ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ২১ নভেম্বর ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে আমরণ অনশন

জামালপুর সংবাদদাতা : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৯-১০-২২ ১১:৫৭:১৬ এএম     ||     আপডেট: ২০১৯-১০-২২ ১১:৫৭:৪০ এএম

পৈত্রিক ভিটে মাটি হারিয়ে জামালপুর জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে আমরণ অনশনে বসেছে কৃষক নুরুল ইসলামের পরিবার।

বিষয়টি জামালপুর শহরের অনেকের মনেই কৌতুহলের সৃষ্টি করেছে। কেউ কেউ পরিবারটির জন্য আক্ষেপও করছেন। সোমবার দুপুরে অনশনে বসার পর থেকেই বিষয়টি এখন শহরে আলোচিত।

অনশন থেকে ওই কৃষকের মেয়ে চায়না বেগম স্থানীয় আওয়ামী লীগের নেতৃবুন্দে বিরুদ্ধেই অভিযোগের আঙ্গুল তুলেছেন। তিনি বলেন, ’শহর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বিজন কুমার চন্দ, জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক জাফর ইকবাল জাফু ও সদস্য সরোয়ার হোসেন শান্তর নেতৃত্বে ভুমিদস্যুরা হামলা চালিয়ে দরজা ভাংচুর করে আসবাবপত্র বিছানা এমনকি হাড়ি পাতিলও লুট করে পিকআপ ভ্যান দিয়ে নিয়ে গেছে।’

চায়না বেগম বলেন, ‘এ সময় আমার মা মলেদা বেগমের বুকের উপর চড়ে জামাল ডাকাতের ছেলে সবুজ পিস্তল ঠেকিয়ে অন্য সন্ত্রাসীরা আমাদের মারধর করে উচ্ছেদ করে। ৩দিন ধরে পরের বাড়িতে আশ্রয় নিয়ে অর্ধহারে অনাহারে পরিবার পরিজন নিয়ে মানবেতর জীবনযাপন করছি। সন্ত্রাসীরা প্রাণনাশের হুমকি দিচ্ছে। তাদের ভয়ে বাড়িতে ফিরতে পারছিনা।’

তিনি বলেন, ‘থানায়  গেলে পুলিশ মামলা নিচ্ছে না, বলছে প্রভাবশালীদের বিরুদ্ধে  মামলা নিতে পারবো না, আদালতে মামলা  করার পরামর্শ দেন। আমরা কোথাও বিচার না পেয়ে আমরণ অনশনে বসেছি। আমাদের উপর হামলা, নির্যাতন ও বসতভিটা জবর দখলকারীদের দৃষ্টান্তমুলক শাস্তির দাবি জানাই।’

এদিকে একই দিনে জামালপুর প্রেসক্লাব মিলনায়তনে সমমনা বহুমুখি সমবায় সমিতির ব্যানারে সংবাদ সম্মেলন করেন শহর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সমিতির সভাপতি বিজন কুমার চন্দ। সম্মেলনে  তিনি বলেন, ‘সমিতির নামে সাবেক সভাপতি আলহাজ জাকির হোসেনের নামে ১৫ শতাংশ জমি ক্রয় করেছি, জমির খারিজও রয়েছে। নুরুল ইসলামকে দেখভালের দায়িত্ব দেই। নুরুল ইসলাম ডিজিটাল সার্ভে মাঠ জরিপের সময় দখলদার হিসেবে লিপিবদ্ধ করান, প্রকৃতপক্ষে এই জমির মালিক নুরুল ইসলাম নন।’

সংবাদ সম্মেলনে জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক জাফর ইকবাল জাফু, সদস্য সরোয়ার হোসেন শান্তসহ সমিতির অন্যান্য সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

প্রসঙ্গত, জামালপুর শহরের বামুন পাড়া এলাকায় ১৯ অক্টোবর শহর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বিজন কুমার চন্দ, জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক জাফর ইকবাল জাফু ও সদস্য সরোয়ার হোসেন শান্ত’র নেতৃত্বে কৃষক নুরুল ইসলামের বাড়িতে হামলা চালিয়ে ভাংচুর লুটপাট পরিবারটিকে উচ্ছেদ করে ১৫ শতাংশ জমি জবরদখল করা হয়। পরদিন জামালপুর প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করে নুরুল ইসলামের পরিবার এর বিচারের দাবিতে প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করেন।


জামালপুর/ শওকত জামান/টিপু

ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন