি বড় ব্যাগে করে এসব স্যালাইন নিয়ে যেতে দেখি। এসময় রোগীসহ সাধারণ মানুষ দেখে ফেললে তিনি স্যালাইনগুলো পার্শ্ববর্তী ডাস্টবিনে ফেলে দেন। ’ 

দুমকি এলাকার বাসিন্দা মোসলেম মিয়া বলেন, ‘ডাস্টবিনে অনেক স্যালাইন পড়ে থাকতে দেখে সেখান থেকে ১০০ স্যালাইন বাড়িতে নিয়ে গেছি। মেয়াদ দেখলাম ২০২৫ সাল পর্যন্ত রয়েছে, এজন্য একটু বেশি নিয়েছি। 

অপর বাসিন্দা মিশু মিয়া জানান, হাসপাতালের সামনে দাঁড়িয়ে দেখেন সবাই স্যালাইন কুড়িয়ে নিচ্ছেন। তাই তিনিও ৫০ পিস নিয়েছেন।

এবিষয়ে আয়শা মারজান বলেন, ‘আমি এ ঘটনার সঙ্গে জড়িত না। এবিষয়ে আমি কিছুই জানি না। কেউ আমাকে ফাঁসাতে এ কাণ্ড ঘটাতে পারেন। ’

দুমকি উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা মীর শহিদুল শাহিন বলেন, ‘ইতোমধ্যে স্যালাইনের বিষয়ে আয়শা মারজানকে শোকজ করা হয়েছে। এসব স্যালাইন কিভাবে ডাস্টবিনে গেলো, বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে।’

ইমরান/এইচএম 

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়