ঢাকা, সোমবার, ৯ আশ্বিন ১৪২৫, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮
Risingbd
সর্বশেষ:

চার দিনব্যাপী সফটওয়্যার মেলা শুরু

মনিরুল হক ফিরোজ : রাইজিংবিডি ডট কম
 
     
প্রকাশ: ২০১৮-০২-২২ ৩:২১:৩৮ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৮-০২-২২ ৩:২৫:৩৬ পিএম

বিজ্ঞান-প্রযুক্তি ডেস্ক : ডিজাইনিং দ্য ফিউচার- স্লোগান নিয়ে বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে শুরু হয়েছে বেসিস সফটএক্সপো ২০১৮। ২২-২৫ ফেব্রুয়ারি চার দিনব্যাপী আয়োজনের উদ্বোধন করেছেন প্রধান অতিথি অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তিমন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত বলেন, ‘বাংলাদেশের তথ্যপ্রযুক্তিখাতের অগ্রগতির সাক্ষ্য বহন করছে বেসিস সফটএক্সপো। এই সফটএক্সপোর মাধ্যমে বাংলাদেশের তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানগুলো যে আন্তর্জাতিক মানের সেবা দিতে সক্ষম সেটা স্পষ্টতই বোঝা যাচ্ছে।’

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তিমন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার বলেন, ‘ভাষার মাসে বাংলাদেশের তথ্যপ্রযুক্তি খাতের অগ্রগতির অন্যতম মাইলফলক বেসিস সফটএক্সপো ২০১৮। এবারের আয়োজন পরিসরে যেমন বড় তেমনি বিশ্ব অঙ্গণে বাংলাদেশের তথ্যপ্রযুক্তি খাতের অগ্রগতির পরিচয়ও বহন করছে।’

বেসিস সফটএক্সপোর আহবায়ক মোস্তাফিজুর রহমান সোহেল বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ডিজিটাল বাংলাদেশের স্বপ্ন বাস্তবায়নে একযোগে কাজ করছে তথ্যপ্রযুক্তি বিভাগ ও বেসিস। এ লক্ষ্যে প্রতিবছরের মতো এবারও দেশিয় তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানের সক্ষমতা তুলে ধরার লক্ষ্যে আয়োজন করা হয়েছে বেসিস সফটএক্সপো।’

অনুষ্ঠানে হলোগ্রাফিক রোবট মায়ার সাহায্যে সফটএক্সপোর উদ্বোধন করেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত।

বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব সফটওয়্যার অ্যান্ড ইনফরমেশন সার্ভিসেস (বেসিস) আয়োজিত তথ্যপ্রযুক্তির বৃহত্তম প্রদর্শনী সফটএক্সপোতে এবার প্রায় দুইশো দেশি-বিদেশি তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান পণ্য ও সেবা প্রদর্শন করছে। প্রদর্শনী এলাকাকে চারটি ভাগে ভাগ করা হয়েছে। রয়েছে সফটওয়্যার সেবা প্রদর্শনী জোন, উদ্ভাবনী মোবাইল সেবা জোন, ডিজিটাল কমার্স জোন, আইটিইএস ও বিপিও জোন। থাকছে ৩০টিরও বেশি তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিষয়ক সেমিনার, যেখানে বক্তব্য রাখবেন এক শতাধিক দেশি-বিদেশি তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিশেষজ্ঞ।

দেশি-বিদেশি ব্যবসায়ীদের জন্যে থাকছে বি-টু-বি ম্যাচমেকিং সেশন। যার মাধ্যমে ব্যবসায়ীরা নিজেদের ব্যবসার প্রসার খুব সহজেই করতে পারবেন। পাশাপাশি থাকছে আইটি জব ফেয়ার জোন, যেখান থেকে দেশি-বিদেশি তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানগুলোতে কাজের সুযোগ থাকছে। থাকছে ইনোভেশন জোন যেখানে বেসিস স্টুডেন্ট ফোরামের শিক্ষার্থীসহ বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা নিজেদের প্রজেক্টগুলো তুলে ধরবেন। থাকবে মানবসদৃশ রোবট বঙ্গবীর, ব্যাংরোসহ আরো অনেক উদ্ভাবনী প্রজেক্ট।

বেসিসের সভাপতি সৈয়দ আলমাস কবীর বলেন, ‘দেশের সফটওয়্যার প্রতিষ্ঠানগুলোর সম্প্রসারণে এই এক্সপোর আয়োজন করা হয়েছে। দেশের সফটওয়্যারের নিজস্ব চাহিদা পূরণে সক্ষমতা প্রদর্শন ও আস্থা তৈরিই এ প্রদর্শনীর লক্ষ্য।’

আরো জানতে ভিজিট: www.softexpo.com.bd, www.facebook.com/BASIS.SoftExpo

 


রাইজিংবিডি/ঢাকা/২২ ফেব্রুয়ারি ২০১৮/ফিরোজ

Walton Laptop
 
     
Walton