ঢাকা, রবিবার, ১০ ফাল্গুন ১৪২৬, ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০
Risingbd
সর্বশেষ:
সরকারিভাবে চালু হচ্ছে

কর্ণফুলী জুট ও ফোরাত কার্পেট মিল

: রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৩-০১-২৫ ৪:৫৫:৫১ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৩-০১-২৬ ৯:৫২:২৪ এএম

রাইজিংবিডি২৪.কম, চট্টগ্রাম:

সরকারিভাবে পুনরায় চালু হচ্ছে চট্টগ্রামের রাঙ্গুনীয়ায় কর্ণফুলী জুট মিল ও ফোরাত কার্পেট মিল। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা শনিবার পুনঃচালুর কার্যক্রম আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধন করবেন। এদিকে জুট মিল দুটি সরকারিভাবে চালুর সিদ্ধান্তে আশার আলো জ্বলেছে সংশ্লিষ্ট সবার মনে। সরকারের এই সিদ্ধান্ত পাটজাত পণ্য উৰপাদন বৃদ্ধি বেড়ে যাবে বলে আশা করা হচ্ছে।

গত ৯ ফেব্র“য়ারি পরিবেশ মন্ত্রণালয়ের এক সভায় জলবায়ু ট্রাস্ট ফান্ডের ৩৫কোটি ৬৮ লাখ টাকায় বাংলাদেশ পাট কল করপোরেশনের (বিজেএমসি) তত্ত্বাবধানে মিল দুইটি চালুর সিদ্ধান্ত হয়। ওই সভায় পরিবেশ বান্ধব পাটজাত পণ্য উৎপাদন প্রকল্পের আওতায় কর্ণফুলী জুট মিলের জন্য ১৯ কোটি ৯৮ লাখ এবং ফোরাত কার্পেট ফ্যাক্টরির জন্য ১৫ কোটি ৭০ লাখ টাকা বরাদ্দ দেয়া হয়।

ওই মিল দুইটি গত চারদলীয় জোট সরকারের আমলে বন্ধ করে দেয়া হয়েছিল। এতে বেকার হয়ে পড়েন দেড় হাজারের অধিক শ্রমিক-কর্মচারী। ২০০৮ সালে বেসরখারি খাতে মিল দুইটি পুনরায় চালু হলেও চাকরিচ্যুতদের কেউ চাকরি ফিরে পাননি। মহাজোট সরকার ক্ষমতায় আসার পর মিল দুইটি সরকারিভাবে চালুর জন্য শ্রমিক-কর্মচারীরা আন্দোলন শুরু করে। এ ব্যাপারে করণীয় ঠিক করতে প্রধানমন্ত্রী রাঙ্গুনীয়ার সংসদ সদস্য পরিবেশ ও বনমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদকে দায়িত্ব দেন। হাছান মাহমুদ সরেজমিনে পরিদর্শন করে মিল দুইটি বিজেএমসি’র অধীনে চালুর আশ্বাস দেন।

ড. হাছান মাহমুদ বাসসকে জানান, ‘মিল দুইটি সরকারিভাবে পুনঃচালু করার বিষয়টি আমার নির্বাচনী অঙ্গীকার। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নিজ হাতে উদ্বোধনের মধ্যদিয়ে রাঙ্গুনিয়াবাসীর কাক্সিক্ষত কর্ণফুলী জুট মিল ও ফোরাত কার্পেট মিল আবার সরকারিভাবে কার্যক্রম শুরু করবে।’ এছাড়াও প্রধানমন্ত্রী একইদিন চট্টগ্রামে নব প্রতিষ্ঠিত চারটি সরকারি চিকিৎসা প্রতিষ্ঠানের উদ্বোধন ও একটি বেসরকারি মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের নতুন ভবন নির্মাণ কাজের উদ্বোধন করবেন।

জেলা প্রশাসন সূত্রে জানা গেছে, প্রধানমন্ত্রী সকাল ৯টা ৪০ মিনিটে হেলিকপ্টারযোগে চট্টগ্রাম শহরের পলোগ্রাউন্ড মাঠে অবতরণ করবেন। এখান থেকে সরাসরি ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশনে যাবেন। সেখানে প্রকৌশলীদের জাতীয় কনভেনশনে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন। দুপুর সাড়ে বারোটায় প্রধানমন্ত্রী আসবেন চট্টগ্রাম সার্কিট হাউজে।

এখানে অবস্থান করেই প্রধানমন্ত্রী চমেক হাসপাতালের কার্ডিয়াক সার্জারি ইউনিট, ফৌজদারহাটস্থ বাংলাদেশ ইনস্টিউট অব ট্রপিক্যাল এন্ড ইনফেকশাস ডিজিসেস, চট্টগ্রাম নার্সিং কলেজ, ইনস্টিটিউট অব হেলথ টেকনোলজি উদ্বোধন করবেন এবং চট্টগ্রাম মা ও শিশু হাসপাতালের ৮৫০ শয্যার নতুন ভবনের নির্মাণ কাজের উদ্বোধন করবেন।

দুপুর দুইটায় প্রধানমন্ত্রী হেলিকপ্টারযোগে রাঙ্গুনীয়ার উদ্দেশ্যে যাত্রা করবেন। ওখানে তিনি কর্ণফুলী এবং ফোরাত জুত মিল সরকারিভাবে পুনঃচালুর প্রক্রিয়া উদ্বোধন করবেন। এরপর প্রধানমন্ত্রী রাঙ্গুনীয়া পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে উপজেলা আওয়ামী লীগ আয়োজিত জনসভায় ভাষণ দেবেন। বিকেলেই রাঙ্গুনীয়া থেকে হেলিকপ্টারযোগে প্রধানমন্ত্রীর ঢাকায় ফিরে যাওয়ার কথা রয়েছে।

তবে আবহাওয়া দুর্যোগপূর্ণ হলে প্রধানমন্ত্রী সড়ক পথে চট্টগ্রাম থেকে রাঙ্গুনীয়া যাবেন। এক্ষেত্রে প্রশাসনের পক্ষ থেকে যাবতীয় প্রস্তুতি গ্রহণ করা হয়েছে বলে জেলা প্রশাসন সূত্রে জানা গেছে।