ঢাকা, বুধবার, ১২ আষাঢ় ১৪২৬, ২৬ জুন ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

‘ওয়ালটন ফ্রিজ সাশ্রয়ী হওয়ায় সন্তানের আবদার রাখতে পেরেছি’

জনি সোম : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৯-০৩-১৩ ৫:৪৩:৩৯ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৯-০৩-১৩ ৭:৪০:০০ পিএম
মোহাম্মদ মিজানের হাতে ১ লাখ টাকার ক্যাশ ভাউচার তুলে দেন ওয়ালটনের উত্তরা জোনের এরিয়া ম্যানেজার মওদুদ পারভেজ মামুন এবং অ্যাসিস্ট্যান্ট ডিরেক্টর নাজমুল হোসেন ইভানসহ অন্যরা
Walton AC 10% Discount

জনি সোম : সন্তানরা বায়না ধরেছে।এই গরমে বাসার জন্য তারা বাবার কাছে একটি ফ্রিজ চায়। কিন্তু পোশাক কারখানার কর্মী মোহাম্মদ মিজানের জন্য তা সহজ ছিল না। তারপরও সন্তানদের আবদার মেটাতে সাশ্রয়ী দামে সেরা মানের ফ্রিজ কিনতে তিনি যান ওয়ালটন শোরুমে। সেই ফ্রিজ কিনেই পেয়েছেন ১ লাখ টাকার ক্যাশ ভাউচার। যা দিয়ে আরো অনেক গৃহস্থালি পণ্য তো কিনেছেনই, তিন বোনকে দিয়েছেন তিনটি ফ্রিজ।

মিজানের বাড়ি ঝালকাঠিতে। তবে পোশাক কারখানায় চাকরির সুবাদে স্ত্রী-সন্তানদের নিয়ে স্থায়ীভাবে থাকছেন ঢাকার কাফরুলে। তিন বোন ও এক ভাইয়ের মধ্যে মেজো তিনি। পাঁচ বছর আগে বাবা পাড়ি জমিয়েছেন না ফেরার দেশে।

রাজধানীর কালশী মোড়ে ওয়ালটনের এক্সক্লুসিভ ডিলার শোরুম গ্রীন হিল ইলেকট্রনিকসের ম্যানেজার মোহাম্মদ ইলিয়াস জানান, ওই শোরুম থেকে গত ২৫ ফেব্রুয়ারি ২২ হাজার টাকায় একটি ওয়ালটন ফ্রিজ কেনেন মিজান। এরপর ডিজিটাল ক্যাম্পেইন সিজন-৪ এ রেজিস্ট্রেশন করে ১ লাখ টাকার ক্যাশ ভাউচার পান তিনি।

ভাগ্যবান ক্রেতা মিজান দুই সন্তানের জনক। এক ছেলে এবং এক মেয়ে তার। তিনি বলেন, সামনে গ্রীষ্মকাল। এখনই গরম একটু একটু করে বাড়ছে। ছেলে-মেয়ে দুজনেরই আবদার এবার বাসায় তারা নতুন একটি ফ্রিজ চায়। আমি সামান্য গার্মেন্টস কর্মী। নতুন ফ্রিজ কেনা আমার জন্য কষ্টসাধ্য ব্যাপার। কিন্তু ওয়ালটন ফ্রিজ সাশ্রয়ী মূল্যের এবং গুণগত মানসম্পন্ন হওয়ায় ছেলে-মেয়ের আবদার রাখতে পেরেছি। অল্প বাজেটেও একটি ভালো মানের বড় সাইজের ফ্রিজ কিনতে পেরেছি। আবার ১ লাখ টাকাও পেয়েছি।

মিজান জানান, ক্যাশ ভাউচারের ১ লাখ টাকা দিয়ে তিনি আরো তিনটি ফ্রিজ, একটি এসি, একটি ব্লেন্ডার এবং বেশকিছু গৃহস্থালি পণ্য নিয়েছেন। নতুন কেনা ফ্রিজগুলো থেকে তিন বোনকে একটি করে ফ্রিজ দিয়েছেন।

ওয়ালটন পণ্যের প্রশংসা করে তিনি আরো বলেন, এটা আমার জীবনের প্রথম পুরস্কার। খুবই ভালো লাগছে। ওয়ালটন ফ্রিজ বিদ্যুৎসাশ্রয়ী হওয়ায় বাড়তি বিল নিয়েও আমি চিন্তিত নই।

মিজান জানান, বোনদের ফ্রিজ দিতে পেরে তিনি অত্যন্ত আনন্দিত। এজন্য ওয়ালটনের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন তিনি।

গত ৪ মার্চ লাখ টাকার ক্যাশ ভাউচারে কেনা পণ্যগুলো তার হাতে তুলে দেওয়া হয়। এ সময় উপস্থিত ছিলেন ওয়ালটনের উত্তরা জোনের এরিয়া ম্যানেজার মওদুদ পারভেজ মামুন, অ্যাসিস্ট্যান্ট ডিরেক্টর নাজমুল হোসেন ইভান, বাজার সমিতির সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক এবং গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ।

ওয়ালটন সূত্রে জানা গেছে, নতুন বছর এবং ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলা উপলক্ষে গত ৯ জানুয়ারি থেকে দেশব্যাপী ডিজিটাল ক্যাম্পেইন চালাচ্ছে প্রতিষ্ঠানটি। এবার চলছে এই আয়োজনের ৪র্থ পর্ব বা সিজন ফোর। এর আওতায় ওয়ালটন পণ্য কিনে রেজিস্ট্রেশন করলেই ক্রেতারা পাচ্ছেন সর্বোচ্চ ১ লাখ টাকার ক্যাশ ভাউচার। আছে মোটরসাইকেল, এয়ার কন্ডিশনার, ল্যাপটপ, ফ্রিজ, এলইডি টিভি, ওভেনসহ অসংখ্য পণ্য ফ্রি পাওয়ার সুযোগ। এসব না মিললেও রয়েছে নিশ্চিত ক্যাশব্যাক। এ সুবিধা থাকবে পরবর্তী ঘোষণা না দেওয়া পর্যন্ত।

বিক্রয়োত্তর সেবা আরো সহজতর করতে গ্রাহকদের অনলাইন ডাটাবেজ তৈরির জন্য ডিজিটাল ক্যাম্পেইন চালাচ্ছে ওয়ালটন। গত বছর ১ এপ্রিল থেকে ৩০ জুন পর্যন্ত চালানো ডিজিটাল ক্যাম্পেইন সিজন-১ এর আওতায় ওয়ালটন পণ্য কিনে আমেরিকা ও রাশিয়া ভ্রমণের ফ্রি বিমান টিকিট পেয়েছিলেন বেশ কয়েকজন ক্রেতা। সিজন-২ ও ৩ এ হাজার হাজার ক্রেতা ফ্রি পেয়েছেন নতুন গাড়ি, মোটরসাইকেল, ফ্রিজ, টিভি, এসিসহ বিভিন্ন ওয়ালটন পণ্য।



রাইজিংবিডি/ঢাকা/১৩ মার্চ ২০১৯/জনি সোম/অগাস্টিন সুজন/রফিক

Walton AC
     
Walton AC
Marcel Fridge