ঢাকা, রবিবার, ৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬, ১৯ মে ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

যশোরে দু’দিনব্যাপী অমল সেন স্মরণমেলা

বিএম ফারুক : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৯-০১-১৭ ১:৩৭:০১ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৯-০১-১৭ ১:৩৭:০১ পিএম

যশোর প্রতিনিধি: কমিউনিস্ট আন্দোলনের অন্যতম পথিকৃৎ, তেভাগা আন্দোলনের সংগঠক কমরেড অমল সেন স্মরণে যশোরের বাঘারপাড়ার বাঁকড়িতে দুইদিনের স্মরণমেলা শুরু হচ্ছে আজ।

আজীবন সংগ্রামী কমরেড অমল সেন ২০০৩ সালের ১৭ জানুয়ারি ৮৯ বছর বয়সে প্রয়াত হন।

স্মরণমেলা উপলক্ষে বৃহস্পতিবার বাকড়ি বিদ্যালয় মাঠে হবে স্মরণসভা। এতে সভাপতিত্ব করবেন অমল সেন স্মৃতি রক্ষা কমিটির সভাপতি ইকবাল কবির জাহিদ।

অনুষ্ঠানে হাজির থাকবেন বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক ফজলে হোসেন বাদশা, পলিট ব্যুরো সদস্য মাহমাদুল হাসান মানিক, অ্যাডভোকেট মুস্তফা লুৎফুল্লাহ, কামরুল আহসান, পাটির নড়াইল জেলা সভাপতি শেখ হাফিজুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট নজরুল ইসলাম, কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য অনিল বিশ্বাস, স্মৃতি রক্ষা কমিটির ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক বিপুল বিশ্বাসসহ বিভিন্ন দলের কেন্দ্রীয় নেতারা।

দুইদিনের কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে বৃহস্পতিবার দুপুর দুইটায় অমল সেন স্মৃতিস্তম্ভে শ্রদ্ধা নিবেদন, সন্ধ্যা ছয়টায় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান এবং শুক্রবার দুপুর দুইটায় চিত্রাঙ্কন ও বিতর্ক প্রতিযোগিতা, সন্ধ্যায় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।

অমল সেন ১৯ জুলাই ১৯১৩ সালে বৃটিশ ভারতের তৎকালীন যশোর জেলার নড়াইল মহকুমার আফরা গ্রামের এক সামন্ত পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। নবম শ্রেণির ছাত্রাবস্থায় ব্রিটিশ সাম্রাজ্যবাদবিরোধী সংগ্রামে যুক্ত হয়ে ‘অনুশীলন’ সমিতির সঙ্গে সম্পর্ক গড়ে তোলেন তিনি। ১৯৩৩ সালে খুলনার বিএল কলেজে রসায়ন শাস্ত্রে পড়া অবস্থায় অবিভক্ত কমিউনিস্ট পার্টির সঙ্গে যুক্ত হন এবং ১৯৩৩ সালে এই অঞ্চলের জমিদারদের বিরুদ্ধে কৃষক আন্দোলনের নেতৃত্ব দেন। তার বাবা-কাকাদের জমিদারির বিরুদ্ধে কৃষক আন্দোলনে নেতৃত্ব দিয়ে তিনি এলাকার গরীব কৃষকদের মাঝে ব্যাপক জনপ্রিয় হয়ে ওঠেন। ১৯৩৫ সালে অবিভক্ত কমিউনিস্ট পার্টির সদস্যপদ লাভ করেন তিনি। ১৯৪৬ এর ঐতিহাসিক তে-ভাগা আন্দোলনের কিংবদন্তি পুরুষ হিসেবে পরিচিত হয়ে ওঠেন ‘বাসুদা’ নামে।




রাইজিংবিডি/ যশোর/১৭ জানুয়ারি ২০১৯/বি এম ফারুক/টিপু

Walton Laptop
     
Walton AC
Marcel Fridge