ঢাকা     সোমবার   ২২ এপ্রিল ২০২৪ ||  বৈশাখ ৯ ১৪৩১

মালয়েশিয়ায় নির্মাণাধীন ভবন থেকে পড়ে বাংলাদেশির মৃত্যু 

এস এ সৌরভ, মালয়েশিয়া  || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ২২:৫১, ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৪  
মালয়েশিয়ায় নির্মাণাধীন ভবন থেকে পড়ে বাংলাদেশির মৃত্যু 

মালয়েশিয়ায় নির্মাণাধীন ভবন পড়ে মো. শামীম খান নামের এক বাংলাদেশির মৃত্যু হয়েছে। মঙ্গলবার দুপুরে (১২ ফেব্রুয়ারি) দেশটির রাজধানী কুয়ালালামপুরের দামানসারায় নির্মাণাধীন ভবনের ১৩ তলা থেকে পড়ে যান শামীম। গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে চুঙ্গাই বুলুহ হাসপাতালে নিয়ে যান সহকর্মীরা। সেখানে চিকিৎসক শামীমকে মৃত ঘোষণা করেন। 

যশোরের ঝিকরগাছা থানার মধিখালী গ্রামের ফজলু খানের ছেলে শামীম ২০১৫ সালে মালয়েশিয়ায় পাড়ি জমান। মালয়েশিয়ায় থাকা শামীমের ফুফাতো ভাই মনির হোসেন জানান, চলতি বছরেই দেশে ফিরে বিয়ে করার কথা ছিল শামীমের।  

হাসপাতালের হিমাগারে রাখা শামীমের মরদেহ দ্রুত দেশে আনতে সরকারের সহযোগিতা চেয়েছে তার পরিবার। 

মালয়েশিয়ায় বাংলাদেশ দূতাবাসের প্রথম সচিব (শ্রম) সুমন চন্দ্র দাশ বলেছেন, বাংলাদেশের কোনো নাগরিক মালয়েশিয়ায় মারা গেলে এবং তা হাইকমিশনের নজরে আসার সঙ্গে সঙ্গে সর্বোচ্চ আন্তরিকতা ও গুরুত্বের সঙ্গে কাজ করা হয়। ডকুমেন্টেড অথবা আনডকুমেন্টেড যেকোনো কর্মীর মৃত্যু হলে লাশ দেশে পাঠানোর জন্য ডেথ সার্টিফিকেট, মেডিক্যাল রিপোর্ট, পুলিশ ক্লিয়ারেন্স ও কাসকেট কোম্পানি নিয়োগের প্রয়োজন হয়। ডকুমেন্টেড কর্মীর দুর্ঘটনাজনিত মৃত্যু হলে ইন্সুরেন্স  বাবদ ক্ষতিপূরণপ্রাপ্তি সময়সাপেক্ষ বিষয়। কিন্তু, হাইকমিশন যেকোনো মৃত্যুর ক্ষেত্রে কোম্পানির কাছ থেকে তাৎক্ষণিক ক্ষতিপূরণ আদায়ের জন্য নিরলসভাবে কাজ করে থাকে। কোনো কোম্পানিই স্বাভাবিকভাবে ক্ষতিপূরণ দিতে চায় না বা দিতে চাইলেও সেক্ষেত্রে গড়িমসি করে। যেকোনো পরিমাণ ক্ষতিপূরণ আদায়ে আমাদের অনেক বেগ পেতে হয়। লাশ পাঠাতে এ দেশে আইনি প্রক্রিয়া সম্পন্ন ও ক্ষতিপূরণ আদায়ের চেষ্টার কারণে কোনো কোনো লাশ পাঠাতে কিছু সময় বেশি লাগে। এক্ষেত্রে মৃত ব্যক্তির স্বজনরা অধৈর্য হয়ে পড়েন এবং কখনো কখনো আমাদেরকে ভুল বোঝেন। 

নিহতের পরিবারকে ধৈর্য ধারণের আহ্বান জানিয়ে সুমন চন্দ্র দাশ বলেন, স্বাভাবিক মৃত্যুর ক্ষেত্রে আবেদনপ্রাপ্তি সাপেক্ষে তিন থেকে চার ঘণ্টার মধ্যে হাইকমিশনের পক্ষ থেকে প্রয়োজনীয় পত্র ইস্যু করা হয়। প্রবাসীদের সুরক্ষা ও কল্যাণ নিশ্চিতে বদ্ধপরিকর হাইকমিশন।

হাসান/রফিক

আরো পড়ুন  



সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়