Risingbd Online Bangla News Portal

ঢাকা     শনিবার   ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১ ||  আশ্বিন ৩ ১৪২৮ ||  ০৯ সফর ১৪৪৩

নিজেকে ‘সুইপার ম্যান’ই মনে হয়েছে: ফারহান 

আমিনুল ইসলাম শান্ত || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ২১:১৯, ২৮ জুলাই ২০২১   আপডেট: ১২:০৯, ২৯ জুলাই ২০২১
নিজেকে ‘সুইপার ম্যান’ই মনে হয়েছে: ফারহান 

‘সুইপার ম্যান’ নাটকে মুশফিক আর ফারহান

রেডিও জকি হিসেবে ক্যারিয়ার শুরু করলেও এখন পুরোদস্তুর অভিনেতা মুশফিক আর ফারহান। ঈদুল আজহায় তার অভিনীত পাঁচটি নাটক প্রচার হয়েছে। এর মধ্যে ‘সুইপারম্যান’ দারুণ সাড়া ফেলেছে! নাটকটি কয়েকটি টিভি চ্যানেল রিজেক্ট করেছিল। এসব নানান অভিজ্ঞতাসহ নিজের কাজ ও পরিকল্পনা নিয়ে কথা বলেছেন মুশফিক আর ফারহান।   

রাইজিংবিডি: ‘সুইপার ম্যান’ নাটকের শুটিংয়ের অভিজ্ঞতা জানতে চাই। 

ফারহান: আসলে ‘সুইপার ম্যান’ নাটকের চরিত্রই শুধু নয়, এর চেয়ে আরো কঠিন চরিত্রে অভিনয় করেছি। গত ঈদুল ফিতরে আমার অভিনীত ‘সিগন্যাল’ নাটক প্রচার হয়েছে। এতে আমি চলন্ত ট্রেন থেকে লাফ দিয়েছি। ম্যানহোলে নামাটা আমার জন্য খুব বেশি চ্যালেঞ্জিং ছিল না। তবে শুটিংয়ের সময় আমার মাকে হাসপাতালে ভর্তি করাতে হয়। এটি আমার কাছে বেশি চ্যালেঞ্জিং ছিল। শুটিং চলাকালে আমার ম্যানেজার আমাকে রেখে চলে যায়। মূলত তখনই আমার খটকা লাগে, কোনো একটা সমস্যা হয়েছে। মাকে হাসপাতালে ভর্তি করে সে পুনরায় সেটে ফিরে আসে। তখন আমার আর বাবু ভাইয়ের একটি দৃশ্যের শুট হওয়ার কথা। এ পরিস্থিতিতে সে আমাকে মায়ের অসুস্থাতার খবর দেয়। তখন শুটিং চালিয়ে যাওয়াটা বড় চ্যালেঞ্জ ছিল। আসলে আল্লাহর রহমত ছিল! কারণ আমি নিজেও বুঝি নাই কীভাবে পারফর্ম করেছি। এটি ছিল নাটকটির শেষ দৃশ্য।  শুট শেষ করে বান্নাহ ভাইসহ আমরা হাসপাতালে যাই। হ্যাঁ, চরিত্রটি নিঃসন্দেহে চ্যালেঞ্জিং। কারণ যে ম্যানহোলে শুট করেছি সেটি আনহাইজেনিক ছিল। সবকিছু মিলিয়ে পরিবেশের সঙ্গে মানিয়ে নিতে হয়েছিল।

রাইজিংবিডি: ম্যানহোলে নানারকম ঝুঁকি থাকে, শটের সময়ে অস্বস্তি বোধ করেছিলেন কিনা?

ফারহান: অস্বস্তি তো কিছুটা ছিলই। আমরা তো এই পরিবেশের সঙ্গে অভ্যস্ত না। কিন্তু চরিত্রে ঢুকে গেলে এসব আর কিছু মনে হয় না। চরিত্রে যখন ঢুকে গিয়েছিলাম, তখন নিজেকে সুইপার ম্যানই মনে হয়েছে। অনুভব করেছি, এটাই আমার জীবন।

রাইজিংবিডি: নির্মাতা মাবরুর রশীদ বান্নাহর সঙ্গে আপনার কাজের অভিজ্ঞতা জানতে চাই।

ফারহান: বান্নাহ ভাইয়ের সঙ্গে আমার দীর্ঘ জার্নি। তিনিই আমাকে ক্যামেরার  সামনে নিয়ে এসেছেন। আমাদের সম্পর্ক শুধু শিল্পী-পরিচালকের নয়, আমরা ভাই। কাজের চেয়ে আমাদের সম্পর্কটা অনেক বেশি ব্যক্তিগত। এ জায়গা থেকে কাজ করলে দারুণ একটি টিমওয়ার্ক হয়।

রাইজিংবিডি: আপনাকে অ্যাকশন মুডে দেখা গেছে। অনেকে বলেন খলচরিত্রে আপনি বেশি ভালো পারফর্ম করবেন। এ বিষয়ে আপনার অভিমত কী?

ফারহান: খল, কমেডি, রোমান্টিক—কোনো চরিত্রে নিজেকে আটকে রাখতে চাই না। আমি যে ভিলেন চরিত্রে কাজ করব না তা নয়। আমি সব ধরনের চরিত্রে কাজ করতে চাই। এখন ‘সুইপার ম্যান’ হিট করেছে বলে শুধু এই ধরনের চরিত্রে কাজ করতে চাই না।

রাইজিংবিডি: আপনার কি কোনো কাঙ্খিত চরিত্র আছে?

ফারহান: আমার এমন স্পেসিফিক কোনো চরিত্র নেই, যা করলে জীবন ধন্য হয়ে যাবে। আমার খুব ছোট ক্যারিয়ার। লিড ক্যারেক্টারে অভিনয়ের বয়স হচ্ছে দুই বছর। এসব চরিত্রে কাজ করতে অধিকাংশ ক্ষেত্রে ১৭-১৮ বছর লেগে যায়। সেখান থেকে এত অল্প সময়ে আমি অনেকগুলো চরিত্রে অভিনয় করার সুযোগ পেয়েছি। গল্প, চরিত্র পছন্দ হলেই কাজটি নিয়ে ভিন্ন কিছু করার চেষ্টা করি। চরিত্র ভালো, গল্প ভালো না, আবার গল্প ভালো, চরিত্র পছন্দ হয় নাই কিংবা গল্প-চরিত্র সবই ঠিক আছে কিন্তু টেকনিক্যাল টিম ভালো না- তাহলেও আমি কাজ করি না। সবকিছু ব্যাটে বলে মিলে গেলে বাজে কাজও ভালো হয়ে যায়।

রাইজিংবিডি: ‘ঘটনা সত্য’ নাটকের বিতর্কিত বিষয়ে আপনার অভিমত জানতে চাই।

ফারহান: নিশো ভাই, মেহজাবীন ইন্ডাস্ট্রির জন্য কতটুকু করেছেন তা আমরা সবাই জানি। আসলে টানা কাজ করতে গেলে অবচেতন মনেও একটা ভুল হয়ে যায়। এই নাটকের ভুলের জন্য শিল্পী, পরিচালক, প্রযোজক ক্ষমা চেয়েছেন এবং নাটকটি সরিয়ে ফেলেছেন। মানুষ তার ভুল বুঝতে পারলে তাকে ক্ষমা করে দেওয়া উচিত।

রাইজিংবিডি: ইউটিউবে নাটকের ভিউ নিয়ে নানারকম যুক্তি-তর্ক রয়েছে… 

ফারহান: ইউটিউবের ভিউ নিয়ে নেতিবাচক কিছু বলা আমার কাছে ঠিক মনে হয় না। যখন ইউটিউব ছিল না, তখন টেলিভিশন টিআরপি নিয়ে মাতামাতি করেছে। আবার যখন ইউটিউব থাকবে না, তখন অন্য কিছু নিয়ে মাতামাতি করবে। দেখুন, ‘সুইপার ম্যান’ নাটকটি ৩/৪টি টিভি চ্যানেল রিজেক্ট করেছিল! সেই নাটকটি মানুষ দেখছে। মানুষ না দেখলে ইউটিউবে ভিউ বাড়ে না। মানুষ না দেখলে একটি নাটকের ভিউ ৫ মিলিয়ন হয় না। ভিউ এটা করে, ভিউ ওটা করে—এমন নেতিবাচক কথা ছড়ানোর কিছু নাই। মানুষের যেটা ভালো লাগবে মানুষ সেটা দেখবে, এটা আপনি কীভাবে আটকাবেন? এই ইউটিউব ভিউ থেকেও কিন্তু পাঁচটা শিল্পীর জন্ম হচ্ছে! এই ভিউয়ের সঙ্গে জড়িয়ে আছে প্রযোজকের টাকা। আপনি চাইলেই এটাকে এড়িয়ে যেতে পারেন না। আবার ভিউ সবকিছু সেটাও না। ভালো কাজ করা, ভালো কাজকে সাপোর্ট দেয়ার দায়িত্ব আমাদের।

রাইজিংবিডি: ভিউয়ের কথা মাথায় রেখেই কি ‘সুইপার ম্যান’ নাটকে অভিনয় করেছিলেন?

ফারহান: না। আমি কল্পনাও করিনি এই নাটক এতটা সাড়া ফেলবে। এত মানুষ নাটকটি দেখবে, এত আলোচনা হবে এসব কিছুই আগে ভাবিনি। সততার সঙ্গে শুধু কাজটা করে গেছি।

রাইজিংবিডি: চলচ্চিত্রে অভিনয়ের বিষয়ে কী ভাবছেন?

ফারহান: চলচ্চিত্রে কাজ করার পরিকল্পনা আছে। ভক্তরাও প্রতিনিয়ত চলচ্চিত্রে কাজ করতে বলছেন। এরই মধ্যে কয়েকটি চলচ্চিত্রে কাজের প্রস্তাবও পেয়েছি। আমি যেভাবে ভাবছি, সেই ভাবনার সঙ্গে মিলে গেলে অবশ্যই কাজ করব।     

ঢাকা/তারা

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়