ঢাকা     শুক্রবার   ১৯ এপ্রিল ২০২৪ ||  বৈশাখ ৬ ১৪৩১

খুলনার মাঠে দুই নারী প্রার্থী 

মুহাম্মদ নূরুজ্জামান, খুলনা || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৭:৩১, ২০ ডিসেম্বর ২০২৩  
খুলনার মাঠে দুই নারী প্রার্থী 

আগামী ৭ জানুয়ারি অনুষ্ঠেয় দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ভোটের লড়াইয়ে প্রস্তুত নারী প্রার্থীরাও। তবে নির্ধারিত নারী আসনে নয়, বরং পুরুষদের পাশাপাশি প্রতিযোগিতা করেই নির্বাচিত হতে চান খুলনার দুই নারী প্রার্থী। হতে চান তারা এমপি। নির্বাচনে জয়ের ব্যাপারে আশাবাদীও তারা।

খুলনার ছয়টি আসনের মধ্যে ২টি আসনে দুই নারী প্রার্থী ভোটের লড়াইয়ে মাঠে নেমেছেন। তারা হলেন- খুলনা-৩ আসনে স্বতন্ত্র প্রার্থী ফাতেমা জামান সাথী ও খুলনা-৪ আসনে বাংলাদেশ কংগ্রেসের মনিরা সুলতানা।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, জাতীয় সংসদে ৩৫০টি আসনের মধ্যে ৫০টি আসন রয়েছে নারীদের জন্য সংরক্ষিত। বাকি ৩০০ আসনে রাজনৈতিক দলগুলো প্রার্থী মনোনয়ন দেন। থাকে স্বতন্ত্র প্রার্থীও। এবারে ভোটের লড়াইয়ের মাঠে পুরুষের পাশাপাশি নারীরাও রয়েছেন। তারা মনে করছেন, সংরক্ষিত আসন নয় বরং জনগণের প্রত্যক্ষ ভোটে নির্বাচন করার যোগ্যতা রাখেন তারা।

সবশেষ তথ্য অনুযায়ী, এবারের নির্বাচনে ছয়টি আসনের মধ্যে খুলনা-৩ (দৌলতপুর-খালিশপুর-খানজাহান আলী) আসনে তিনজন পুরুষ সংসদ সদস্য প্রার্থীর পাশাপাশি ভোটের মাঠে ‘ঈগল’ প্রতীক নিয়ে লড়ছেন আওয়ামী লীগের স্বতন্ত্র প্রার্থী ফাতেমা জামান সাথী। এই আসনটিতে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন আওয়ামী লীগের ‘নৌকা’ প্রতীকের প্রার্থী এস এম কামাল হোসেন, জাতীয় পার্টির ‘লাঙ্গল’ প্রতীকের প্রার্থী মো. আব্দুল্লাহ আল মামুন ও জাকের পার্টির ‘গোলাপ ফুল’ প্রতীকের প্রার্থী এসএম সাব্বির হোসেন।

অপরদিকে খুলনা-৪ (রূপসা-তেরখাদা-দিঘলিয়া) আসনে ৯জন পুরুষ প্রার্থীর পাশাপাশি ‘ডাব’ প্রতীক নিয়ে ভোটের মাঠে লড়ছেন বাংলাদেশ কংগ্রেসের মনিরা সুলতানা। এই আসনটির অন্যান্য প্রার্থীরা হলেন- আওয়ামী লীগের ‘নৌকা’ প্রতীকের প্রার্থী আব্দুস সালাম মুর্শেদী, জাতীয় পার্টির ‘লাঙ্গল’ প্রতীকের প্রার্থী মো. ফরহাদ আহমেদ, ন্যাশনাল পিপলস পার্টির (এনপিপি) ‘আম’ প্রতীকের প্রার্থী মো. মোস্তাফিজুর রহমান, তৃণমূল বিএনপির ‘সোনালী আঁশ’ প্রতীকের প্রার্থী শেখ হাবিবুর রহমান, ইসলামী ঐক্যজোটের ‘মিনার’ প্রতীকের প্রার্থী রিয়াজ উদ্দীন খান, বিএনএম এর ‘নোঙর’ প্রতীকের প্রার্থী এস এম আজমল হোসেন, স্বতন্ত্র ‘ট্রাক’ প্রতীকের প্রার্থী মো. জুয়েল রানা, স্বতন্ত্র ‘সোফা’ প্রতীকের প্রার্থী এমডি এহসানুল হক ও স্বতন্ত্র ‘ঈগল’ প্রতীকের প্রার্থী মো. রেজভী আলম।

খুলনা-৩ আসনে স্বতন্ত্র প্রার্থী ফাতেমা জামান সাথী বলেন, ‘আমি সক্ষম হব সর্বদলের মানুষকে ভোটকেন্দ্রে নিতে। অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচন হবে। সেখানে দলমত নির্বিশেষে সবাই ভোট কেন্দ্রে আসবেন এবং তাদের আনতে আমি সক্ষম হব। এটা আমার প্রধান প্রতিশ্রুতি। সাধারণ জনগণ পাশে আছেন। জয়ের বিষয়ে আমি আশাবাদী।’

খুলনা-৪ আসনে বাংলাদেশ কংগ্রেসের মনিরা সুলতানা বলেন, ‘নারীরা এখন অনেক এগিয়ে গেছে। বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীও তো নারী। আমিও একজন নারী, আমার জন্য সবাই দোয়া করবেন। আমি আশাবাদী এগিয়ে যাবো। আল্লাহর রহমতে কোনো সমস্যা হবে না।’

খুলনা জেলা রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, এবারের নির্বাচনে খুলনার ছয়টি আসনে ১০টি দল ও স্বতন্ত্র প্রার্থী মিলিয়ে মোট ৩৪ প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এর মধ্যে আওয়ামী লীগের ৬, জাতীয় পার্টির ৬, তৃণমূল বিএনপির ৩, বাংলাদেশ কংগ্রেসের ৩, বিএনএম-এর ৩, এনপিপির ২, জাকের পার্টির ১, বাংলাদেশ সাংস্কৃতিক মুক্তিজোটের ১, ওয়ার্কার্স পার্টির ১ ও ইসলামী ঐক্যজোটের ১ জন প্রার্থী রয়েছেন। এছাড়া স্বতন্ত্র প্রার্থী রয়েছেন ৭ জন।

মাসুদ

ঘটনাপ্রবাহ

আরো পড়ুন  



সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়