Risingbd Online Bangla News Portal

ঢাকা     শনিবার   ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১ ||  আশ্বিন ৩ ১৪২৮ ||  ০৯ সফর ১৪৪৩

দৃষ্টান্ত স্থাপন করলেন ট্রাফিক পুলিশের সহকারী সার্জেন্ট

কুষ্টিয়া প্রতিনিধি || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৩:৩০, ২৫ জুলাই ২০২১   আপডেট: ১৩:৪৫, ২৫ জুলাই ২০২১
দৃষ্টান্ত স্থাপন করলেন ট্রাফিক পুলিশের সহকারী সার্জেন্ট

কুষ্টিয়া জেলা পুলিশের সহকারী সার্জেন্ট লিটন সরকার পুরাতন একটা আলমারি কিনেছিলেন। ঘরে নেওয়ার পর দেখেন সেই আলমারির ড্রয়ারে ৭০ হাজার টাকা। সেই টাকা প্রকৃত মালিকের হাতে ফিরিয়ে দিয়ে সততা ও দায়িত্বের অনন্য দৃষ্টান্ত দেখালেন এই সদস্য।

লিটন সরকার থাকেন কুষ্টিয়া শহরের কাস্টম মোড় এলাকায় পুলিশ সুপারের বাংলোর কাছেই। কিছুদিন আগে এক প্রতিবেশির মাধ্যম ৫ হাজার টাকায় একটি পুরাতন আলমারি কেনেন। সপ্তাহ খানেক আগে তিনি আলমারির মধ্যে তালাবন্ধ একটি ড্রয়ার দেখতে পান। ড্রয়ারের চাবি যার কাছে ছিল, তিনি প্রায় দেড় বছর আগে মারা গেছেন। ড্রয়ারটি খোলার ব্যবস্থা করেন। খুলতেই হলুদ একটি খাম পাওয়া যায়। তাতে লেখা, ‘আমার অবর্তমানে কান্তা ও কল্লোল সমান সমান পাবে। তাদের সন্তানদের জন্য সামান্য উপহার। তোমাদের মা।’

খামটির ভেতরে পাওয়া যায় ৭০ হাজার টাকা। প্রায় দেড় বছর আগে মারা যাওয়া ওই মায়ের রেখে যাওয়া এই টাকা পেয়ে অবাক হয়ে যান লিটন সরকার। এরপর কান্তাকে নিজ বাড়িতে ডেকে এনে টাকাগুলো বুঝিয়ে দেন।

লিটন বলেন, ‘নীরবে এ দায়িত্ব পালন করতে চেয়েছিলাম। শুধু স্মৃতি হিসেবে মোবাইল ফোনে ছবি তুলে রাখি। পরে মোবাইল থেকে ছবি নিয়ে ফেসবুকে পোস্ট করেন ট্রাফিক সার্জেন্ট আব্দুল্লাহ আল শাকিল। সেই পোস্ট ভাইরাল হলে জানাজানি হয়ে যায়।’

লিটন বলেন, ‘আমি চাইনি এটা নিয়ে লেখালেখি হোক। টাকা পেয়েছি, যাদের টাকা তাদের ফেরত দিয়েছি। এটা আমার দায়িত্ব মনে করেছি। তাই করেছি।’

লিটন জানান, কান্তাকে বাসায় ডেকে এনে এক সপ্তাহ আগেই টাকাগুলো বুঝিয়ে দিয়েছেন তিনি। এ সময় কান্তাকে খুব উচ্ছসিত দেখায়। এর মধ্যে শাশুড়ি মারা যাওয়ায় গ্রামের বাড়িতে চলে যান কান্তা।

কুষ্টিয়ার পুলিশ সুপার খাইরুল আলম বলেন, ‘লিটন সরকার ট্রাফিক পুলিশের সদস্য। তিনি নিজের ও পুলিশ বাহিনীর মুখ উজ্জ্বল করেছেন। আমাদের তাকে পুরস্কৃত করার পরিকল্পনাও আছে।’

কাঞ্চন/টিপু

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়