ঢাকা     মঙ্গলবার   ০৫ জুলাই ২০২২ ||  আষাঢ় ২১ ১৪২৯ ||  ০৫ জিলহজ ১৪৪৩

‘তিনি মানুষকে জোড়ায় জোড়ায় সৃষ্টি করেছেন’ 

মোহাম্মদ শরীফ || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৫:১২, ২০ জানুয়ারি ২০২২   আপডেট: ১৬:৩১, ২০ জানুয়ারি ২০২২
‘তিনি মানুষকে জোড়ায় জোড়ায় সৃষ্টি করেছেন’ 

পুরুষের আবার বয়স কি! সমাজে প্রচলিত কথাটিই যেন স্মরণ করিয়ে দিলেন অ্যাডভোকেট মোহাম্মদ ইসমাইল। সম্প্রতি তিনি ৯০ বছর বয়সে বিয়ে করে আলোচনার জন্ম দিয়েছেন। গত ১৭ জানুয়ারি কুমিল্লার এই প্রবীণ আইনজীবী বিয়ে করে সংবাদ শিরোনাম হন।

কুমিল্লা আইনজীবী সমিতির পাঁচবারের নির্বাচিত সাবেক সভাপতি ইসমাইল একাকীত্ব দূর করতে ছেলেদের পরামর্শে বিয়ের পিঁড়িতে বসেন। কনে নগরীর  দেশওয়ালিপট্টির বাসিন্দা মিনোয়ারা বেগম। কনের বয়স ৪০ বছর। পাঁচ লাখ টাকা কাবিনে বিয়ে সম্পন্ন হয়। 

সংবাদ সূত্রে জানা যায়, ইসমাইলের প্রথম স্ত্রী মাহমুদা বেগম সাত বছর আগে বার্ধক্যজনিত কারণে মারা যান। এরপর একাকীত্বে ভুগছিলেন তিনি। জুনিয়র কলিগ এবং নিকটজনরা, বিশেষ করে তার সন্তানরা যখন তাকে পুনরায় বিয়ের কথা বলেন তখন তিনি রাজী হয়ে যান। তার প্রথম সংসারে পাঁচ ছেলে ও দুই মেয়ে রয়েছে। তাদের ঘরে আছে ছয় নাতি-নাতনি। এই দম্পতির অনুভূতি জানতে কথা বলেছেন রাইজিংবিডির কুমিল্লা সংবাদদাতা মোহাম্মদ শরীফ।

আরও পড়ুন : ৯০ বছর বয়সে বিয়ের পিঁড়িতে কুমিল্লার আইনজীবী

রাইজিংবিডি: কেমন আছেন? 

ইসমাইল: আলহামদুলিল্লাহ! আমরা এখন (স্ত্রীকে দেখিয়ে) পৃথিবীর সুখি দম্পতি। (এ সময় নববধূ মাছ রান্না করছিলেন। পাশে বসে তার সঙ্গে হাসি-ঠাট্টা করছিলেন তিনি।)  

রাইজিংবিডি: নববধূর হাতের রান্না খেয়েছেন?

ইসমাইল: হ্যাঁ, অবিশ্বাস্য রকমের স্বাদ! আপনিও একবার খেলে ভুলবেন না। 

রাইজিংবিডি: আপনাদের পরিচয় কীভাবে হলো?  

ইসমাইল: জীবনে একজনের মাধ্যমে অন্যজনের সঙ্গে পরিচয় ঘটে। এটাই নিয়ম। আমার কলিগ মিতুর পরিচিত ছিল তার (মিনোয়ারা বেগম))। তারপর আমরা দুজন দুজনকে দেখি। দুজনই দুজনকে পছন্দ করি, ভালোবেসে ফেলি।  

রাইজিংবিডি: মিনোয়ারা বেগম, আপনাদের বিয়ের গল্পটা শুনতে চাই। 

মিনোয়ারা: আমার গ্রামের বাড়ি ব্রাহ্মণবাড়িয়া। কুমিল্লা নগরীতে দেশওয়ালিপট্টিতে থাকতাম। মিতু আপুর বাসা আমাদের পাশেই। তিনি প্রথমে আমাকে এই বিয়ের প্রস্তাব দেন। তারপর দুজনের দেখা হয়। আমি সম্মতি দেই। এখন আমরা দুজনই অনেক খুশি। আপনারা আমাদের জন্য দোয়া করবেন।

আরও পড়ুন : ৯০ বছর বয়সে আইনজীবীর বিয়ে: মুখ খুললেন আসিফ 

রাইজিংবিডি: এটা তো আপনার দ্বিতীয় বিয়ে? 

ইসমাইল: হ্যাঁ। আমার প্রথম স্ত্রী সাত বছর আগে মারা গেছেন। আমার ৫ ছেলে ও দুই মেয়ে আছে। তারা সবাই প্রতিষ্ঠিত। তাদের সম্মতিতে দ্বিতীয় বিয়ে করেছি। তারা যদি নিষেধ করতো তাহলে হয়তো জীবনের এ পর্যায়ে এসে এমন সিদ্ধান্ত নিতাম না।  

রাইজিংবিডি: আপনি পাঁচ বারের আইনজীবী সমিতির সভাপতি। সহকর্মীদের শুভেচ্ছা কেমন পাচ্ছেন?

ইসমাইল: জন্ম মৃত্যু বিয়ে সব আল্লাহর ইচ্ছা। তিনি মানুষকে জোড়ায় জোড়ায় সৃষ্টি করেছেন। তাই আমরা নতুন জীবনে যুক্ত হয়েছি। সহকর্মী যারা জেনেছেন তারা খুশি হয়েছেন। আমাদের শুভেচ্ছা জানাতে অনেকেই বাড়িতে এসেছেন। 

রাইজিংবিডি: আপনার নতুন জীবন সুন্দর হোক। অনেক শুভ কামনা রইল।  

ইসমাইল: ধন্যবাদ। আমাদের জন্য দোয়া করবেন। 

/তারা/ 

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়