RisingBD Online Bangla News Portal

ঢাকা     বৃহস্পতিবার   ২১ জানুয়ারি ২০২১ ||  মাঘ ৭ ১৪২৭ ||  ০৬ জমাদিউস সানি ১৪৪২

‘আমার ১২ বছরের ছেলের ক্রিকেট বোধ রমিজের চেয়ে ভালো’

ক্রীড়া ডেস্ক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১২:০২, ২৩ নভেম্বর ২০২০   আপডেট: ১২:০৭, ২৩ নভেম্বর ২০২০
‘আমার ১২ বছরের ছেলের ক্রিকেট বোধ রমিজের চেয়ে ভালো’

পাকিস্তানের সাবেক ক্রিকেটার ও বর্তমান ধারাভাষ্যকার রমিজ রাজার বয়স ৫৮ বছর। এরমধ্যে ক্রিকেট মাঠেই ক্যারিয়ারের ২০ বছর পার করেছেন রমিজ। তবুও পাকিস্তানের এই সাবেক ক্রিকেটারের ক্রিকেট বোধ নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন স্বদেশী আরেক ক্রিকেটার মোহাম্মদ হাফিজ। পাকিস্তান জাতীয় দলের এই ক্রিকেটার নিজের ১২ বছরের ছেলের ক্রিকেট বোধকে রমিজ রাজার চেয়ে ভালো বলে দাবি করেছেন।

ঘটনার সূত্রপাত অবশ্য আরও আগের থেকে। ২০১৯ ক্রিকেট বিশ্বকাপের পরপরই রমিজ রাজা নিজের ইউটিউব চ্যানেলে এক আলোচনায় অবসর নিতে বলেন হাফিজ ও শোয়েব মালিককে। এই দুই ক্রিকেটারের উদ্দেশ্যে বলেন, সম্মানজনক বিদায় নিতে তখন সরে যেতে এবং তরুণদের সুযোগ করে দিতে।

এর প্রতি উত্তর হিসেবে হাফিজ বলেছিলেন, ‘রমিজ ভাই আমার বন্ধু। মতামত দেওয়ার অধিকার উনার আছে।’ তবে এরপরেও হাফিজ ও মালিককে নিয়ে সমালোচনা চালিয়ে গেছেন রমিজ। যেখানে তিনি বলেছেন, পাকিস্তান ক্রিকেটের ভালোর জন্যই তাদের খেলা ছেড়ে দেওয়া উচিত।

হাফিজ এতদিন মুখের কথায় এ নিয়ে কোনো সমালোচনা করলেও ব্যাট হাতে ঠিকই দিয়েছিলেন জবাব। চলতি বছরেই বাংলাদেশের বিপক্ষে দুই ম্যাচে এক অপরাজিতসহ করেছিলেন ৮৪ রান। এরপরে ইংল্যান্ড সিরিজে ১৫৫ গড়ে করেছেন ১৫৫ রান। সর্বশেষ জিম্বাবুয়ের বিপক্ষেও এক ম্যাচে করেছেন ৩৬ রান। পিএসএলে দল লাহোর কালান্দার্সকে প্রথমবারের মতো ফাইনালে তুলতে ব্যাট হাতে রেখেছেন দারুণ অবদান। ৪০ বছর বয়সে দলে নিয়মিত পারফর্ম করে ডাক পেয়েছেন নিউ জিল্যান্ড সফরে।

ট্রান্স তাসমানে পাড়ি জমানোর আগে ক্রিকেট পাকিস্তান ওয়েবসাইটে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে প্রথমবারের মতো রমিজ রাজার সমালোচনা করেছেন হাফিজ। যেখানে তিনি বলেন, ‘ক্রিকেটার হিসেবে পাকিস্তানের জন্য রমিজ ভাইয়ের অবদান আমি স্বীকার করি। যদিও আমি রমিজ ভাইয়ের মতামতকে শ্রদ্ধা করি, তবে তার ক্রিকেট বোধ ও ম্যাচ সচেতনতা নিয়ে আমার প্রশ্ন আছে। আমার ১২ বছর বয়সী ছেলের সঙ্গে যদি কথা বলেন, তার বোধও রমিজ ভাইয়ের চেয়ে ভালো।’

এরপরে আরও যোগ করেন, ‘নিজের ইউটিউব চ্যানেলের প্রচারের জন্য রমিজ ভাই যদি এসব বলতেই থাকেন, তাকে আমি থামাতে পারব না।’

কতদিন খেলা চালিয়ে যাবেন? এই প্রশ্নের উত্তরে হাফিজ আরও যোগ করেন, ‘আমি যতদিন নিজের ফিটনেস এবং পারফরম্যান্স নিয়ে সন্তুষ্ট, ততদিন খেলা চালিয়ে যেতে চাই। যেদিন মনে করবো, নতুন কেউ প্রস্তুত; আমি খুশিমনেই বিদায় নিবো।’

ঢাকা/কামরুল

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়