ঢাকা     সোমবার   ২২ এপ্রিল ২০২৪ ||  বৈশাখ ৯ ১৪৩১

কুসিক উপ-নির্বাচন 

আমি শুধু জনগণের কাছে দায়বদ্ধ: সাককু

কুমিল্লা প্রতিনিধি || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৬:৫৬, ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২৪  
আমি শুধু জনগণের কাছে দায়বদ্ধ: সাককু

কুমিল্লা সিটি করপোরেশনের মেয়র পদের প্রার্থী মনিরুল হক সাককু বলেছেন, ‘যানজট যাতে না হয়, তাই অল্প কর্মী নিয়ে কাজ করছি। প্রচারণা চালাচ্ছি। কুমিল্লাবাসী দেখেছে, আমি কী করেছি, আর কী করিনি। সুশাসন পেতে হলে, ভোটকেন্দ্রে যেতে হবে। কোনো পক্ষের লোক আমি জানি না, আমার পোস্টার ছিঁড়ে ফেলছে। আমি নির্বাচন কমিশনে অভিযোগ দিয়েছি। আমি নাকি কালো টাকা ছড়াচ্ছি, এগুলো তারা কিভাবে বলে আমি জানি না। প্রমাণ ছাড়া এভাবে বলা ঠিক না। আমি জনগণের কাছে দায়বদ্ধ, আর কারো কাছে না। আমি বলবো, লেভেলফিল্ড রাখতে হবে। আমি যা করতে পারবো, জনগণকে সেটাই বলছি। অন্যরা অগ্রিম বলছেন কিছু কথা, এটা ঠিক না।’ 

সোমবার (২৬ ফেব্রুয়ারি) কুমিল্লা নগরীর টমসমব্রিজ ও কান্দিরপাড় নিউমার্কেট এলাকায় সিটি করপোরেশন নির্বাচনের প্রচারণা চালানোর সময় এসব কথা বলেন টেবিল ঘড়ি প্রতীকের এই প্রার্থী। 

আরও পড়ুন: ‘কালো টাকার ওপর ভর করে নির্বাচন করছেন সাককু’

মনিরুল হক সাককু বলেন, ২০১২ সালে কুমিল্লা সিটি করপোরেশন আমার হাতে তুলে দেওয়া হয়েছিল। সবকিছু গুছিয়ে, আমি আমার মতো তখন কাজ করেছিলাম। ১৫৩৮ কোটি টাকার একটি মেগা প্রকল্প নিয়েছিলাম। কিন্তু, আমি সেটার কাজ শুরু করার আগেই ক্ষমতা ছেড়ে দিতে হয়েছিল। এবার যদি মেয়র নির্বাচিত হতে পারি, তাহলে আমি নতুন আঙ্গিকে এই শহরটিকে সাজাবো। 

আরও পড়ুন: কুমিল্লা সিটি উপনির্বাচনে প্রতীক পেলেন চার মেয়রপ্রার্থী

তিনি আরও বলেন, যারা নতুন ভোটার তাদের বলবো, আপনারা যাকেই ভোট দেন না কেন অবশ্যই ভোটকেন্দ্রে যাবেন। তাহলে ভোটে যে মেয়র নির্বাচিত হবেন তাদের কাছে পরবর্তীতে দাবি তুলতে পারবেন যে, ভোটের আগে তো প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন, এখন পূরণ করছেন না কেন? আমি অতীতের চেয়ে তিনগুণ বেশি সময় দিয়ে কুমিল্লা সিটিকে একটি মেগা সিটিতে রূপ দেওয়ার চেষ্টা করবো। 

প্রসঙ্গত, মনিরুল হক সাককু ২০০৫ সালের ২১ সেপ্টেম্বর কুমিল্লা পৌরসভার চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। ২০০৯ সালে পৌর মেয়র নির্বাচিত হন। ২০১২ সালের ৫ জানুয়ারি ও ২০১৭ সালের ৩০ মার্চ টানা দুই মেয়াদে কুমিল্লা সিটি করপোরেশনের মেয়রের দায়িত্ব পালন করেন তিনি।

রুবেল/মাসুদ

আরো পড়ুন  



সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়