ঢাকা     শনিবার   ০২ মার্চ ২০২৪ ||  ফাল্গুন ১৮ ১৪৩০

যেভাবে বাইকের টায়ার ট্রেডের গভীরতা মাপবেন

মটো কর্নার ডেস্ক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ২০:২৮, ৯ ডিসেম্বর ২০২৩  
যেভাবে বাইকের টায়ার ট্রেডের গভীরতা মাপবেন

নিয়মিত মোটরসাইকেল চালানোর কারণে টায়ারের রবার ক্ষয় হয়। টায়ারে সমস্যা হলে যে কোনো সময় দুর্ঘটনার সম্মুখীন হতে পারেন। এই কারণে সঠিক সময়ে মোটরসাইকেলের টায়ার পরিবর্তন করা প্রয়োজন। রাইডের সুরক্ষার জন্য টায়ারের স্বাস্থ্যের সঙ্গে কখনই আপোষ করা উচিত নয়। তা্ই কখন টায়ার পরিবর্তন করতে হবে সে বিষয়ে আপনাকেই নজর রাখতে হবে। তাই স্বাভাবিকভাবেই প্রশ্ন ওঠে, কখন টায়ার পরিবর্তন করতে হবে তা বোঝা যাবে কীভাবে?

বেশ কিছু লক্ষণ রয়েছে যেগুলো দেখা দিলে টায়ার বদলের সময় এসেছে বুঝে নিতে হয়। এর মধ্যে অন্যতম একটি হচ্ছে টায়ার ট্রেড। ট্রেডের ক্ষয়ের মাত্রা দেখে টায়ার পরিবর্তেনের সময় সম্পর্কে ধারণা পাওয়া যায়। আপনি চাইলে নিজেই টায়ার ট্রেডের গভীরতা মাপতে পারেন। 

টায়ারের ট্রেড

টায়ার ট্রেড বলতে টায়ারের উপরাংশের চারপাশে ঘিরে থাকা রাবারকে বোঝায় যা রাস্তা বা মাটির সাথে সংযোগ স্থাপন করে। আর ট্রেড ডেপথ হলো, টায়ারের খাঁজের পরিমাপ যা ট্র্যাকশন এবং রাস্তায় পানি থাকলে তা সরিয়ে এগিয়ে যাওয়ায় সহায়তা করে। টায়ারের নিয়মিত ব্যবহারে এর খাঁজ ধীরে ধীরে ক্ষয় হয়। 

টায়ারের ট্রেডের গভীরতা একেক যানবাহনে একেক রকম হয়। তবে নিরাপত্তার মান অনুযায়ী, টায়ারের কেন্দ্রজুড়ে ট্রেডগুলো সাধারণত ৮ থেকে ৯ মিলিমিটার গভীর হয়। কারণ পর্যাপ্ত ট্রেড গভীরতা ভেজা ও শুকনো অবস্থায় টায়ার এবং রাস্তার মধ্যে সর্বোত্তম গ্রিপ নিশ্চিত করে। দীর্ঘদিন ব্যবহারের ফলে এই ডেপথ যদি ১ দশমিক ৬ মিলিমিটারের নিচে নেমে আসে, তাহলে বুঝতে হবে আপনার টায়ার এখনই পরিবর্তন করা উচিত। 

ট্রেড ডেপথ পরিমাপের ক্ষেত্রে খাঁজের গোড়া থেকে টায়ারের পৃষ্ঠ পর্যন্ত পরিমাপ করা হয়। এই পরিমাপ সাধারণত মিলিমিটারে (মিমি) করা হয়। ঘরে বসেই কয়েকটি উপায়ে আপনি নিজেই ট্রেডের এই গভীরতা পরিমাপ করতে পারেন।

১. স্কেল বা পরিমাপক টেপ ব্যবহার

আপনার টায়ার ট্রেড ডেপথ পরীক্ষার করার সবচেয়ে সহজ উপায় হল একটি স্কেল বা পরিমাপক টেপ ব্যবহার করা। এটি টায়ারের খাঁজে ঢোকান। স্কেলটি যেন খাঁজের উভয় দেয়ালকে স্পর্শ করে এবং খাঁজের গোড়া থেকে টায়ারের পৃষ্ঠ পর্যন্ত পরিমাপ করুন।

যদি আপনার ট্রেড ডেপথ টায়ারের কেন্দ্র জুড়ে ২ মিলিমিটার হয়, তাহলে টায়ার পরিবর্তনে করার সময় ঘনিয়ে এসেছে।  আর যদি এই পরিমাপ ১ দশমিক ৬ মিলিমিটারের নিচে হয়, তাহলে আপনার দ্রুত টায়ার পরিবর্তন করা উচিত।

২. ট্রেড ডেপথ গেজ

আপনি যদি আরও সঠিকভাবে টায়ার ট্রেড গভীরতা পরিমাপ করতে চান, তাহলে একটি ট্রেড ডেপথ গেজ ব্যবহার করুন। যেকোন অটো পার্টসের দোকানে এগুলো পাওয়া যায় এবং বেশ সস্তা।

কিছু গেজে একটি সুঁচ থাকে যা টায়ারের খাঁজে আটকে থাকে এবং একটি ছোট ডিসপ্লেতে গভীরতা দেখানো হয়। আরও বিস্তৃত পরীক্ষা করার জন্য আপনি টায়ারের অন্যান্য স্থানের ট্রেডের ক্ষেত্রেও একই কাজ করতে পারেন, যেমন কাঁধ বা পাশে। 

৩. পয়সা দিয়ে পরীক্ষা

এটি হচ্ছে, টায়ারের ট্রেড ডেপথ পরীক্ষা করার সহজতম  উপায়। আপনাকে যা করতে হবে তা হল টায়ারের খাঁজে দুই টাকার একটি কয়েন প্রবেশ করাতে হবে। এবার কয়েনটির শাপলা মুদ্রিত পৃষ্ঠটি প্রবেশ খাঁজের মধ্যে প্রবেশ করান।

যদি খাঁজের গভীরতা TWO TAKA লেখাটির K বর্ণের নিচের অংশটুকু পর্যন্ত হয়, তাহলে আপনার টায়ার পরিবর্তনের সময় ঘনিয়ে এসেছে।

আপনার বাইকটি যদি ৩০ হাজার কিলোমিটার বা তারচেয়েও বেশি চলে থাকে কিংবা আপনার বাইকের টায়ারের আয়ু তিন থেকে চার বছর হলেই নিয়মিত টায়ার ট্রেডের গভীরতার প্রতি লক্ষ্য রাখুন। ট্রেডের গভীরতা ভালো হলে স্বাভাবিকভাবেই রাস্তায় টায়ারের গ্রিপ ভালো হবে। টায়ারের যত্ন নিন, নিরাপদে রাইড করুন।

ঢাকা/শাহেদ

আরো পড়ুন  



সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়