Risingbd Online Bangla News Portal

ঢাকা     মঙ্গলবার   ০২ মার্চ ২০২১ ||  ফাল্গুন ১৭ ১৪২৭ ||  ১৭ রজব ১৪৪২

চাঁদা না দিলেই ফসলের মাঠে তাণ্ডব

মেহেরপুর প্রতিনিধি || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ২২:৪৮, ১৯ জানুয়ারি ২০২১  
চাঁদা না দিলেই ফসলের মাঠে তাণ্ডব

চাঁদা দিতে না পারায় পেঁয়াজের খেত নষ্ট করে দিয়েছে দুর্বৃত্তরা

মেহেরপুরের মুজিবনগরের রশিকপুর এলাকায় চাঁদাবাজদের হাতে জিম্মি হয়ে পড়েছেন কৃষকরা। নীরবে চলছে চাঁদাবাজি। এদের হাত থেকে রক্ষা পেতে কেউ কেউ গোপনে চাঁদা দিচ্ছেন। তবে কেউ তা দিতে না পারলে, বা দিতে অস্বীকার করলে তার খেতের ফসলে তাণ্ডব চালাচ্ছে দুর্বৃত্তরা।

স্থানীয়দের দেওয়া তথ্য মতে, মুজিবনগর উপজেলার রশিকপুর গ্রামের কাদের গাজীর ছেলে বাবলু গাজীর গাঁয়ের কোল মাঠের এক বিঘা জমির ধান, জয়নুদ্দিনের ছেলে মতিয়ার রহমানের এক বিঘা জমির পেঁয়াজ, রবির ১০ কাঠা জমির পেঁয়াজ এবং ইলাম শেখের ছেলে জয়নুদ্দিনের ১০ কাঠা জমির পেঁয়াজ কেটে দিয়েছে দুর্বৃত্তরা। এদের মধ‌্যে জয়নুদ্দিনের খেতের পেঁয়াজ দুবার করে কেটে দেওয়া হয়েছে।

এভাবে নীরবে অত‌্যাচার সহ‌্য করে আসছিলেন কৃষকরা। কেউ মুখ খুলছিলেন না। সম্প্রতি ক্ষতিগ্রস্ত কৃষক মতিয়ার রহমান মুজিবনগর থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেন। এরপর একে একে মুখ খুলতে শুরু করেছেন কৃষকরা।

ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকরা জানান, প্রায় এক মাস ধরে অজ্ঞাত স্থান থেকে ফোন করে চাঁদা দাবি করছে দুর্বৃত্তরা। চাঁদা না দিতে পারলে রাতের আঁধারে এভাবে কৃষকের ধান, গম, ভুট্টা বা পেঁয়াজ কেটে নষ্ট করে দিচ্ছে।

মতিয়ার রহমান বলেন, ‘আমার কাছে ৬০ হাজার টাকা দাবি করা হয়। ফয়জুদ্দিনের কাছে একলাখ। আমরা চাঁদা দিতে পারিনি বলে ফসল নষ্ট করে দিয়েছে।’

মতিয়ার রহমান জানান, এভাবে রশিকপুর এলাকার ১৯ জন কৃষকের কাছে ৫০ হাজার থেকে একলাখ টাকা করে দাবি জানিয়ে চাঁদা আদায়ের চেষ্টা চলছে। অনেকে চাঁদা দিয়ে রেহাই পেয়েছে। আবার অনেকে চাঁদা না দেওয়ায় তাদের ফসল কেটে নষ্ট করা হয়েছে। চাঁদা না দিলে এভাবে ফসল নষ্ট করা হবে হুমকি অব‌্যাহত রেখেছে দুর্বৃত্তরা।

মুজিবনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুল হাশেম বলেন, ‘ফসল কেটে নষ্ট করার কথা শুনেছি। সম্প্রতি মতিয়ার রহমান নামের এক কৃষক থানায় সাধারণ ডায়েরি করেছেন। কতজন চাঁদাবাজির শিকার হয়েছেন তা আমার জানা নেই। থানায় আর কোনো অভিযোগও আসেনি। অভিযোগ পেলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেবে পুলিশ।’

তিনি আরও বলেন, ‘মেহেরপুরের পুলিশ সুপারের নির্দেশে মোবাইল ট্রাকিংয়ের মাধ‌্যমে চাঁদাবাজদের চিহ্নিত করার চেষ্টা চলছে।’

মহাসিন আলী/সনি

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়