RisingBD Online Bangla News Portal

ঢাকা     শুক্রবার   ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২১ ||  ফাল্গুন ১৩ ১৪২৭ ||  ১৩ রজব ১৪৪২

বেল্লালের কণ্ঠে বিভিন্ন প্রাণীর অবাক করা ডাক

সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১০:২১, ২২ জানুয়ারি ২০২১   আপডেট: ১১:৩২, ২২ জানুয়ারি ২০২১

সিরাজগঞ্জের বেল্লাল আকন্দ (৬৭)। পেশায় ভ্যান চালক। বিভিন্ন পশু-পাখির ডাক হুবহু তুলে আনতে পারেন নিজের কণ্ঠে। হরবোলায় তার পারদর্শিতা যে কাউকে মুগ্ধ করবে। মনে হবে আশপাশেই হাঁস, মুরগি, ব‌্যাঙ, শেয়াল, বিড়ালসহ বিভিন্ন প্রাণী ডাকছে।

সিরাজগঞ্জের তাড়াশ উপজেলার ঝুরঝুরি লক্ষ্মীকোলা গ্রামের মৃত আবুল আকন্দের ছেলে বেল্লাল আকন্দ।

ঝুরঝুরি বাজার থেকে সলঙ্গা যাওয়ার জন‌্য তার ভ‌্যানে ওঠেন রফিক শেখ। তার আগে ‘শিয়াল বেল্লাল’ বলে ডাক দেন। ডাক শুনে ভ্যান নিয়ে হাজির বেল্লাল। 

অপরিচিত দুজন যাত্রীও তার ভ্যানে ওঠেন। কাণ্ড দেখে তারা খানিকটা বিব্রত। এমন নাম কারও হয় নাকি? বিষয়টি জানতে তারা উসখুস করতে থাকেন। পরে একসময় মুখ ফুটে জিজ্ঞাসা করেই ফেলেন। 

বেল্লালকে বলেন, ‘ভাই আপনাকে শিয়াল বেল্লাল বলে ডাক দেওয়ামাত্রই হাজির হলেন। এনামে ডাকার কারণ কী?’ 

কোনো উত্তর দেন না বেল্লাল। মুচকি হাসেন। তারপর শুরু করেন শিয়ালের ডাক। এরপর একে একে হাঁস, মুরগি, ব‌্যাঙ প্রভৃতি প্রাণির ডাক হুবুহু ডেকে তাক লাগিয়ে দেন যাত্রীদের।

বেল্লালের এই প্রতিভার কথা এলাকার কারও অজানা নয়। নিজের প্রতিভা এলাকাবাসীকে প্রতিদিনই দেখান তিনি। এতে নিজেও আনন্দ পান। অন‌্যরাও পায়। 

বিষয়টি এখন আর এলাকার মধ‌্যেই সীমাবদ্ধ নেই। তার এই হরবোলা প্রতিভা দেখার জন‌্য বিভিন্ন এলাকা থেকে ডাক আসে। বিভিন্ন সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে নিয়মিত ডাক পড়ে বেল্লালের। ইতোমধ‌্যে প্রচুর দর্শকের ভালোবাসা কুড়িয়েছেন বেল্লাল।

বেল্লালের এই প্রতিভার কারণে স্থানীয় যুবক ও মুরব্বীরা তাকে পাখি বেল্লাল, হাঁস বেল্লাল, শিয়াল বেল্লালসহ নানা নামে ডাকে। তবে এসবে মন খারাপ করেন না বেল্লাল। মানুষের ভালোবাসার অত‌্যাচার হাসি মুখেই মেনে নেন।

হরবোলায় বেল্লালের এই সাধনা দীর্ঘ ৪০ বছরের। শুরুতে বাবা-মা বাধা দিয়েছেন। তবে ধীরে ধরে সেসব বাধা কেটে গেছে। বরং ছেলের এমন প্রতিভায় খুশিও হয়েছেন। এখন তার সন্তানরাও খুশি বাবার প্রতিভায়।

বেল্লাল আকন্দ বলেন, ‘বাড়িতে হাঁস-মুরগি আছে। এরা কীভাবে ডাকে সেটা খেয়াল করতাম। তাদের মতো ডাকার চেষ্টা করতাম। ধীরে ধীরে যখন ডাক ঠিকঠাক হতে লাগলো, আনন্দ পেতাম। সেই আনন্দই আমাকে প্রাণিদের ডাক কণ্ঠে তুলে আনতে উৎসাহ যুগিয়েছে।’

তিনি বলেন, ‘সকাল থেকে বিকেল পর্যন্ত ভ্যান চালিয়ে যা উপার্জন হয়, তা দিয়ে স্ত্রী-সন্তানদের নিয়ে ভালোই চলছে সংসার। তিন ছেলে। দুই ছেলে বিয়ে করে বউ নিয়ে ঢাকায় থাকে। ছোট ছেলে রনি আকন্দ লেখা-পড়া করছে।’

স্থানীয় দোকানদার রফিক শেখ বলেন, ‘বেল্লাল ভালো মনের মানুষ। এই প্রতিভার কারণে আমরা তাকে বিভিন্ন নামে ডাকি। তিনি একজন রসিক মানুষও বটে। বিভিন্ন নামে তাকে ডাকলেও কখনও মন খারাপ করতে দেখিনি। আমরা তার মঙ্গল কামনা করি।’

সিরাজগঞ্জ/সনি

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়