ঢাকা, শুক্রবার, ১৪ ফাল্গুন ১৪২৬, ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২০
Risingbd
সর্বশেষ:

মেয়র প্রার্থীদের যোগ্যতা বেড়েছে, কমেছে কাউন্সিলরদের

নিজস্ব প্রতিবেদক : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০২০-০১-২৫ ৪:২৯:৫৪ পিএম     ||     আপডেট: ২০২০-০১-২৫ ৭:২১:১৫ পিএম

সিটি নির্বাচনে মেয়র প্রার্থীদের শিক্ষাগত যোগ্যতা বাড়লেও কাউন্সিলর প্রার্থীদের শিক্ষাগত যোগ্যতা আগের চেয়ে কমেছে।

সুশাসনের জন্য নাগরিকের (সুজন) প্রাক নির্বাচনী প্রার্থী বিশ্লেষণে এ তথ্য বেরিয়ে এসেছে। প্রার্থীদের মধ্যে ব্যবসায়ী গতবারের তুলনায় বেশি বলেও বিশ্লেষণে উঠে এসেছে।

শনিবার জাতীয় প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলনে প্রতিষ্ঠিনটির পক্ষ থেকে এসব তথ্য তুলে ধরা হয়।

প্রতিবেদনে বলা হয়, নির্বাচনী রাজনীতিতে ব্যবসায়ীদের যুক্ত হওয়ার প্রবণতা ক্রমশ বৃদ্ধি পাচ্ছে। এই প্রবণতা জনপ্রতিনিধিদের জনসেবামূলক ভূমিকার পরিবর্তে বাণিজ্যিক দৃষ্টিভঙ্গিমুলক প্রবণতার প্রসার ঘটাতে পারে। এটা বিরাজনীতিকরণের ধারা শক্তিশালী হওয়ার একটা লক্ষণ।

প্রাক নির্বাচনী প্রার্থী বিশ্লেষণে বলা হয়, ঢাকা উত্তরের ৬ জন মেয়র প্রার্থীর মধ্যে ৫ জনই (৮৩.৩৩%) উচ্চশিক্ষিত। এদের মধ্যে ২ জনের (৩৩.৩৩%) শিক্ষাগত যাগ্যতা স্নাতকোত্তর ও ৩ জনের (৫০%) স্নাতক। তবে ১ জন (১৬.৬৭%) প্রার্থীর প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষা নেই। তিনি প্রগতিশীল গণতান্ত্রিক দলের প্রার্থী শাহীন খান।

ঢাকা উত্তরের ৫৪ টি ওয়ার্ডের ২৪৮ জন সাধারণ ওয়ার্ড কাউন্সিলর প্রার্থীর মধ্যে অধিকাংশ প্রার্থীর (১৫৬ জন বা ৬২.৯০%) শিক্ষাগত যোগ্যতা এসএসসি বা তার নিচে। শুধুমাত্র এসএসসির নিচেই ১২৩ জন (৪৯.৫০%)।

ঢাকা উত্তরের সর্বমোট ৩৩১ জন প্রার্থীর মধ্যে অধিকাংশের (২০৩ জন বা ৬১.৩২%) শিক্ষাগত যাগ্যতা এসএসসি বা তার নিচে। শুধুমাত্র এসএসসির নিচে ১৫৬ জন (৪৭.১৩%)।

ঢাকা উত্তরে ২০১৫ সালের নির্বাচনের তুলনায় একদিকে স্বল্পশিক্ষিত প্রার্থীর হার বেড়েছে (৫৯,৪০% এর স্থলে ৬১.৩২%), অপরদিকে উচ্চশিক্ষিত প্রার্থীর হার হ্রাস পেয়েছে (২৭.৪১% এর স্থলে ২৫.২৭%)।

ঢাকা দক্ষিণের ৭ জন মেয়র প্রার্থীর মধ্যে ৩ জন (৪২.৮৬%) উচ্চশিক্ক্ষিত। এদের মধ্যে ২ জনের (২৮.৫৭%) শিক্ষাগত যোগ্যতা স্নাতকোত্তর ও ১ আগর (১৪.২৯) স্নাতক। তবে ৩ জন (৪২.৮৬%) প্রার্থীর প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষা নেই।

ঢাকা দক্ষিণের সর্বমোট ৪০৯ জন কাউন্সিলর প্রার্থীর মধ্যে অধিকাংশের (২৬৬ জন বা ৬৫.০৩%) শিক্ষাগত যোগ্যতা এসএসসি বা তার নিচে। বিশ্লেষণে দেখা যায়, মেয়র প্রার্থীদের মধ্যে উচ্চশিক্ষিত ও স্বল্পশিক্ষিতের হার সমান (৪২.৮৬%) হলেও, কাউন্সিলর প্রার্থীদের মধ্যে স্বল্পশিক্ষিতের হার অনেক বেশি। ২০১৫ সালের নির্বাচনের প্রতিদ্বন্দ্বিতাকারী প্রার্থীদের সাথে তুলনা করলে দেখা যায় যে, স্বল্পশিক্ষিতের হার সমান রয়েছে (৬৬.৭৪)। উচ্চশিক্ষিত প্রার্থীর ক্ষেত্রে সামান্য কিছু অবনতি হয়েছে (১৯৮৩% এর হলে বর্তমানে ১৯.৩১%)।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন সুজনের প্রোগ্রাম ম্যানেজার দিলীপ কুমার সরকার। অনুষ্ঠানে সুজন সভাপতি এম হাফিজ উদ্দিন খান, সম্পাদক বদিউল আলম মজুমদার  উপস্থিত ছিলেন।

 

ঢাকা/মেহেদী/সাইফ

     
 
রাইজিংবিডি স্পেশাল ভিডিও