ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৬ আষাঢ় ১৪২৬, ২০ জুন ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

সীমান্ত সম্মেলনে আলোচনায় সীমান্ত হত্যা

আহমদ নূর : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৯-০৬-১২ ৮:২৫:৫৮ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৯-০৬-১২ ৮:২৫:৫৮ পিএম
Walton AC 10% Discount

নিজস্ব প্রতিবেদক : ঢাকায় শুরু হয়েছে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) এবং ভারতের বর্ডার সিকিউরিটি ফোর্সের (বিএসএফ) মহাপরিচালক পর্যায়ে সীমান্ত সম্মেলন। সম্মেলনে চোরাচালন, মাদক পাচার, সীমান্ত অতিক্রমের মতো বিষয় নিয়ে আলোচনা হয়েছে। তবে আলোচনায় অন্যান্য বিষয়ের মধ্যে গুরুত্ব পেয়েছে সীমান্ত হত্যার বিষয়টি।

বুধবার ঢাকায় পিলখানায় বিজিবি সদর দপ্তরে সীমান্ত সম্মেলন ‍শুরু হয়। বাংলাদেশের পক্ষে সম্মেলনে নেতৃত্ব দেন বিজিবি মহাপরিচালক মেজর জেনারেল মো. সাফিনুল ইসলাম। বিজিবির অতিরিক্ত মহাপরিচালক, সদর দপ্তরের সংশ্লিষ্ট স্টাফ অফিসার ছাড়াও প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়, পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়, ভূমি রেকর্ড ও জরিপ অধিদপ্তর, বাংলাদেশ জরিপ অধিদপ্তর, মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর এবং যৌথ নদী কমিশনের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা বাংলাদেশ প্রতিনিধিদলের সদস্য হিসেবে উপস্থিত ছিলেন।

বিএসএফ মহাপরিচালক রজনী কান্ত মিশ্রার নেতৃত্বে ১০ সদস্যের ভারতীয় প্রতিনিধি সম্মেলনে অংশ নেয়। তাদের মধ্যে বিএসএফ সদর দপ্তরের উর্ধ্বতন কর্মকর্তা এবং ভারতের স্বরাষ্ট্র ও পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা রয়েছেন।

আগামী শনিবার জয়েন্ট রেকর্ড ডিসকাশনে (জেআরডি) স্বাক্ষরের মাধ্যমে সীমান্ত সম্মেলন শেষ হবে। ওই দিনই ভারতীয় প্রতিনিধিদল স্বদেশ প্রত্যাবর্তন করবেন। এর মধ্যে ভারতীয় প্রতিনিধিদল দেশের বিভিন্ন দর্শনীয় স্থান পরিদর্শন করবে।

বিজিবি থেকে জানানো হয়েছে, সম্মেলনে এবারের আলোচ্য বিষয়ের মধ্যে রয়েছে, সীমান্তের অপর প্রান্ত (ভারত) থেকে বাংলাদেশে ফেনসিডিল, গাঁজা, মদ, ইয়াবা, ভায়াগ্রা, সেনেগা ট্যাবলেটসহ মাদক ও নেশাজাতীয় দ্রব্যের চোরাচালান। মায়ানমারের নাগরিকদের সীমান্ত অতিক্রম বন্ধে যৌথ প্রচেষ্টা, মুহুরিরচর এলাকায় স্থায়ী সীমান্ত পিলার নির্মাণ, উভয়দেশের সীমান্ত নদীর তীর সংরক্ষণ কাজ, সীমান্তের ১৫০ গজের মধ্যে উন্নয়নমূলক নির্মাণ কাজ এবং উভয় বাহিনীর মধ্যে পারস্পরিক যোগাযোগ ও বিরাজমান সৌহার্দ্য বৃদ্ধির উপায়।

এছাড়া সীমান্তে নিরস্ত্র বাংলাদেশি নাগরিকদের গুলি, হত্যা, আহত করা, অস্ত্র, গোলা-বারুদ ও বিস্ফোরক দ্রব্য পাচার, বাংলাদেশি নাগরিকদের ধরে নিয়ে যাওয়া বা আটক, অবৈধভাবে সীমান্ত অতিক্রম, বাংলাদেশে অনুপ্রবেশ নিয়ে আলোচনা হয়েছে।

বিজিবির জনসংযোগ কর্মকর্তা মহসিন রেজা জানিয়েছেন, সীমান্ত হত্যাসহ সীমান্তের সব বিষয় আলোচ্যসূচিতে রয়েছে।  সব বিষয়ই আলোচনা হয়েছে।

প্রথম দিনের বৈঠক শেষে বিএসএফ মহাপরিচালক রজনী কান্ত মিশ্রা স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খানের সঙ্গে সচিবালয়ে তার দপ্তরে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন। এ সময় বিজিবি মহাপরিচালক মেজর জেনারেল মো. সাফিনুল ইসলাম বিএসএফ মহাপরিচালকের সঙ্গে ছিলেন।

এদিকে সীমান্ত সম্মেলন উপলক্ষে বিকেল ৫টায় বিজিবি সদর দপ্তরের বীর উত্তম ফজলুর রহমান খন্দকার মিলনায়তনে বিজিবি-বিএসএফ প্রীতি কাবাডি ম্যাচ অনুষ্ঠিত হয়। যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী মো. জাহিদ আহসান রাসেল প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন।



রাইজিংবিডি/ঢাকা/১২ জুন ২০১৯/নূর/সাইফ

Walton AC
     
Walton AC
Marcel Fridge