ঢাকা     শুক্রবার   ১৯ এপ্রিল ২০২৪ ||  বৈশাখ ৬ ১৪৩১

ছবি তুলে না দেওয়ায় কলেজ সহকারীর ওপর হামলার অভিযোগ

নারায়ণগঞ্জ সংবাদদাতা || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ২০:২১, ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৪  
ছবি তুলে না দেওয়ায় কলেজ সহকারীর ওপর হামলার অভিযোগ

শহিদ মিনারে ফুল দেওয়ার সময় মাইক দিয়ে নাম ডাকতে দেরি হওয়ায় ও ফুল দেওয়ার ছবি না তোলায় সোনারগাঁও সরকারি কলেজের অফিস সহকারী জাহাঙ্গীর হোসেনের ওপর হামলার অভিযোগ উঠেছে কয়েকজন যুবকের বিরুদ্ধে। গতকাল বৃহস্পতিবার ঘটনাটি ঘটে। শুক্রবার (২৩ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে আহত জাহাঙ্গীরের স্ত্রী ফারজানা আক্তার বাদী হয়ে সোনারগাঁও থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন।

অভিযুক্তরা হলেন- সোনারগাঁও উপজেলার দমদমা গ্রামের মো. জাকির হোসেনের ছেলে মো. জাহিদ(২৫), মো. সৈয়দ হোসেনের ছেলে মো. মাহিম (২৪) ও ফুলবাড়িয়া গ্রামের মো. মোমেনের ছেলে আশিক (২৬)। 

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, ২১ ফেব্রুয়ারি আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসে সোনারগাঁও সরকারি কলেজের শহিদ মিনারে ফুল দেওয়ার সময় মাইক দিয়ে নাম ডাকতে দেরি হওয়ায় ও ফুল দেওয়ার  ছবি না তোলার কারণে কিছু যুবক জাহাঙ্গীর হোসেনকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করেন। পরের দিন ২২ ফেব্রুয়ারি বিকেলে অভিযুক্তরা এক শিক্ষার্থীকে ভর্তি করাতে কলেজে যান। কলেজে ভর্তির নির্ধারিত সময় অতিক্রম হওয়ায় কলেজ কর্তৃপক্ষ ওই শিক্ষার্থীকে ভর্তি নিতে অস্বীকৃতি জানান। কলেজে ভর্তি করাতে না পেরে ক্ষিপ্ত হয়ে বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে অভিযুক্তরা এবং নাম না জানা আরও ৪/৫ জন মিলে জাহাঙ্গীর হোসেনকে কলেজের বাইরে লোহার রড, এসএস পাইপ দিয়ে মারধর করে জখম করে। এতে জাহাঙ্গীর হোসেনের হাতের কব্জির হাড় ভেঙ্গে যায় এবং পায়ের হাটু থেতলে যায়। চিৎকার শুনে কলেজ কর্তৃপক্ষ এগিয়ে এসে জাহাঙ্গীরকে উদ্ধার করে সোনারগাঁও উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন।

ভুক্তভোগীর স্ত্রী ফারজানা আক্তার বলেন, আমার স্বামীকে যারা অন্যায় ভাবে মেরেছে আমি তাদের বিচার চাই। আমার স্বামীর কাছ থেকে তারা ১৫ হাজার টাকা দামের একটি মোবাইল ফোন এবং সাড়ে ১২ হাজার টাকাসহ মানিব্যাগ ছিনিয়ে নিয়েছে।

সোনারগাঁও থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কামরুজ্জামান বলেন, আমরা অভিযোগ গ্রহণ করেছি। তদন্ত করে দোষীদের বিরুদ্ধে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

অনিক/মাসুদ

সম্পর্কিত বিষয়:

আরো পড়ুন  



সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়