ঢাকা     শুক্রবার   ১৯ জুলাই ২০২৪ ||  শ্রাবণ ৪ ১৪৩১

নির্বাচনের টানা ছুটিতে বাড়ি ফিরছে মানুষ, মহাসড়কে যানজট 

নিজস্ব প্রতিবেদক, গাজীপুর  || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৯:৫৬, ৪ জানুয়ারি ২০২৪  
নির্বাচনের টানা ছুটিতে বাড়ি ফিরছে মানুষ, মহাসড়কে যানজট 

আসন্ন দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন উপলক্ষে টানা কয়েক দিনের ছুটি পেয়ে কর্মজীবী মানুষেরা ঢাকা থেকে বাড়ি ফিরতে শুরু করেছে। এতে ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কে দীর্ঘ যানজটের সৃষ্টি হয়েছে। এছাড়াও বৃহস্পতিবার (৪ জানুয়ারি) বিকেলে ধামরাইয়ের জিরানি এলাকায় বেতনের দাবিতে পোশাক শ্রমিকরা মহাসড়কে অবস্থান নেয়, এতে যানজট আরও বৃদ্ধি পেয়েছে।

নির্বাচন উপলক্ষে আগামী ৭ জানুয়ারি সরকার সাধারণ ছুটি ঘোষণা করেছে। এর আগের দুই দিন ৫ ও ৬ জানুয়ারি সাপ্তাহিক ছুটি। এর সঙ্গে ভোটের বিভিন্ন দায়িত্বপালন করা শিক্ষক-কর্মকর্তা ও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ভোটকেন্দ্রে স্থাপন হওয়ায় বিষয়টি বিবেচনায় নিয়ে ভোটের পরের দিন ৮ জানুয়ারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। আবার শ্রমিকদের ভোট দেওয়ার বিষয় বিবেচনায় নিয়ে অনেক শিল্পকারখানা ৬ জানুয়ারি বন্ধ দিয়েছে। এর ফলে কেউ টানা তিন দিন, আবার কেউ চার দিনের ছুটি পেয়েছে। ছুটি শুরু হয়েছে শুক্রবার (৫ জানুয়ারি) থেকে। ফলে বৃহস্পতিবার (৪ জানুয়ারি) অফিস শেষে মানুষ কর্মস্থল ছেড়ে বাড়ির উদ্দেশে যেতে শুরু করেছে। এতে যানবাহনে ভিড় বেড়েছে এবং যানবাহনের সংখ্যা বাড়ায় সড়কে যানজট হচ্ছে।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কের জিরানি এলাকা থেকে চন্দ্রা পর্যন্ত বিকেল হতেই থেমে থেমে যানজটের সৃষ্টি হয়। এর আগে জিরানি এলাকায় একটি পোশাক কারখানার শ্রমিকরা বকেয়া বেতনের দাবিতে বিক্ষোভ করে। একপর্যায়ে বিক্ষোভকারী শ্রমিকরা মহাসড়কে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কে অবস্থান নেয়। এতে মহাসড়কে ঘণ্টাব্যাপি যান চলাচল বন্ধ থাকে।

আব্দুল মোমিন নামে এক যাত্রী বলেন, ‘কারখানা ছুটি হয়েছে, এ জন্য ভোট দিতে গ্রামের বাড়ি রওনা হয়েছি। কিন্তু রাস্তায় যানজট। জিরানি এলালায় ২ ঘণ্টার মতো বসে ছিলাম। পরে শ্রমিকরা রাস্তা হতে সরে গেলে গাড়ি চলতে থাকে।’

নাওজোর হাইওয়ে পুলিশের ওসি সাহাদাত হোসেন সন্ধ্যার দিকে বলেন, একটি কারখানা শ্রমিকরা মহাসড়কে অবস্থান নেয়। এতে সড়কে চাপ সৃষ্টি হয়েছে। যে চাপ এখনো রয়েছে। এছাড়াও তিন দিনের ছুটি থাকায় উত্তরবঙ্গের লোকজন বাড়িতে যাচ্ছে, এতেও সড়কে যানবাহনের চাপ বেড়েছে।
 

রেজাউল/বকুল

সম্পর্কিত বিষয়:

ঘটনাপ্রবাহ

আরো পড়ুন  



সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়